সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন
সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন.jpg
জন্ম(১৯৩২-১২-২৪)২৪ ডিসেম্বর ১৯৩২
মৃত্যু২০ ডিসেম্বর ২০১৩(2013-12-20) (বয়স ৮০)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পেশারাজনীতি
দাম্পত্য সঙ্গীতাজউদ্দীন আহমদ
সন্তানশারমিন আহমদ রিতি
সিমিন হোসেন রিমি
মাহজাবিন আহমদ মিমি
তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ
পিতা-মাতা

সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন (২৪ ডিসেম্বর ১৯৩২ - ২০ ডিসেম্বর ২০১৩) ছিলেন বাংলাদেশের একজন রাজনীতিবিদ এবং প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের সহধর্মিনী । তিনি ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৩২ সালের ২৪ ডিসেম্বর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। বাবার সান্নিধ্যে কিশোরী বয়স থেকেই সমাজকর্মের প্রতি মনোনিবেশ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞানে পড়াশোনা করেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৫৮ সালে আইয়ুববিরোধী আন্দোলনের সক্রিয় কর্মী হিসেব তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানের রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রবেশ করেন। ১৯৫৯ সালে তাজউদ্দীন আহমদের সঙ্গে বিয়ে হলে স্বামীর রাজনৈতিক জীবনের সহযোদ্ধায় পরিণত হন।

১৯৬৮ সালে গঠিত রাজবন্দি সাহায্য কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক নির্বাচিত হন। ১৯৭১ সালে তিনি একজন সংগঠক হিসেবে ভূমিকা রাখেন।

১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধু এবং পরে একই বছরের ৩ নভেম্বর কারাগারের তার স্বামী তাজউদ্দীনসহ চার জাতীয় নেতা হত্যার পর বাংলাদেশে ভয়ানক পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে, তিনি আওয়ামী লীগের হাল ধরেন। ১৯৭৭ সালে তিনি দলের আহ্বায়ক নির্বাচিত হন। সেই সময় সামরিক স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে ভূমিকা পালন করেন। ১৯৮১ সালে শেখ হাসিনা দেশে ফিরে দলে আসলে, তাকে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নির্বাচিত করা হয়। সেই থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্ব পালন করেন।[১]

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৫৯ সালে তাজউদ্দীন আহমদের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তাদের চার ছেলেমেয়ে রয়েছে, তারা হলেন শারমিন আহমদ রিতি (বড় মেয়ে) সিমিন হোসেন রিমি (মেজো মেয়ে), মাহজাবিন আহমদ মিমি (কনিষ্ঠা মেয়ে) ও তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ (কনিষ্ঠ পুত্র)।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

২০১৩ খ্রিষ্টাব্দের ২০ ডিসেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সাধারণ থেকে অসাধারণ ব্যক্তিত্বে উত্তরণ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৬ 
  2. "সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন আর নেই"priyo.com। ২০ ডিসেম্বর ২০১৩। ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]