সিভি আনন্দ বোস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সিভি আনন্দ বোস
C. V. Ananda Bose.jpg
পশ্চিমবঙ্গের ২২তম রাজ্যপাল
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২৩ নভেম্বর ২০২২
রাষ্ট্রপতিদ্রৌপদী মুর্মু
মু্খ্যমন্ত্রীমমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
পূর্বসূরীলা. গণেশন (অতিরিক্ত দায়িত্বে)
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1951-01-02) ২ জানুয়ারি ১৯৫১ (বয়স ৭২)
কোট্টায়ম, কেরল, ভারত
জাতীয়তাভারতীয়
জীবিকাসরকারি কর্মকর্তা

সিভি আনন্দ বোস ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিসের (আইএএস) একজন প্রাক্তন কর্মকর্তা। তিনি পশ্চিমবঙ্গের ২২তম রাজ্যপাল।[১][২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আনন্দ ১৯৫১ সালের ২ জানুয়ারি কেরলের কোট্টায়মে জন্মগ্রহণ করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আনন্দ বোস ১৯৭৭ ব্যাচের কেরল ক্যাডার আইএএস কর্মকর্তা। তিনি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ও রাজ্য সরকারে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছেন। তিনি কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর সচিব, জেলাশাসক, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ভারত সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পে যুক্ত ছিলেন। কাজ করেছেন মেঘালয় সরকারের উপদেষ্টা হিসেবেও। ইংরেজি, হিন্দি ও মালয়ালম ভাষায় তার দক্ষতা রয়েছে। তিনি প্রায় ৪০টি বইয়ের রচয়িতা। তিনি ২৯টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছেন। শিক্ষাজীবনে ১৫টি স্বর্ণপদকসহ তিনি ১০০টির বেশি পদক লাভ করেন। স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার প্রবেশনারি অফিসার হিসেবে প্রথম চাকরিতে কলকাতাতেই তিনি কর্মজীবন শুরু করেছিলেন।[২][৩][৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "জগদীপ ধনকড়ের পর বাংলার নতুন রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস"সংবাদ প্রতিদিন। ১৭ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০২২ 
  2. "বাংলার নতুন রাজ্যপাল প্রাক্তন আইএএস সিভি আনন্দ বোস! বাঙালি নন, কিন্তু সুভাষের 'বোস' কি?"আনন্দবাজার পত্রিকা অনলাইন। ১৭ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০২২ 
  3. "নখড়ের পর স্থায়ী রাজ্যপাল পেল পশ্চিমবঙ্গ, দায়িত্বে সিভি আনন্দ বোস"হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা। ১৭ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০২২ 
  4. "মোদির আবাস যোজনার রূপকার, আইএএস অফিসার, বাংলার নয়া রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস"এবিপি আনন্দ। ১৭ নভেম্বর ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০২২