সিতি মুসদাহ মুলিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সিটি মুসদাহ মুলিয়া
Dr. Siti Musdah Mulia of Indonesia, 2007 International Women of Courage Award.jpg
২০০৭ সালে সিটি মুসদাহ মুলিয়া
জন্ম
জাতীয়তাইন্দোনেশীয়
পরিচিতির কারণনারী অধিকার কর্মী

ড. সিটি মুসদাহ মুলিয়া হলেন ইন্দোনেশিয়ার একজন নারী অধিকার কর্মী।[১] তিনি ইন্দোনেশীয় বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের প্রথম নারী রিসার্চ প্রফেসর।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

সিটি মুসদাহ মুলিয়া বর্তমানে ইন্দোনেশীয় বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটে অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন; এছাড়াও তিনি জাকার্তার সিয়ারিফ হিদায়াতুল্লাহ স্টেট ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলামি রাজনৈতিক চিন্তা বিষয়ে ক্লাস নিয়ে থাকেন।[১][২][৩] ২০০৭ সাল থেকে তিনি বেসরকারি সংস্থা ইন্দোনেশিয়ান কনফারেন্স অন রিলিজিয়ন ফর পিসের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।[২]

১৯৯৭ সালে তিনি সিয়ারিফ হিদায়াতুল্লাহ স্টেট ইসলামিক ইউনিভার্সিটির ইতিহাসে প্রথম নারী হিসেবে ইসলামি চিন্তার উপরে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।[১][৪] তিনি ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত তিনি দেশটির ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন; এ সময়কালে তিনি বাল্যবিবাহ নিষিদ্ধকরণ ও আন্তঃধর্মীয় বিবাহ বৈধকরণ নিয়ে কাজ করেছেন।[১][২] বিষয়গুলো তীব্র প্রতিবাদের সম্মুখীন হলে দেশটির ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রকল্পগুলো বাতিল করেছিল।[১] ২০০০ সাল থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত তিনি ইন্দোনেশীয় উলেমা কাউন্সিলের গবেষণা বিভাগের প্রধান ছিলেন।[২]

গ্রন্থতালিকা[সম্পাদনা]

সিটি মুসদাহ মুলিয়া রচিত গ্রন্থগুলো হল:[২]

  • ইসলাম ক্রিটিসাইজেস পলিগ্যামি (২০০৩)
  • রিফরমিস্ট মুসলিমাহ (২০০৪)
  • ইসলাম অ্যান্ড দ্য ইনস্পায়ারেশন অব জেন্ডার ইকুইটি (২০০৫)

সম্মাননা[সম্পাদনা]

তিনি ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক সাহসী নারী পুরস্কার, ২০০৯ সালে ইয়াপ থিয়াম হিয়েন পুরস্কার এবং ২০০৯ সালে ইতালি সরকার কর্তৃক প্রদত্ত উইম্যান অব দ্য ইয়ার পুরস্কার লাভ করেন।[১][৩][৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Honorees
  2. "SPEAKERS / Prof. Dr. Siti Musdah Mulia | Council for a Parliament of the World's Religions"। ২০১৪-০৪-১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-০৪ 
  3. "Siti Musdah Mulia | WISE Muslim Women"। ২০১৪-০৮-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-০৪ 
  4. Siti Musdah Mulia: A courageous woman | The Jakarta Post