সরজানা শর্মা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরজানা শর্মা
জন্ম (1959-03-18) ১৮ মার্চ ১৯৫৯ (বয়স ৬৩)
জাতীয়তাভারতীয়

সরজানা শর্মা (জন্ম: ১৮ই মার্চ ১৯৫৯) হলেন একজন প্রবীণ ভারতীয় সাংবাদিক, যিনি যখন তাঁর কর্মজীবন শুরু করেছেন তখনকার সময়ে হিন্দি গণমাধ্যমে খুব কম নারী কাজ করতেন। প্রচলিত পেশায় নারী এবং মহিলা বন্দীর মতো বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে তিনি অনেক তথ্যচিত্র পরিচালনা এবং প্রযোজনা করেছেন। এই তথ্যচিত্রগুলি ভারত, প্রাক্তন সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছে। তিনি জি নিউজের একজন সহকারী কার্যনির্বাহী প্রযোজক ছিলেন।[১] বর্তমানে তিনি কবির কমিউনিকেশন-এর সৃজনী বিভাগের প্রধান হিসেবে কাজ করছেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

সরজানা শর্মা ১৯৫৯ সালের ১৮ই মার্চ তারিখে ভারতের উত্তর প্রদেশের শাহরানপুরে কৃষ্ণ শর্মা ও প্রেম লতা শর্মার ঘরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি রাজনৈতিক বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি এবং গণ যোগাযোগ বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করার মাধ্যমে তাঁর শিক্ষা জীবন সম্পন্ন করেছেন। অতঃপর তিনি অনুবাদ এবং ভারতীয় শিল্প ও সংস্কৃতি এবং আলোকচিত্ৰবিদ্যার কোর্সে ডিপ্লোমা করেছেন। সরজানা বিভিন্ন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সাথে বেশ কয়েকটি প্রকল্পে কাজ করেছেন।[২]

পেশা[সম্পাদনা]

৩১ বছরের সাংবাদিকতার জীবনে সরজানা শর্মা ভারতের গণমাধ্যমের বেশ কয়েকটি স্বনামধন্য প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান, যেমন, ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তথ্য সংস্থার মতো আন্তর্জাতিক সংস্থার সাথে কাজ করেছেন। ১৯৯৫ সালে তিনি ৪৫ মিনিটের টিভি মহিলা পত্রিকা অস্মিতার প্রযোজনায় মূল ব্যক্তি ছিলেন তিনি। সেখানে ভারতীয় নারীদের অত্যন্ত ইতিবাচক দৃষ্টিতে প্রদর্শন করা হয়েছিল।[৩] তিনি ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন দ্বারা দীর্ঘ ২৭ দিনের আন্তর্জাতিক নৃত্য উৎসবের জন্য একজন গণমাধ্যম সমন্বয়কারী হিসাবে নিযুক্ত ছিলেন। তিনি আন্তর্জাতিক নৃত্য দল, গণমাধ্যম এবং দূতাবাসগুলোর মধ্যে প্রধান সংযোগ ছিলেন। গণমাধ্যম জগতে এই উৎসবটি ব্যাপক নজর কেড়েছিল।[৪] বর্তমানে তিনি কবিতা কমিউনিকেশন নামক একটি বেসরকারী প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানে সৃজনী বিভাগের প্রধান হিসাবে কাজ করার পাশাপাশি সংবাদপত্র এবং ডিডি কিষাণের মুক্তপেশায় কাজ করছেন।[১]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

গণমাধ্যমে তাঁর অবদানের জন্য তিনি তাঁর দীর্ঘ এবং সুপরিচিত কর্মজীবনে বেশ কয়েকটি পুরস্কার লাভ করেছেন; যার মধ্যে ভারত নির্মাণ পুরস্কার, হিন্দি ভাষায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ৩২তম পণ্ডিত দুর্গা প্রসাদ দুবে পুরস্কার, ড. সাধনা আন্তর্জাতিক ক্ষমতায়ন পুরস্কার এবং ২০১০ সালের বৈদিক রতন পুরস্কার অন্যতম।[৫]

তিনি "টিএএসবিএটিআইওয়াইএএন" নামে তাঁর একটি নিজস্ব ব্লগ লিখেন; এটি একটি বহুল পঠিত হিন্দি ব্লগ। সেরা ব্লগিংয়ের জন্য তিনি দুটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেছেন; যেগুলো হলো ২০১৪ সালের ব্লগ ভূষণ পুরস্কার এবং ২০১৫ সালের পরিকল্পনা সার্ক পুরস্কার।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Zee News' Sarjana Sharma wins prestigious award"। Zee News। ১০ সেপ্টেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬ 
  2. "सर्जना शर्मा" (Hindi ভাষায়)। Parikalpna Kosh। ২৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬ 
  3. "भूटान में ब्लागर्स मिले" (Hindi ভাষায়)। Srijanagatha। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "सर्जना शर्मा का सम्मान, ब्लॉग जगत का बढ़ा मान" (Hindi ভাষায়)। Deshnama। ৮ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬ 
  5. "Zee News' Sarjana Sharma wins Dr Sadhna Award"। Zee News। ৫ মার্চ ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬