শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম, নিমপীঠ

স্থানাঙ্ক: ২২°০৯′২৬″ উত্তর ৮৮°২৬′২৫″ পূর্ব / ২২.১৫৭০৯৭° উত্তর ৮৮.৪৪০২৪৬° পূর্ব / 22.157097; 88.440246
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম
Nimpith Ramkrishna Ashram.jpg
নীতিবাক্যআত্মনো মোক্ষার্থং জগদ্ধিতায় চ
(आत्मनो मोक्षार्थं जगद्धिताय च)
(আত্মার মুক্তি ও জগতের কল্যাণের জন্য)
গঠিত১৯৬০; ৬৩ বছর আগে (1960)
অবস্থান
স্থানাঙ্ক২২°০৯′২৬″ উত্তর ৮৮°২৬′২৫″ পূর্ব / ২২.১৫৭০৯৭° উত্তর ৮৮.৪৪০২৪৬° পূর্ব / 22.157097; 88.440246
ওয়েবসাইটwww.nimpithrkashram.org

শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম হল রামকৃষ্ণ মঠমিশনের একটি শাখাকেন্দ্র। এই কেন্দ্রটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার জয়নগর শহরের নিমপীঠে অবস্থিত।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৬০ সালে রামকৃষ্ণ মঠের সন্ন্যাসী স্বামী বুদ্ধানন্দ দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে সেবাকার্য চালানোর উদ্দেশ্যে জয়নগরের নিমপীঠে এই আশ্রমটি প্রতিষ্ঠা করেন। পশ্চিমবঙ্গের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ড. বিধানচন্দ্র রায়ের সহযোগিতায় এই আশ্রমটি স্থাপিত হয়েছিল।[২] আশ্রম কর্তৃপক্ষ সুন্দরবন অঞ্চলে দারিদ্র্য, নিরক্ষরতা, কুসংস্কার ও বেকারত্বের সমস্যা দূর করার জন্য গ্রামোন্নয়নের কাজ করে থাকেন। এই উদ্দেশ্যে নিমপীঠ শ্রীরামকৃষ্ণ অঞ্চল এই অঞ্চলে স্কুল, দ্বীপ সেবাকেন্দ্র ও স্বাস্থ্যকেন্দ্র প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি কৃষি গবেষণার মাধ্যমে কয়েকটি স্বনির্ভরতা প্রকল্প পরিচালনা করে থাকে।[৩] রামকৃষ্ণ বিদ্যাভবন ও নিমপীঠ সারদা বিদ্যামন্দির নিমপীঠ আশ্রমেরই অধীনস্থ দু’টি স্কুল।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "কলকাতা থেকে মাত্র দেড় ঘণ্টায় সুন্দরবনের গন্ধ"। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯ 
  2. "The Role of Sri Ramkrishna Ashram, Nimpith in the Socio-economic Development of Sundarbans" (পিডিএফ)। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯ 
  3. "State teams up with UNESCO for rural training programme"। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯ 
  4. "Sri Ramkrishna Ashram, Nimpith"। জানুয়ারি ৩, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯