শরণ্যা মোহন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শরণ্যা মোহন
জন্ম (1989-02-19) ১৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৯ (বয়স ৩৩)[১]
অন্যান্য নামআপ্পু
পেশাঅভিনেত্রী , নৃত্যশিল্পী, গায়ক
কর্মজীবন১৯৯৭–২০১৫
দাম্পত্য সঙ্গীড. অরবিন্দ কৃষ্ণান্দ (২০১৫– বর্তমান) [৩]

শরণ্যা মহোন (জন্ম ১৯ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৯) একজন প্রাক্তন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। তিনি মালায়ালাম, তামিল, তেলুগু, কান্নাদা এবং হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি সম্ভবত ইয়ারাদি নী মোহিনী (২০০৮), ভেনিলা কবাডি কুঝু (২০০৯), ইরাম (২০০৯), ভেলায়ধাম (২০১১) এবং ওস্থে (২০১১) অভিনয়ের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত। [৪]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

শরণ্যা হলেন মহোন এবং কালামান্দালাম দেবীর কনিষ্ঠ মেয়ে। [২] তার একটা বড় বোন আছে এবং সে একজন ধ্রুপদী নৃত্য শিল্পী, তিনি অনেকগুলো ধ্রুপদী নৃত্যে প্রশিক্ষিত। [২] তার বাবা-মা উভয় ধ্রুপদী নৃত্যে প্রশিক্ষিত। তার বাবা-মা এবং তাদের নৃত্য শিক্ষকগণ একসাথে একটি নৃত্য বিদ্যালয় চালান। এই বিদ্যালয়ের নাম দেওয়া হয়েছে ওয়াই.কে.বি ডান্স একাডেমি। [৫] আলেপ্পিতে শরণ্য নিজেও ভারতনাট্যম নাচ শিখেছেন। সে আলেপ্পিতে সেন্ট জোসেফ মহিলা কলেজ থেকে পড়াশোনা করেছেন। [৬] সেখানে তিনি ইংরেজি সাহিত্যে বি.এ ডিগ্রি অর্জন করেছেন। [৭] অন্নমালাই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এমএ করার পরে,[৮] চিদাম্বরমে তিনি বর্তমানে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভারতনাট্যমে এমএফএ করছেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তাকে মালায়ালামের ফাজিল নামের এক পরিচালক তাকে সকলের কাছে প্রকাশ্যে নিয়ে আসেন। তিনি তার নাচের বিদ্যালয়ে তাকে নাচতে দেখেছিলেন। তিনি তার বাবা-মায়ের কাছে আসেন এবং তাদের বিষয়টি বলার পরে, তিনি তাকে ১৯৯৭ সালে মালায়ালাম ছবি আনিয়থি প্রুভ এবং এর তামিল পুনঃনির্মাণ, কাদালুক্কু মারিয়াধাইয়ের একটি শিশু চরিত্রে অভিনয়ের জন্য রেখেছিলেন । এরপরে তিনি জনপ্রিয় মালায়ালাম চলচ্চিত্র হরিকৃষ্ণস-এ মামুট্টি, মোহনলাল এবং জুহি চাওলা মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। তারপরে তাকে মোহনলালসুরেশ গোপির সাথে আরও একটি মালায়ালাম চলচ্চিত্র রক্ষাক্ষালিকাল সিনদাবাদে শিশুশিল্পী হিসাবেও দেখা গিয়েছিল । তারপরে তিনি পড়াশোনায় মনোনিবেশ করে কিছুটা বিরতি নিয়েছিলেন। [৯] ফাজিলের অন্য পরিচালনায় অরু নাল ওরু কানাভুতে(২০০৫) তিনি সহায়ক চরিত্রে অভিনয় করার আগে, যেখানে তিনি একজন পুরুষ চরিত্রে্র বোন চরিত্র হিসাবে অভিনয় করেছিলেন।

তার পরবর্তী মুক্তিপ্রাপ্ত ধনুশ - নয়নতারা অভিনীত ইয়ারাদি নী মোহিনী (২০০৮) তাকে আলোচনায় নিয়ে আসে। বড় বোনের ছোট বোন হিসাবে তাঁর কৌতুক অভিনয় করেন।এই চরিত্রে তিনি তার বোনের প্রেমের আগ্রহের প্রতি আকৃষ্ট ছিলেন। এই চলচ্চিত্রে তিনি তাঁর খ্যাতি এবং অনেক প্রশংসা অর্জন করেছিলেন। পরবর্তীকালে ২০০৮ সালে তিনি আরও তিনটি তামিল চলচ্চিত্রে উপস্থিত হয়েছিলেন। তবে এটি তেমন সফল ছিলনা। ২০০৯ সালে তার ছয়টি চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছিল। এর মধ্যে চারটি ছিল তামিল প্রকল্প। তিনি ২০১০ সালে ভেমিলি কাবাডি জাট্টু শিরোনামে তার তামিল চলচ্চিত্র তেলুগু পুনঃনির্মাণও করেছিলেন। তারপরে তিনি একই বছরে আরও একটি তেলুগু চলচ্চিত্র হ্যাপি হ্যাপি গে করেছিলেন। ২০১১ সালের শুরুতে তিনি একটি মালায়ালাম চলচ্চিত্র করেছিলেন পন্নু কনডোরু আলরুপম । পরবর্তী আরেকটি মালায়ালম চলচ্চিত্র ছিল নাদাকমে ওলকম তাকে সহযোগিতা করেছিলেন মুকেশ,বিনু মোহন এবং সরযূ মোহন। তারপরে তিনি একই বছর তামিল চলচ্চিত্র আজাগারসামায়িন কুঠিরাইতে একটি ক্যামিও চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ২০১১ সালে তিনি অভিনয় এম রাজা এর ভেলায়ধাম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।এই চলচ্চিত্রে বিজয়ের বোন হিসাবে তার ভূমিকা তাকে অনেক ভাল পর্যালোচনা পাইয়েছে। একই বছর পরে তিনি একটি মালায়ালাম সিনেমা ইন্নানু আ কল্যাণম করেছিলেন । ২০১২ সালেও তিনি মালায়ালাম চলচ্চিত্র পেরিনোরু মাকান দিয়ে শুরু করেছিলেন । তারপরে একই বছরে তাঁর প্রথম কন্নড় চলচ্চিত্র ই ভূমি আ ভানুর সাথে কন্নড় এন্ট্রি হয়েছিল। তারপরে তিনি কোলগালাম একটি তামিল মুভি করতে গিয়েছিলেন । ২০১৪ সালে তিনি ভি। রবিচন্দ্রন স্যার অভিনীত পরমশিব তাঁর দ্বিতীয় কন্নড় সিনেমা করেছিলেন। তিনি তামিল মুভি কাদলাই থাভিরা ভেরু ওন্দ্রাম ইল্লাইয়ের মাধ্যমে তাঁর কেরিয়ার চালিয়ে যান। তারপরে একই বছর তিনি নীশানের বিপরীতে বদলাপুর বয়েসের সাথে বলিউডে পা রাখেন যা তাঁর জনপ্রিয় তামিল চলচ্চিত্র ভেনিলা কাবাডি কুজুর হিন্দি পুনঃনির্মাণ ছিল। [১০] এখন ২০১৫ সালে তিনি আরও একটি তামিল চলচ্চিত্র করেন সিয়াম পূর্ণ করেছেন। [১১] কিন্তু চলচ্চিত্রটি এখনো প্রকাশিত হয়নি।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

একটি মন্দিরে ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ সালে তার দীর্ঘদিনের বন্ধু ড. অরবিন্দ কৃষ্ণান্দের বিয়ে হয় আলেপ্পিতে[১২] তাদের অনন্তপদ্মনাভবন অরবিন্দ নামে একটি পুত্র এবং অন্নপূর্ন অরবিন্দ নামে একটি কন্যা রয়েছে। [১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://www.imdb.com/name/nm3674752/
  2. വേലായുധത്തിന്റെ കാവേരി ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে. mathrubhumi.com (6 November 2011)
  3. Actress Saranya Mohan enters into wedlock – Times of India. Timesofindia.indiatimes.com (7 September 2015). Retrieved on 22 September 2016.
  4. വെണ്ണിലാ പെണ്‍കൊടി ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৯ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে. mathrubhumi.com (28 April 2009)
  5. YKB International Academy. YKB International Academy. Retrieved on 22 September 2016.
  6. St Joseph's College. Stjosephscollegeforwomen.org (1 July 1954). Retrieved on 22 September 2016.
  7. Interview With Saranya Mohan – Interviews. CineGoer.com (26 October 2009). Retrieved on 22 September 2016.
  8. Annamalai University Staff Portal. Annamalaiuniversity.ac.in. Retrieved on 22 September 2016.
  9. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১ এপ্রিল ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০২০ 
  10. [১]
  11. Suyam Movie Trailer. YouTube (13 October 2014). Retrieved on 22 September 2016.
  12. http://kottamkulangara.com/
  13. http://english.manoramaonline.com/entertainment/entertainment-news/saranya-mohan-blessed-with-a-baby-boy.html ?