লেফট্যানেন্ট জেনারেল (বাংলাদেশ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লেফটেন্যান্ট জেনারেল
Bangladesh-army-OF-8.svg
একটি শাপলা রয়েছে যা বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক থেকে নেওয়া, এর নিচে একটি পিপ ও আড়াআড়ি তলোয়ার রয়েছে।
Three Star General Plate.svg
গাড়িতে ব্যবহৃত তারকা-প্লেট
দেশ বাংলাদেশ
সেবার শাখা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
পদবি তিন তারকা
ন্যাটো পদবি কোডওএফ-৮
অ-ন্যাটো পদবিও-৯
পরবর্তী উচ্চতর পদবি জেনারেল
পরবর্তী নিম্নতর পদবিমেজর জেনারেল
সমমানের পদবি

লেফটেন্যান্ট জেনারেল (সংকোচনে 'জেনারেল' নামে পরিচিত) বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি সিনিয়র পদ। এটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সক্রিয় র‌্যাঙ্ক এবং ব্রিটিশ সামরিক পদমর্যাদার লেফটেন্যান্ট জেনারেলের প্রত্যক্ষ সমতুল্য হিসেবে তৈরি করা হয়েছিল। এটি একটি ৩ তারকা র‌্যাঙ্ক হিসেবেও বিবেচিত হয়। ২০০৭ অবধি এটি বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর সর্বোচ্চ পদে ছিল কারণ সেনাবাহিনীর সমস্ত প্রধান এই পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন এবং নৌ ও বিমানবাহিনী প্রধান দুই তারকা র‌্যাঙ্কের ছিলেন।

লেফটেন্যান্ট জেনারেল মেজর জেনারেলের চেয়ে উচ্চ পদমর্যাদার, তবে জেনারেলের চেয়ে কম। লেফটেন্যান্ট জেনারেল হল বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে ভাইস অ্যাডমিরাল এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে এয়ার মার্শালের সমতুল্য। জিয়াউর রহমান প্রথম ব্যক্তি যিনি এই পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। তার পূর্বে প্রথম সেনাপ্রধান কে এম শফিউল্লাহ ছিলেন মেজর-জেনারেল এবং এমএজি ওসমানীকে (১৯৬৭ সালে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর কর্নেল হিসাবে অবসরপ্রাপ্ত) ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় তার দায়িত্বের পুরো সময় জেনারেল করা হয়েছিল।

পদচিহ্ন[সম্পাদনা]

লেফটেন্যান্ট জেনারেলের পদমর্যাদার পদচিহ্নতে একটি শাপলা রয়েছে যা বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক থেকে নেওয়া, এর নিচে একটি পিপ ও আড়াআড়ি তলোয়ার রয়েছে। ২০১৩ অবধি এই পদচিহ্নটি 'সম্পূর্ণ জেনারেল' র‌্যাঙ্কের জন্য ব্যবহৃত হত এবং লেফটেন্যান্ট-জেনারেলের পদচিহ্নে কেবল আড়াআড়ি তলোয়ার এবং লাঠির উপরে শাপলা ছিল। লেফটেন্যান্ট জেনারেলরা কলারগুলিতে তিন-তারকা পয়েন্ট ব্যাজ পরেন।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]