লতা পাদা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লতা পদা (ಲತಾ ಪಾದ)
জন্ম
লতা

(1947-11-07) ৭ নভেম্বর ১৯৪৭ (বয়স ৭২)
জাতীয়তাভারতীয়
নাগরিকত্ব ভারত কানাডা
শিক্ষামাস্টার শিক্ষক কলাইমণি কল্যাণসুন্দরম, এবং পদ্মভূষণ কালানীধি নারায়ণানের অধীনে শিখেছেন
যেখানের শিক্ষার্থীএলফিনস্টোন কলেজ, মুম্বাই
পেশানৃত্যশিল্পী, কোরিওগ্রাফার, শিক্ষক ও লেখক
পরিচিতির কারণভরতনাট্যম
পুরস্কার
ওয়েবসাইটwww.sampradaya.ca

লতা পদা, [১] (ಲತಾ ಪಾದ) সিএম (জন্ম: ৭ নভেম্বর ১৯৪৭ [২] ) একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কানাডীয় কোরিওগ্রাফার এবং ভরতনাট্যম নৃত্যশিল্পী। পদা দক্ষিণ এশিয়ার নৃত্য পরিবেশনকারী একটি নৃত্য সংস্থা সম্প্রদায় ডান্স ক্রিয়েশন -এর প্রতিষ্ঠাতা ও শৈল্পিক পরিচালক। তিনি সম্প্রদায় ডান্স একাডেমি-র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক। এটি একটি শীর্ষস্থানীয় পেশাদার নৃত্য প্রশিক্ষণ সংস্থা যা উত্তর আমেরিকার একমাত্র দক্ষিণ এশিয়ান নৃত্যের বিদ্যালয়, যুক্তরাজ্য ভিত্তিক নৃত্যের ইম্পেরিয়াল সোসাইটি অফ টিচার্সের সাথে যুক্ত। [৩] [৪] পদা ১৯৯০ সালে এই নৃত্য সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন; পদা বলেছিলেন যে, তিনি এই সংস্থাটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন কারণ তিনি ভারতনাট্যম নাচকে বিশ্বজুড়ে একটি শিল্পরূপ হিসাবে প্রদর্শন করতে চেয়েছিলেন। [৫] [৬] পদা কানাডায় দক্ষিণ এশীয় ধাঁচের নাচের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব হিসাবে পরিচিত। [৭]

আগের জীবন[সম্পাদনা]

১৯৪৭ সালের ৭ই নভেম্বর জন্মগ্রহণকারী লতা একজন সুশিক্ষিত পরিবারে চার সন্তানের মধ্যে বড় ছিলেন। [৮] তাঁর বাবা রয়েল নেভিতে বৈদ্যুতিক প্রকৌশলী ছিলেন এবং তাঁর মা বীমা ব্যবস্থাপনায় কর্মরত ছিলেন। ভারতীয় নৃত্য চালিয়ে যেতে তিনি বিজ্ঞানের পড়াশোনা ছেড়ে দিয়েছিলেন। তাঁর প্রথম স্বামী বিষ্ণু পদা ইনকোতে কর্মরত অবস্থায় তাঁকে যখন ম্যানিটোবারের থম্পসনে নিয়ে গিয়েছিলেন, সেখানে তিনি তাঁর গৃহকর্মকে সামাজিক জীবন এবং তাঁর শৈল্পিক পেশার সাথে একত্রিত করতে সক্ষম হয়েছিলেন। তিনি এবং বিষ্ণু খনির শহরে প্রথম ভারতীয় পরিবার ছিলেন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

লতা মুম্বাইয়ের এলফিনস্টোন কলেজে পড়াশোনা করেছেন। [৯] গুরু কলাইমণি কল্যাণসুন্দরাম এবং পদ্মভূষণ কলানধি নারায়ণনের অধীনে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন। [৭] লাতা অন্টারিওর টরন্টোর নিকটে মিসিসাগা শহরে থাকেন। [১০] লতা ভূতাত্ত্বিকবিজ্ঞানী বিষ্ণু পদাকে (ವಿಷ್ಣು ಪಾದ) ৩০শে অক্টোবর ১৯৬৪ সালে বিয়ে করেছিলেন, যখন তাঁর বয়স ১৭ বছর ছিল। কানাডায় বিবাহ হয়েছিল। বিষ্ণু ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভূতত্ত্বে স্নাতক ছিলেন; ভারতে এসে তিনি লতাকে দেখেন এবং বিয়ের আলোচনা হয়। [১১] কানাডায় আসার পরে লতা পদা মহিলাসংঘের একজন সদস্য হন এবং বিভিন্ন কর্মসূচীতে অংশ নেওয়া শুরু করেন।

পেশা হিসেবে ভরতনাট্যম[সম্পাদনা]

১৩ বছর বয়সে লতা তাঁর একক অভিষেক নৃত্য প্রদর্শন করেছিলেন যা 'আরঙ্গেত্রম' নামে পরিচিত। একক শিল্পী হিসাবে লতা পদার জীবন শুরু হয়েছিল ১৯৬৫ সালে, তিনি কানাডায় অভিবাসিত হওয়ার বছর থেকেই শুরু করেছিলেন। এই সময়ে, তাঁর কাজ মূলত গতানুগতিক ছিল। যাইহোক, যখন তিনি বেশ কয়েক বছর ইন্দোনেশিয়ায় ছিলেন, তখন তিনি আন্তঃ-সাংস্কৃতিক সহযোগিতাতে আগ্রহী হয়ে ওঠেন এবং অন্যের জন্য কোরিওগ্রাফি শুরু করেন। ১৯৭৯ সালে, তিনি কানাডায় ফিরে আসেন। একক নৃত্যে পদা ভরতনাট্যমকে ঐতিহ্যবাহী আকারে এবং আরও সমসাময়িক ধরণে চিত্রিত করা শুরু করেন। ১৯৯০ সালে, পদা অন্টারিওর টরন্টোতে সম্প্রদায় ডান্স ক্রিয়েশন এবং নিকটবর্তী মিসিসাগায় সম্প্রদায় ডান্স একাডেমি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সম্প্রদায় ডান্স ক্রিয়েশান শাস্ত্রীয় এবং সমসাময়িক নৃত্যে একক এবং দলগত নৃত্য পরিকল্পনা উপস্থাপন করে। সংস্থাটি শিক্ষা এবং সম্প্রদায়ের প্রচারেও নিয়োজিত।

ছুটিতে ভারতে[সম্পাদনা]

১৯৮৫ সালে লতা পদা এবং তাঁর পরিবার ভারতে বর্ধিত ছুটি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। [১২] সেই বছরের ২৩ শে জুন এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট ১৮২ -এ বোমা হামলায় স্বামী বিষ্ণু পদা এবং দুই কন্যা আরতি ও বৃন্দা মারা গিয়েছিলেন। [৪] [১০] লতা ব্যাঙ্গালোর এবং ভারতজুড়ে ভরতনাট্যম প্রদর্শনের জন্য ভারত সফর করতে আগেই চলে এসেছিলেন। লতা তাঁর সফরের জন্য মুম্বাইতে অনুশীলন করছিলেন এবং তাঁর স্বামী ও কন্যারা অন্টারিওর সুদবুরিতে ছিলেন, সেখানে বৃন্দা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করছিলেন। এরপরে তিনজনই এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট-১৮২ তে যাত্রা করেন। [১৩] লতা পদা আক্রান্তদের পরিবারের মুখপাত্র হিসেবে এগিয়ে আসেন। [১৪] কানাডার সরকারের এয়ার ইন্ডিয়ার ঘটনার তদন্তে হতাশা প্রকাশ করেছিলেন লতা পদা। [১৫] দুর্ঘটনার পরে তিনি ঘটনার স্মরণে নৃত্যখণ্ড "রিভিলড বাই ফায়ার" তৈরি করেছিলেন। [১৬] লতা এই হামলার শিকার বিষ্ণু পদার সম্মানে, লরেন্তিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ে, পদা স্মারক পুরস্কার প্রদান শুরু করেন। [১৭]

১৯৯৭ সালে পদা ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চারুকলায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন। [১৮] [১৯]

পুরস্কার ও প্রশংসা[সম্পাদনা]

  • ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে, কোরিওগ্রাফার, শিক্ষক, নৃত্যশিল্পী এবং শৈল্পিক পরিচালক হিসাবে ভরতনাট্যমের উন্নয়নে অবদানের পাশাপাশি কানাডীয় ভারতীয় সম্প্রদায়ের প্রতিশ্রুতি ও সমর্থনের জন্য লতা পদাকে অর্ডার অফ কানাডার সদস্য করা হয়। [২০] লতা সম্প্রতি টরন্টোর ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যের স্নাতক অনুষদে সহযোগী অধ্যাপক হিসাবেও নিয়োগ পেয়েছেন।
  • তিনি এয়ার ইন্ডিয়া ১৮২ তথ্যচ্চিত্রের একজন সাক্ষাৎকারদাতা ছিলেন। [২১] এআই ১৮২-তে মেডে পর্বের জন্যও তাঁর সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছিল।
  • ৯ জানুয়ারী, ২০১১, ভারতের রাষ্ট্রপতি পদাকে প্রবাসী ভারতীয় সম্মান পুরস্কার প্রদান করেছিলেন। ২০০৩ সালে ভারত সরকার কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত এই পুরস্কারটি প্রবাসে ভারতীয়দের অসামান্য অবদানকে স্বীকৃতি দেয়।
  • নৃত্যে দৃষ্টান্তমূলক অবদানের পাশাপাশি ১৯৮৫ সালের এয়ার ইন্ডিয়ার ১৮২ বিমানে বোমা হামলার জনসমক্ষে তদন্তে নিরলস প্রচেষ্টার জন্য লতাকে প্রবাসী ভারতীয় সম্মান পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল।
  • কানাডার এই মর্যাদাপূর্ণ সম্মান প্রাপ্ত পদা হলেন প্রথম পরিদর্শন শিল্পকলার শিল্পী [২২] [২৩]
  • ১৮ জুন ২০১২ সালে, কানাডায় দক্ষিণ এশীয় নৃত্য প্রচারে অসামান্য অবদানের জন্য পাদা রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের হীরকজয়ন্তী পদক পেয়েছিলেন। [২৪]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Nartaki, Interview, May, 2001, Lata Pada - Choreographer
  2. "Biography"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-১১ 
  3. Walker, Susan. "Call it South Asian dance HQ." The Toronto Star. 30 May 2008.
  4. Kopun, Francine. "When the only thing left is hope." The Toronto Star. 25 August 2007.
  5. "“B2” a collaboration between Sampradaya Dance Creations and Ballet Jorgen." Harbourfront Centre. Retrieved on 10 December 2008.
  6. " Sampradaya Dance Creations." Canada Council for the Arts. Retrieved on 10 December 2008.
  7. "Daring and innovative." The Telegraph. Retrieved on 10 December 2008.
  8. Resource guide, By dance reborn-By Keith Garebian
  9. "P-196." Air India Commission, Government of Canada. 17 September 2007. Retrieved on 24 June 2009.
  10. Curry, Bill. "Air India bombing could have been prevented." The Globe and Mail. 9 May 2007.
  11. Radhika, V. "Dancing To Transform ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩১ জানুয়ারি ২০১০ তারিখে." Boloji. 4 December 2004.
  12. "Explosive Evidence." Mayday.
  13. "The Kanishka Bombing, 20 years on Lest we forget." The Sunday Times. Sunday 10 July 2005.
  14. "Ottawa asks Rae to head Air India inquiry." CBC News. Wednesday 23 November 2005.
  15. Struck, Doug. "For Canada's Police Agencies, 'A Multidimensional Failure'." The Toronto Star. Friday 18 March 2005. A20.
  16. Mahesh, Chitra. "A voyage of discovery." The Hindu. Friday 5 December 2003.
  17. "entrance awards." Laurentian University. Retrieved on 23 February 2012.
  18. Fields in Motion: Ethnography in the Worlds of Dance, edited by Dena Davida, Revealed by fire-Lata Pada's Narrative of Transformation-Susan Mcnaughton P-381, Chapter 20
  19. Carlyle, Cathy. "Michael Stevenson responds." York University Gazette. Wednesday 24 May 2000. Volume 30, Number 32.
  20. "Governor General Announces New Appointments to the Order of Canada"। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৮। ২১ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০০৯ 
  21. "Air India 182 Press Kit" (Archive). Air India 182 (film) official website. p. 10/12. Retrieved on 22 October 2014.
  22. New yorku, ' It's a first: South Asian Lata Pada artist receives the Order of Canada published 1 May 2009'
  23. Pravasi Bharatiya Samman
  24. ZOOMERTV, Lata Pada Awarded Queen Elizabeth II Diamond Jubilee Medal, 27 June 2012

আরও পড়া[সম্পাদনা]

বাহ্যিক লিঙ্কগুলি[সম্পাদনা]