রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ

স্থানাঙ্ক: ৩৩°৩৮′২৯″ দক্ষিণ ৭৮°৫০′২৮″ পশ্চিম / ৩৩.৬৪১৩৯° দক্ষিণ ৭৮.৮৪১১১° পশ্চিম / -33.64139; -78.84111
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ
স্থানীয় নাম:
ইসলা রবিনসন ক্রুসো
Robinson Crusoe Island.jpeg
কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে তোলা রবিনসন ক্রসো দ্বীপের একটি ছবি
রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ চিলি-এ অবস্থিত
রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ
রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ
ভূগোল
স্থানাঙ্ক৩৩°৩৮′২৯″ দক্ষিণ ৭৮°৫০′২৮″ পশ্চিম / ৩৩.৬৪১৩৯° দক্ষিণ ৭৮.৮৪১১১° পশ্চিম / -33.64139; -78.84111
ধরনশিল্ড আগ্নেয়গিরি (শেষ অগ্ন্যুৎপাত ১৮৩৫ খ্রী:)
দ্বীপপুঞ্জজুয়ান ফারনান্দেজ দ্বীপপুঞ্জ
সংলগ্ন জলাশয়প্রশান্ত মহাসাগর
আয়তন৪৭.৯৪ বর্গকিলোমিটার (১৮.৫১ বর্গমাইল)[১]
সর্বোচ্চ উচ্চতা৯১৫ মিটার (৩,০০২ ফুট)[১]
সর্বোচ্চ বিন্দুএল য়ুনকু
প্রশাসন
অঞ্চলভালপারাইজো
প্রদেশভালপারাইজো প্রদেশ
কমিউনজুয়ান ফারনান্দেজ দ্বীপপুঞ্জ
জনপরিসংখ্যান
জনসংখ্যা৮৪৩[২] (২০১২)

রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ (স্পেনীয়: Isla Róbinson Crusoe, উচ্চারিত: [ˈizla ˈroβinson kɾuˈso]), পূর্বে মাস অ্যা টেরা নামে পরিচিত (আক্ষ.'ভূমির কাছাকাছি') হল [৩] জুয়ান ফার্নান্দেজ দ্বীপপুঞ্জের দ্বিতীয় বৃহত্তম দ্বীপ যা চিলির সান আন্তোনিওর পশ্চিমে ৬৭০  কিমি (362 nmi; 416 মাই) দূরে দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত। এটি দ্বীপপুঞ্জের অধ্যুষিত দ্বীপগুলির মধ্যে বেশি জনবহুল (অন্যটি হল আলেজান্দ্রো সেলকির্ক দ্বীপ) যার বেশিরভাগই অংশই দ্বীপের উত্তর উপকূলে কাম্বারল্যান্ড উপসাগরের সান জুয়ান বাউটিস্তা শহরে বর্তমান। [২]

১৭০৪ থেকে ১৭০৯ সাল পর্যন্ত, এই দ্বীপটি জলবন্দি নাবিক আলেকজান্ডার সেলকির্কের বাড়ি ছিল, যিনি ঔপন্যাসিক ড্যানিয়েল ডিফোকে তাঁর রবিনসন ক্রুসোকে তাঁর উপন্যাসে (১৭১৯ খ্রী:) অনুপ্রাণিত করেছিলেন, যদিও উপন্যাসটি স্পষ্টভাবে ক্যারিবীয় অঞ্চলে সেট করা হয়েছে। [৪] এটি ঐ মুখের বেঁচে থাকা শেষ গল্প গুলোর মধ্যে একটি (যা সম্পর্কে ডেফো অবশ্যই অবগত ছিলেন)।[৫] দ্বীপের সাথে জড়িত সাহিত্যকে প্রতিফলিত করতে এবং পর্যটকদের আকৃষ্ট করার জন্য, চিলির সরকার ১৯৬৬ সালে স্থানটির নাম পরিবর্তন করে রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ রাখেন। [৩]

ভূগোল[সম্পাদনা]

সান জুয়ান বাউটিস্তা, দ্বীপের উত্তর উপকূল, কাম্বারল্যান্ড উপরে (এপ্ৰিল,২০১৫)

রবিনসন ক্রুসো দ্বীপের ভূমিরূপ পার্বত্য এবং উচ্চবচ৷ এটি অসংখ্য আগ্নেয়গিরির ক্রমান্বয়ে অগ্নুৎপাতের ফলে উৎপন্ন লাভাপ্রবাহ থেকে নির্মিত৷ দ্বীপটির উচ্চতম শৃঙ্গ হল এল য়ুনকু যার উচ্চতা ৯১৫ মি (৩,০০২ ফু)৷ অতি মাত্রায় ক্ষয়ীভবনের ফলে এখানে বহু সুগভীর উপত্যকা এবং খাড়া শৈল্যশিরা দেখা যায়। দ্বীপের দক্ষিণ পশ্চিম প্রান্তে করডন এসক্যারাডো নামক একটি সংকীর্ণ উপদ্বীপ তৈরি হয়েছে। এই প্রান্তের নিকটেই সান্তা ক্লারা দ্বীপ অবস্থিত৷[১]

রবিনসন ক্রসো দ্বীপ নাজকা পাতদক্ষিণ আমেরিকীয় পাত-এর পাত প্রান্তের উপর পশ্চিম দিক বরাবর অবস্থিত। এটি সমুদ্র থেকে ৩.৮ থেকে ৪.২ মিলিয়ন বছর আগে উত্থিত হয়েছে। ১৭৪৩ খ্রীষ্টাব্দে এল য়ুনকুর বিস্ফোরণের নথি পাওয়া গেছে, যদিও ঘটনাটি অনিশ্চিত৷ ২০শে ফেবুয়ারী,১৮৩৫ খ্রীষ্টাব্দে দ্বীপটি থেকে ১.৬ কিমি (০.৯৯ মা) দূরে পুন্তা বালাচাও-এর নিকটে একটি ভেন্ট থেকে দিনব্যাপী অগ্নুদগিরণ শুরু হয়। যদিও এর অগ্নুদগিরণ মাত্রা 1 ছিল তবুও এই ঘটনার জন্য ছোটোখাটো দাবানল ও সুনামি দেখা দেয়৷[১][তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

জলবায়ু[সম্পাদনা]

রবিনসন ক্রসো দ্বীপের জলবায়ু উপ-ক্রান্তীয় প্রকৃতির৷ এই দ্বীপের পূৰ্বে শীতল হামবোল্ট স্রোত এবং দক্ষিণ-পূৰ্ব আয়ন বায়ু প্রবাহিত হয়। গড় বার্ষিক উষ্ণতার পরিমাণ ৩ °সে (৩৭ °ফা) থেকে ৩৪ °সে (৯৩ °ফা)৷ বর্ষিক উষ্ণতার প্রসর ১৫.৪ °সে (৬০ °ফা)৷ উচ্চ পার্বত্য অঞ্চলে শীতল জলবায়ু বিরাজ করে এবং কখনো কখনো তুষারপাত দেখা যায়। শীতকালেই বেশি বৃষ্টিপাত দেখা যায়, যদিও বৃষ্টিপাত উচ্চতা ও উদঘাটনের উপর বেশি নির্ভর করে। ৫০০ মিটার (১,৬৪০ ফু) অধিক উচ্চতায় প্রতিদিনই বৃষ্টিপাত হয়। কিন্তু অনুবাত ঢালে তুলনামূলক কম বৃষ্টিপাত হয়৷[৬]

সান জুয়ান বাউটিস্তা, চিলি-এর আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য
মাস জানু ফেব্রু মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টে অক্টো নভে ডিসে বছর
সর্বোচ্চ গড় °সে (°ফা) ২২
(৭২)
২২
(৭২)
২১
(৭০)
২০
(৬৮)
১৮
(৬৪)
১৬
(৬১)
১৫
(৫৯)
১৫
(৫৯)
১৫
(৫৯)
১৬
(৬১)
১৮
(৬৪)
২০
(৬৮)
১৮
(৬৫)
সর্বনিম্ন গড় °সে (°ফা) ১৫
(৫৯)
১৬
(৬১)
১৫
(৫৯)
১৩
(৫৫)
১২
(৫৪)
১১
(৫২)
১০
(৫০)

(৪৮)

(৪৮)
১০
(৫০)
১২
(৫৪)
১৩
(৫৫)
১২
(৫৪)
বৃষ্টিপাতের গড় মিমি (ইঞ্চি) ২২
(০.৯)
৩৩
(১.৩)
৪০
(১.৬)
৯০
(৩.৫)
১৫১
(৫.৯)
১৫৯
(৬.৩)
১৬৭
(৬.৬)
১১৪
(৪.৫)
৭৮
(৩.১)
৫৭
(২.২)
৩৭
(১.৫)
২৮
(১.১)
৯৭৬
(৩৮.৫)
বৃষ্টিবহুল দিনগুলির গড় (≥ ০.১ mm) ১১ ১০ ১৩ ১৫ ২১ ২৩ ২১ ১৯ ১৬ ১৪ ১০ ১০ ১৮৩
আপেক্ষিক আদ্রতার গড় (%) ৭৩ ৭৩ ৭৩ ৭৭ ৭৮ ৭৮ ৭৯ ৭৭ ৭৭ ৭৬ ৭৪ ৭৩ ৭৬
মাসিক সূর্যালোক ঘণ্টার গড় ২৪৮.০ ২০৯.০ ১৫৮.১ ১২৩.০ ১০৮.৫ ৯৯.০ ৯৩.০ ১০৫.৪ ১৪৭.০ ২০৪.৬ ২৪৯.০ ২৬০.৪ ২,০০৫
উৎস: Climate & Temperature[৭]

উদ্ভিদ ও প্রাণী[সম্পাদনা]

জুয়ান ফারনান্দেজ দ্বীপপুঞ্জ টি ফারনান্দেজীয় রিজিয়ান নামক একটি উদ্ভিদজ অঞ্চলের মধ্যে অবস্থিত৷ এই রিজিয়ানটিকে কখনো আন্টার্ককটিকা জীবভৌগোলিক রাজ্য বা কখনো নিওট্রপিকাল জীবভৌগোলিক অঞ্চলের অন্তর্ভুক্ত করা হয়৷ ১৯৭৭ সাল থেকেই এটি একটি বিশ্ব বাওস্ফিয়ার রিজার্ভ ৷ এটি প্রচুর স্থানিক উদ্ভিদ পরিবার , গণ এবং প্রজাতির বাসসস্থান৷ এখানকার ২১১টি প্রজাতির মধ্যে ১৩২ (৬৩%) টিই স্থানিক ও এখানে ২৩০ কীটপতঙ্গের প্রজাতি দেখা যায়৷[৮]

জুয়ান ফারনান্দেজ বাঁধাকপি

রবিনসন ক্রুসো দ্বীপের একটি স্থানিক উদ্ভিদ প্রজাতি হল ল্যাক্টোরিডাকি ৷ এখানে ম্যাগেলানিক পেঙ্গুইনও দেখা যায়।[৯] নিজের ছুঁচ সম সূক্ষ্ম ঠোঁট ও পশম সম পালকের জন্য বিশ্ব বিখ্যাত জুয়ান ফারনান্দেজ ফায়ারক্রাউন , যা কিনা মহাবিপন্ন, এখানকারই একটি স্থানিক হামিংবার্ড প্রজাতি। মাসাটিয়েরা পেট্রেল এই দ্বীপটিরই আদি নামে নামাঙ্কিত৷[৮] মাসাটিয়েরা পেট্রেল, গোলাপি-পা শিয়ার ওয়াটার , জুয়ান ফারনান্দেজ ফায়ারক্রাউন এবং জুয়ান ফারনান্দেজ টিট-টাইর‍্যান্ট-এর মত পাখির উপস্থিতির জন্য এই দ্বীপটিকে (প্রতিবেশি সান্তা ক্লারার সাথে) বার্ডলাইফ ইন্টারন্যাশনাল গুরুত্ত্বপূর্ণ পক্ষি অঞ্চল (আই.বি.এ) বলে ঘোষনা করেছে।[১০]

রবিনসন ক্রুসো দ্বীপ, সি.এস রেসপন্ডার, ২০১৪

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আদি ইতিহাস[সম্পাদনা]

জুয়ান ফারনান্দেজ দ্বীপপুঞ্জ ক্যাপ্টেন জুয়ান ফারনান্দেজের নামে নামাঙ্কিত, যিনি ১৫৭৪ খ্রীষ্টাব্দে এখানে প্রথম পদার্পণ করেন৷ পূর্বে রবিনসন ক্রসো দ্বীপের নাম ছিল মাস অ্যা টেরা।[৩] ইস্টার দ্বীপ থেকে এর নৈকট্যের সত্ত্বেও কোনো পলিনেশীয় বা নেটিভ আমেরিকানরা এখানে আসেননি।[১১]

১৭-১৬ শতক[সম্পাদনা]

১৬৮১ থেকে ১৬৮৪ খ্রীষ্টাব্দের মধ্যে উইল নামক একজনমিসকিটোকে এই দ্বীপে জলবন্দী করে রাখা হয়েছিল৷ তার সম্ভব বিশ বছর পর ১৭০৪ খ্রীষ্টাব্দে আলেকজান্ডার সেলির্কিককে এখানে জলবন্দী করা হয়৷ তিনি চার বছর চার মাস ধরে এই দ্বীপে একাকীত্বে বাস করেন৷ সেলকির্ক তার জাহাজ সিঙ্ক পোর্টস-এর সমুদ্র অভিযানের যোগ্যতা সম্পর্কে সন্ধিহান ছিলেন এবং পথ্যি মধ্যেই জাহাজ থেকে নেমে পড়ার অনুমতি চান (তার নামার কিছু সময় বাদে সত্যিই জাহাজডুবি হয়!)৷ তাদের জাহাজের ক্যাপ্টেন থমাস স্ট্র্যান্ডিং (যিনি কিনা উইলিয়াম ডামপিয়ের কর্তৃক আয়োজিত এই অভিযানে তার কলিগ ছিলেন) তাদের এই মত পথক্যের বচসায় ক্লান্ত হয়ে শেষে তাকে আদেশ দেন। সেলকির্ককে একটি মাস্কেট, বারুদ, ছুতোর সরঞ্জাম, একটি চাকু, একটি বাইবেল ও কিছু কাপড় দিয়ে দ্বীপিটিতে ছেড়ে দেওয়া হয়।[১২] তার উদ্ধারের কাহিনী এডওয়ার্ড কুক রচিত ১৭১২ সালে প্রকাশিত এ ভয়েজ রাউন্ড দ্যা সাউথ সি, এন্ড রাউন্ড দ্যা ওয়ার্ল্ড গ্রন্থে বর্ণিত রয়েছে।

১৯-২০ শতক[সম্পাদনা]

১৮৪০ সালে রিচার্ড হেনরি ডানা,Jr. কর্তৃক রচিত টু ইর্য়াস বিফোর দ্যা মাস্ট গ্রন্থে জুয়ান ফারনান্দেজকে একটি নতুন কারগার কলোনি বলে উল্লেখ করা হয়েছে।[১৩] সংশোধনাগারটি খুব তাড়াতাড়ি পরিত্যাগ করার জন্য দ্বীপটি পুনরায় জন শূণ্য হয়ে পড়ে।[১৪] ১৯ শতকের শেষের দিকে এইখানে স্থায়ী বাসস্থান তৈরী হয়। জোশুয়া স্লোকাম তার স্প্রে নামক ভিঙ্গায় পৃথিবী প্রদক্ষিণের সময় ২৬শে এপ্রিল থেকে ৫ই মে, ১৮৯৬ সালে এখানে কিছুদিন থেকে ছিলেন। তার রচিত সেলিং অ্যারাউন্ড দ্যা ওয়ার্ল্ড এলোন স্মৃতিকথায় এই দ্বীপ ও তার ৪৫ জন অধিবাসীদের সম্পর্কে বলা হয়েছে।[১৫]

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ[সম্পাদনা]

এস.এম.এস ড্রেসডন কাম্বারল্যান্ড উপসাগরে জাহাজডুবির পূর্বে

প্রথম বিশ্বযুদ্বের সময় অ্যাডমিরাল ম্যাক্সিমিলিয়ান ফন স্পি- এর জার্মান ইস্ট এশিয়া স্কোয়াড্রন ২৬-২৮শে অক্টোবর ১৯১৪ এখানে জ্বালানি সংগ্রহের জন্য কিছু দিন এখানে ছিলেন। এই দ্বীপেই তিনি তার স্কোয়াড্রনের মার্চেন্ট ক্রসার প্ৰিনজ্ এইটেল ফ্রেডরিখ-এর সাথে মিলিত হন।

সুনামি,২০১১[সম্পাদনা]

সমাজ[সম্পাদনা]

Isla Juan Fernandez- Langostas (Lobsters).jpg

মায়া মূর্তিসমুহ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Torres Santibáñez, Hernán; Torres Cerda, Marcela (২০০৪)। Los parques nacionales de Chile: una guía para el visitante (স্পেনীয় ভাষায়)। Editorial Universitaria। পৃষ্ঠা 49। আইএসবিএন 978-956-11-1701-3 
  2. "Censos de poblacion y vivienda".
  3. Severin, Tim (২০০২)। In Search of Robinson Crusoe। Basic Books। পৃষ্ঠা 23–24আইএসবিএন 978-046-50-7698-7 
  4. Severin, Tim (২০০২)। In Search of Robinson Crusoe। Basic Books। পৃষ্ঠা 17–19আইএসবিএন 978-046-50-7698-7 
  5. Little, Becky (২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬)। "Debunking the Myth of the 'Real' Robinson Crusoe"National Geographic। সংগ্রহের তারিখ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  6. "Parque Nacional Archipiélago de Juan Fernández" Corporacion Nacional Forestal de Chile (2010). Retrieved 27 May 2010. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৩ আগস্ট ২০১২ তারিখে
  7. "San Juan Bautista Climate Guide to the Average Weather & Temperatures with Graphs Elucidating Sunshine and Rainfall Data & Information about Wind Speeds & Humidity:"। Climate & Temperature। সংগ্রহের তারিখ ৬ মার্চ ২০১০ 
  8. "Forest on Robinson Crusoe Island". Wondermondo (2012). Retrieved 18 October 2012.
  9. Hogan, C. Michael (2008). Magellanic Penguin ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ জুন ২০১২ তারিখে. GlobalTwitcher. Retrieved 18 October 2012.
  10. "Islas Robinson Crusoe and Santa Clara"BirdLife Data Zone। BirdLife International। ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০২১ 
  11. Anderson, Atholl; Haberle, Simon; Rojas, Gloria; Seelenfreund, Andrea; Smith, Ian & Worthy, Trevor (2002). An Archeological Exploration of Robinson Crusoe Island, Juan Fernandez Archipelago, Chile ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে. New Zealand Archaeological Association.
  12. Rogers, Woodes (১৭১২)। A Cruising Voyage Round the World: First to the South-seas, Thence to the East-Indies, and Homewards by the Cape of Good Hope। London: A. Bell and B. Lintot। পৃষ্ঠা 125–126। 
  13. Dana, Richard Henry (১৮৪০)। Two Years Before the Mast: A Personal Narrative of Life at Sea। New York: Harper & Brothers। পৃষ্ঠা 28–32। 
  14. Coulter, John (১৮৪৫)। Adventures in the Pacific: With Observations on the Natural Productions, Manners and Customs of the Natives of the Various Islands। London: Longmans, Brown & Co। পৃষ্ঠা 32–33। 
  15. Slocum, Joshua (২০১২)। Sailing Alone Around the World। Oxford: Beaufoy Publishing। পৃষ্ঠা 77–82। আইএসবিএন 978-190-67-8034-0