রন পার্লম্যান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রন পার্লম্যান
Ron Perlman February 2015.jpg
পার্লম্যান ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে
জন্ম
রোনাল্ড এন. পার্লম্যান

(1950-04-13) ১৩ এপ্রিল ১৯৫০ (বয়স ৬৯)
ওয়াশিংটন হাইটস, নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র
যেখানের শিক্ষার্থীলেহমান কলেজ
ইউনিভার্সিটি অব মিন্নেস্টা
পেশাঅভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী
কার্যকাল১৯৭৯-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীওপাল স্টোন পার্লম্যান (বি. ১৯৮১)
সন্তান

রোনাল্ড এন. “রন” পার্লম্যান [১] (জন্ম ১৩ এপ্রিল, ১৯৫০) হচ্ছেন একজন মার্কিন অভিনেতা এবং কণ্ঠশিল্পী। তিনি সবচেয়ে জনপ্রিয় ‘বিউটি এন্ড দা বিস্ট’ টেলিভিশন সিরিজে ‘ভিনসেন্ট’ চরিত্রের জন্য এবং কমিক চরিত্র হেলবয় এর জন্য হেলবয় ছবিতে এরই সাথে ক্লারি মরো চরিত্রে টিভি সিরিজ সন অব আর্চারিস এর জন্যও। পার্লম্যান আরও পরিচিত হেলবয়ের ডাইরেক্টর গিয়ের্মো দেল তোরো এর একজন ঘনিষ্ট সহযোগী হিসাবে, তার ছবি করনস, ব্লেড ২ এবং প্যাসিফিক রিম-এ বিভিন্ন ভূমিকার জন্য। তিনি কণ্ঠশিল্পী হিসাবেও জনপ্রিয় গেম সিরিজ ফলআউট এর বর্ণনাকারী হিসাবে, ব্যাটম্যান এনিমেটেড সিরিজে ক্লেফেস-এর কণ্ঠ, টিন টাইটানস-এ স্লেড, ব্যাটম্যান এ কিলার ক্রক, ডিজনির ট্যাংগলড-এ সাবিংটং ব্রাদার ইত্যাদি চরিত্রে কণ্ঠ দেয়ার জন্য।[২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

পার্লম্যান এর জন্ম ওয়াশিংটন হাইটস, নিউইয়র্কে। তার মা ডরথি(রোজেন)ছিলেন একজন পৌর কর্মচারী এবং বাবা ব্রাটম্যান ‘ব্রাট’ পার্লম্যান ছিলেন একজন ড্রামার এবং মেরামতকারী।[৩][৪] পার্লম্যান ১৯৮৮ সালে একটি সাক্ষাৎকারে বলেন “আমার শৈশব মন্দ ছিল না কিন্তু... মাঝেমধ্যে আমি নিজেকে উপলব্ধি করি, ছেলেবেলা আমার ওজন খুব বেশি ছিল এবং সেটা অনেকটা আমার নিম্ন ভাবমূর্তির জন্য।”[৫] তিনি জর্জ ওয়াশিংটন হাই স্কুলে পড়াশুনা করেন এবং পরবর্তিতে লেহমান কলেজে ১৯৭১ সালে পড়াশুনা শেষ করেন, যেটি সেসময় চারুকলা ও মঞ্চে স্মাতক ছিল না। পার্লম্যান ইউনিভার্সিটি অব মিন্নেস্টাতে যোগদান করে থিয়েটার আর্টসে তার মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেন ১৯৭৩ সালে।

পেশাজীবন[সম্পাদনা]

পার্লম্যান তার পেশাজীবন শুরু করেছিলেন মঞ্চে অভিনয়ের মাধ্যমে এবং তিনি চলচিত্রে প্রথম আবির্ভাব হন কোয়েস্ট অব ফায়াস(১৯৮১) ছবিতে। অসংখ্য ছোট এবং সহকারী চরিত্রে অভিনয় করে রন প্রথম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন ‘বিউটি এন্ড দা বিস্ট’(১৯৮৭-১৯৯০) টিভি সিরিজের ভিন্সেন্ট চরিত্রে যার জন্য তিনি গোল্ডেন গ্লোব পুরুষ্কার জিতেন সেরা টিভি অভিনেতা হিসাবে।[৬] তিনি আশি এবং নব্বই এর দশকে অসংখ্য টিভি সিরিজে এ অভিনয় করেন এর পাশাপাশি চলচিত্রেও অভিনয় করেন এবং ২০০০ এরপর থেকে চলচিত্রে নিয়মিত হতে থাকেন। তার অভিনিত চলচিত্রের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ‘দা নেইম অব রোজ’ (১৯৮৬), দা এডবেঞ্চার অব হার্ট ফিন(১৯৯৩), পুলিশ একাডেমিঃ মিশন মস্কো(১৯৯৪), দা লাস্ট সাফার(১৯৯৫), দা আইল্যান্ড অব ডঃমরিয়াউ(১৯৯৬), এলিয়েনঃ রিকারশন (১৯৯৭), এনিমি এট দা গেইটস(২০০১), ব্লেইড ২(২০০২) এবং স্টার ট্রেকঃ নেমেসিস(২০০২), এছাড়াও স্টিফেন কিং এর গল্প অবলম্বনে ছবি স্লিপ ওয়াকার এবং ডেসপারেশন এ অভিনয় করেন। টেলিভিশন সিরিজের মধ্যে হাইল্যান্ডার, দা আউটার লিমিটস এবং দা ম্যাগনিফিসেন্ট সেভেন উল্লেখযোগ্য। এছাড়া ১৯৯৫ এ তিনি ফ্রান্স ভাষার ছবি দা সিটি অব লস্ট চিলড্রেন এ অভিনয় করেন যেটিতে তিনি চলচিত্রে প্রথম মূল চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০০৩ সালে তিনি “স্টেলা আর্টরিস” এর বিয়ারের একটি বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেন যেটির নাম ছিল ‘ডেভিল আইল্যান্ড’ [৭] এটির জন্য তিনি একটি সিলভার পদক পান ২০০৩ ব্রিটিশ এডভার্টাইজিং এওয়ার্ড এ।[৮][৯] ২০০৪ সালে তিনি আরেকটা মূল ভূমিকায় অভিনয় এর সুযোগ পান কমিক চরিত্র হেলবয় হিসাবে হেলবয় ছবিতে।

যেসকল চরিত্রে ছদ্মবেশ প্রয়োজন[সম্পাদনা]

চিত্র:Hellboy Shot 2.jpg
হেলবয় চরিত্রে পার্লম্যান

পার্লম্যান বেশি পরিচিত যেসকল চরিত্রে তার ছদ্মবেশ বেশি ধরতে হয়, কিছু ক্ষেত্রে তার পুরো শরীরে মেকাপ করতে হয়। উল্লেখযোগ্য কিছু হচ্ছে তার প্রথম ছবি কোয়েস্ট ফর ফায়ার, দা নেইম অব রোজ, বিউটি এন্ড দা বিস্ট, দা আইল্যান্ড অব ডঃমরিয়াউ, স্টার ট্রেকঃ নেমেসিস এবং হেলবয় যেখানে তিনি অপদেবতা চরিত্রে অভিনয় করেন।[১০]

কণ্ঠশিল্পী হিসাবে কাজ[সম্পাদনা]

পার্লম্যান কণ্ঠশিল্পী হিসাবে তার পেশাতে বেশ সফল, বিভিন্ন এনিমেশন সিরিজ, ভিডিও গেইম এ বিভিন্ন চরিত্রে তিনি কণ্ঠ দিয়েছেন। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য এডবেঞ্চার টাইম এ দা লিঞ্চ হিসাবে,মর্টাল কমব্যাট এ কুরটিস স্ট্রাইকার, ব্যাটম্যান এনিমেটেড সিরিজে ক্লারিফেইস এর কণ্ঠ, টিন টাইটানস এ স্লেইড,সুপারম্যানঃদা এনিমেটেড সিরিজে জ্যাক্স-উর, জাস্টিস লিগ(টিভি সিরজে) অরিয়ন, ব্যাটম্যান এ কিলার ক্রক,বেইন ও রুমর, ডিজনির টাংল্যান্ড এ সাবিংটং ব্রাদার, আভাতারঃ দা লাস্ট এয়ার ভেন্ডার এ সজিন চরিত্রে কণ্ঠ দিয়েছেন। তার ভিডিও গেইম এর কণ্ঠ এর মধ্যে পরিচিত হল ফ্লিট এডমিরাল লর্ড টেরেন্স হোড হিসাবে হালো-২ এবং হালো-৩ এ, জাস্টিস লীগ এ ব্যাটম্যান হিসাবে, ফলআউট এর বর্ণনাকারী হিসাবে।

রাষ্ট্রপতির প্রচারণা[সম্পাদনা]

২০১৬ সালের ৯ নভেম্বর, রন ফেইসবুকের মাধ্যমে ঘোষণা দেন যে তিনি ২০২০ সালের যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি হিসাবে নির্বাচন করার ইচ্ছা আছে। (http://ronperlman2020.com).<ref>https[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]://scontent-lhr3-1.xx.fbcdn.net/v/t1.0-9/15032742_1022722634539707_7292066072436063545_n.jpg?oh=8d640c09219ae87fc655ad27381ff9a0&oe=588C2507</ref[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]>

ব্যাক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি ওপাল স্টোন পার্লম্যানকে ১৯৮১ সালের ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিয়ে করেন; তাদের দুটি সন্তান রয়েছে একটি কন্যা ব্লেক এমান্ডা(জন্ম ১৯৮৪) এবং একটি ছেলে, ব্রান্ডন এবারি(জন্ম ১৯৯০)।

চলচিত্রসমূহ[সম্পাদনা]

ছায়াছবি[সম্পাদনা]

  • কোয়েস্ট অব ফায়ার (১৯৮১)
  • দা আইস পাইরেটস (১৯৮৪)
  • দা নেইম অব দা রোজ (১৯৮৬)
  • স্লিপওয়াকারস (১৯৯২)
  • করনস(১৯৯৩)
  • রোমিও ইজ ব্লিডিং (১৯৯৩)
  • হোয়েন দা বাফ ব্রেইকস (১৯৯৩)
  • দা এডবেঞ্চার অব হাক ফিন (১৯৯৩)
  • ডাবল এক্সপোজার (১৯৯৪)
  • পুলিশ একাডেমিঃ মিশন মস্কো (১৯৯৪)
  • সেনসেশন (১৯৯৪)
  • দা সিটি অব লস্ট চিলড্রেন (১৯৯৫)
  • দা লাস্ট সাফার (১৯৯৫)
  • ফ্লুক (১৯৯৫)
  • দা আইল্যান্ড অব ডঃ মরিয়াউ (১৯৯৬)
  • প্রিন্স ভ্যালিএন্ট (১৯৯৭)
  • টাইন্সেলটাউন (১৯৯৭)
  • এলিয়েনঃ রিসারেকশন (১৯৯৭)
  • আই অউক আপ আর্লি দা ডে আই ডাইড (১৯৯৮)
  • ফ্রগস ফর স্নেইকস (১৯৯৮)
  • দা প্রটেক্টর (১৯৯৮)
  • এন আমেরিকান টেইলঃ দা ট্রেজার অব মেনহাটন আইল্যান্ড (১৯৯৮)(কণ্ঠ)
  • হ্যাপি, টেক্সাস (১৯৯৯)
  • দা ট্রায়েল অব অল্ড ড্রাম (২০০০)
  • টাইটান এ.ই.(২০০০)(কণ্ঠ)
  • অপারেশন স্যান্ডম্যান (২০০০)
  • দা কিং’স গার্ড (২০০০)
  • প্রাইস অব গ্লোরি (২০০০)
  • ব্রেড এন্ড রোজেস (২০০০)
  • স্ট্রোক (২০০০)
  • ডাউন (২০০১)
  • এনিমি এট গেইটস (২০০১)
  • ব্লেইড ২ (২০০২)
  • নাইট ক্লাস (২০০২)
  • ক্রাইম এন্ড পানিশমেন্ট(২০০২)
  • স্টার ট্রেকঃ নেমেসিস (২০০২)
  • সেইকডাউন (২০০২)
  • এল’চাইম, কমরেড স্টালিন! (২০০২)
  • বয়েজ অন দা রান (২০০৩)
  • রেটস (২০০৩)
  • হুডলাম এন্ড সন (২০০৩)
  • এবসুলুন (২০০৩)
  • টু সলিডার (২০০৩)
  • লুনি টিউনসঃ ব্যাক ইন একশন (২০০৩)
  • কমিক বুকঃ দা মুভি (২০০৪)
  • হেলবয়(২০০৪)
  • কুয়াইট কিল (২০০৪)
  • দা সেকেন্ড ফ্রন্ট (২০০৫)
  • মিসিং ইন আমেরিকা (২০০৫)
  • টারজান ২ (২০০৫)(কণ্ঠ)
  • স্কুবি-ডু! ইন হোয়ার’স মাই মামি? (২০০৫)(কণ্ঠ)
  • লোকাল কলার (২০০৬)
  • হাউ টু গো আউট অন এ ডেইট ইন কুইন্স (২০০৬)
  • দা লাস্ট উইন্টার (২০০৬)
  • ফাইভ গার্লস (২০০৬)
  • স্কুবি-ডু! পাইরেটস এহয়! (২০০৬)(কণ্ঠ)
  • হেলবয়ঃ সোয়র্ডস অব স্ট্রর্মস(২০০৬)(কণ্ঠ)
  • ইন দা নেইম অব দা কিং: এ ডানগন সিজ টেইল (২০০৭)
  • হেলবয়ঃ ব্লাড এন্ড আয়রন (২০০৭)(কণ্ঠ)
  • ব্যাটল অব ট্যারা(২০০৭)(কণ্ঠ)
  • দা স্পাইডারউইক চরনিকলস (২০০৮)(কণ্ঠ)
  • আনক্রস দা স্টারস (২০০৮)
  • হেলবয় ২: দা গোল্ডেন আর্মি (২০০৮)
  • আউটল্যান্ডার (২০০৮)
  • স্পিরিট অব দা ফরেস্ট (২০০৮)(কণ্ঠ)
  • মিউট্যান্ট চরনিকলস (২০০৮)
  • দা ডেবিলস টম্ব (২০০৯)
  • ডার্ক কান্ট্রি (২০০৯)
  • আই সেল দা ডেড (২০০৯)
  • দা জব (২০০৯)
  • কিলার বাই ন্যাচার (২০১০)
  • এক্টস অব ভায়লেন্স (২০১০)
  • টাংল্যান্ড (২০১০)(কণ্ঠ)
  • বুন্রাকু (২০১০)
  • দা লেজেন্ড অব সিক্রেট পাস (২০১০)(কণ্ঠ)
  • সিজন অব দা উইচ (২০১০)
  • দা লিটল এঞ্জেল (২০১১)(কণ্ঠ)
  • কোনান দা বার্বেরিয়ান (২০১১)
  • ড্রাইভ (২০১১)
  • এলউড (২০১১)
  • দা স্কর্পিয়ান কিং ৩: ব্যাটল ফর রেডেম্পশন (২০১২)
  • ব্যাড এস (২০১২)
  • দা পানিশারঃ ডার্টি লন্ড্রি (২০১২)
  • ক্রেইভ (২০১২)
  • ৩,২,১... ফ্রাঙ্কি গো বুম (২০১২)
  • প্যসিফিক রিম (২০১৩)
  • জাস্টিস লিগঃ দা ফ্ল্যাশপয়েট প্যারাডক্স (২০১৩)(কণ্ঠ)
  • পার্সি জ্যাকসনঃ দা সি অব মনস্টার (২০১৩)(কণ্ঠ)
  • দা ভার্জিনিয়ান (২০১৪)
  • টিবিলিস, আই লাভ ইউ (২০১৪)
  • ১৩ সিনস (২০১৪)
  • বিফর আই ডিজাপিয়ার (২০১৪)
  • কিড ক্যানাবিস (২০১৪)
  • ধর্মপোরিয়া (২০১৪)
  • দা বুক অব লাইফ (২০১৪)(কণ্ঠ)
  • স্কিন ট্রেইড (২০১৪)
  • পোকার নাইট (২০১৪)
  • মোনওয়াকারস (২০১৫)
  • স্টোনওয়াল (২০১৫)
  • দা ব্লিডার (২০১৬)
  • রোবোডগ (২০১৬)(কণ্ঠ)
  • ফ্যান্টাসটিক বিস্ট এন্ড হোয়ার টু ফাইন্ড দ্যাম (২০১৬)

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

  • রায়ানস হোপ (১৯৭৯)
  • দা ফল গাই (১৯৮৫)
  • আওয়ার ফ্যামিলি ওনার (১৯৮৫)
  • ম্যাকগ্রুডার এন্ড লাউড (১৯৮৫)
  • দা ইন্সাইডার (১৯৮৬)
  • মায়ামি ভাইস (১৯৮৬)
  • বিউটি এন্ড দা বিস্ট (১৯৮৭-১৯৯০)
  • এ স্টোনিং ইন ফুলহাম কাউন্টি (১৯৯২)
  • ব্লাইন্ড ম্যান’স ব্লাফ (১৯৯২)
  • ব্যাটোম্যানঃ দা এনিমেটেড সিরিজ (১৯৯২-১৯৯৩)(কণ্ঠ)
  • দা আনটাচেবল (১৯৯৩)
  • বঙ্কারস (১৯৯৩)(কণ্ঠ)
  • এনিমানিচাস (১৯৯৩)(কণ্ঠ)
  • আর্লি হেঙ্কস (১৯৯৩)
  • দা সিস্কো কিড (১৯৯৪)
  • আলাদিন (১৯৯৪)(কণ্ঠ)
  • মাইটি ম্যাক্স (১৯৯৪)(কণ্ঠ)
  • দা লিটল মারমেইড (১৯৯৪)
  • টাইনি টুনস এডবেঞ্চার (১৯৯৫)(কণ্ঠ)
  • ফ্যান্টাসটিক ফোর (১৯৯৫)(কণ্ঠ)
  • আয়রন ম্যান (১৯৯৫)(কণ্ঠ)
  • ওরিজিনাল সিনস (১৯৯৫)
  • মি. স্টিচ (১৯৯৫)
  • দা এডবেঞ্চার অব ক্যাপ্টেন জুম ইন আউটার স্পেস (১৯৯৫)
  • ফ্যান্টম ২০৪০ (১৯৯৬)(কণ্ঠ)
  • উইং কমান্ডার একাডেমি (১৯৯৬)(কণ্ঠ)
  • ডাকম্যান (১৯৯৬)(কণ্ঠ)
  • মর্টাল কমব্যাটঃ ডিফেন্ডারস অব দা রিলাম (১৯৯৬)(কণ্ঠ)
  • হেই আরন্যাল্ড! (১৯৯৬-১৯৯৮)(কণ্ঠ)
  • হাইল্যান্ডারঃ দা সিরিজ (১৯৯৬)
  • ট্রেসি টেইকস অন...(১৯৯৭)
  • প্রিভার্সিয়ন অব সায়েন্স (১৯৯৭)
  • দা সেকেন্ড সিভিল ওয়ার (১৯৯৭)
  • সুপারম্যানঃ দা এনিমেটেড সিরিজ (১৯৯৭-১৯৯৯)(কণ্ঠ)
  • দা নিউ ব্যাটম্যান এডবেঞ্চারস (১৯৯৭-১৯৯৮)(কণ্ঠ)
  • দা ম্যাগনিফিসেন্ট সেভেন (১৯৯৮-২০০০)
  • গডজিলা (১৯৯৮)(কণ্ঠ)
  • দা আউটার লিমিটস (১৯৯৮)
  • এ টাউন হেজ টার্নড টু ডাস্ট (১৯৯৮)
  • হাউডিনি (১৯৯৮)
  • ফ্যামিলি ল (১৯৯৯)
  • ম্যান ইন ব্লাকঃ দা সিরিজ (১৯৯৯)(কণ্ঠ)
  • সুপ্রিম সেকশন (১৯৯৯)
  • প্রিমাল ফোর্স (১৯৯৯)
  • দা ওয়াইল্ড থ্রনবেরীস (২০০০)(কণ্ঠ)
  • জ্যাকি চান এডবেঞ্চারস (২০০০)(কণ্ঠ)
  • বাজ লাইটইয়ার অব স্টার কমান্ড (২০০০)(কণ্ঠ)
  • অপারেশন স্যান্ডম্যান (২০০০)
  • দা ট্রায়াল অব ওল্ড ড্রাম (২০০০)
  • চার্মড (২০০১)
  • দা লেজেন্ড অব টারজান (২০০১)(কণ্ঠ)
  • দা টিক (২০০১)
  • স্ট্যাটিক শক (২০০৩)(কণ্ঠ)
  • জাস্টিস লিগ(২০০৩)(কণ্ঠ)
  • টিন টাইটানস (২০০৩-২০০৬)(কণ্ঠ)
  • ড্যানি ফ্যান্টম (২০০৪-২০০৭)(কণ্ঠ)
  • হোয়াট’স নিউ, স্কুবি-ডু?(২০০৫)(কণ্ঠ)
  • দা ব্যাটোম্যান (২০০৫-২০০৮)(কণ্ঠ)
  • মাস্টার অব ওনার (২০০৬)
  • ডেসপারেশন (২০০৬)
  • জাস্টিস লিগ আনলিমিটেড (২০০৬)(কণ্ঠ)
  • আফ্রো সামুরাই (২০০৭)(কণ্ঠ)
  • কিম পসিবল (২০০৭)(কণ্ঠ)
  • আবাতারঃ দা লাস্ট এয়ারবেন্ডার (২০০৭)(কণ্ঠ)
  • সনস অব আর্চারি (২০০৮-২০১৩)
  • চুডার (২০০৮-২০১০)(কণ্ঠ)
  • স্টারস ওয়ারসঃ দা ক্লোন ওয়ারস(২০০৯)(কণ্ঠ)
  • রোবট চিকেন (২০০৯)(কণ্ঠ)
  • ১০০০ ওয়েইস টু ডাই (২০০৯-২০১২)(বর্ণনাকারি)।
  • আর্চার (২০১০,২০১৪)(কণ্ঠ)
  • ব্যাটম্যান দা ব্রেইব এন্ড বল্ড (২০১০)(কণ্ঠ)
  • আমেরিকান ড্যাড! (২০১১-২০১২)(কণ্ঠ)
  • এডবেঞ্চার টাইম (২০১১-বর্তমান)(কণ্ঠ)
  • ডিসি ন্যাশন শর্টস (২০১২)(কণ্ঠ)
  • গ্রীন ল্যান্টার্নঃ দা এনিমেটেড সিরিজ (২০১৩)(কণ্ঠ)
  • হ্যান্ড অব গড (২০১৪-বর্তমান)
  • দা ব্ল্যাক লিস্ট (২০১৫)
  • সুপার ম্যানশন (২০১৫)
  • টিনেজ মিউট্যান্ট নিঞ্জা টার্টলস (২০১৫-২০১৬)(কণ্ঠ)
  • টুর্ব ফাস্ট (২০১৬)(কণ্ঠ)
  • ম্যারন (২০১৬)
  • ট্রলহান্টারস (২০১৬)(কণ্ঠ)

ভিডিও গেমস[সম্পাদনা]

  • দা এডবেঞ্চার অব ব্যাটম্যান এন্ড রবিন (১৯৯৪)
  • ক্রনমাস্টার (১৯৯৫)
  • ফলআউট (১৯৯৭)
  • ফলআউট ২ (১৯৯৮)
  • আইসওয়াইন্ড ডেইলঃ হার্টস অব উইন্টার (২০০১)
  • ফলআউট টেকটিসঃ ব্রাদারহুড অব স্টিল (২০০১)
  • ব্যাটম্যানঃ রাইজ অব সিন জু (২০০৩)
  • ট্রু ক্রাইমসঃ স্ট্রিটস অব এলএ (২০০৩)
  • লর্ডস অব এভারকোয়েস্ট (২০০৩)
  • দা চর্নিকলস অব রিডিকঃ এস্কেপ ফ্রম বাচার বে (২০০৪)
  • হালো ২ (২০০৪)
  • এনএআরসি (২০০৫)
  • গান (২০০৫)
  • দা ইঙ্ক্রেডিবল হাল্কঃ আল্টিমেট ডেস্ট্রাকশন (২০০৫)
  • দা আউটফিট (২০০৫)
  • টিন টাইটানস (২০০৬)
  • জাস্টিস লিগ (২০০৬)
  • হালো ৩ (২০০৭)
  • কোনান (২০০৭)
  • ট্রারক (২০০৮)
  • হেলবয়ঃ দা সাইন্স অব ইভিল (২০০৮)
  • ফলআউট ৩ (২০০৮)
  • আফ্রো সামুরাই (২০০৯)
  • টম ক্লান্সি’স এইচ.এ.ডব্লিউ.এক্স ২ (২০০৯)
  • ফলআউটঃ নিউ ভেগাস (২০১০)
  • পে ডে ২ (২০১৩)
  • ফ্যামিলি গাইঃ দা কোয়েস্ট ফর স্টাফ (২০১৪)
  • কল অব ডিউটিঃ ব্ল্যাক অপ্স ৩ (২০১৫)
  • ফলআউট ৪ (২০১৫)
  • পেডে ২ (২০১৬)
  • লেগো ডাইমেনশন (২০১৬)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Alumni of Notable Achievement: College of Liberal Arts: University of Minnesota"University of Minnesota। ২০১১-০১-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০১-৩০ 
  2. "IMDB credits for 1000 Ways to Die" 
  3. "Ron Perlman Film Reference biography"। Filmreference.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৩-২৮ 
  4. "Easy Street (the Hard Way)"google.ca 
  5. Gary Collins (১৯৮৮)। "Hour Magazine – on Ron Perlman's success on the series Beauty & The Beast"। YouTube। 
  6. Golden Globe Awards official website ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ আগস্ট ২০০৭ তারিখে, last accessed October 22, 2007.
  7. "Stella Artois beer commercial entitled Devil's Island"। YouTube। ২০০৮। 
  8. "British Advertising Awards – Silver Honours 2003"। ২০০৩। ২৯ সেপ্টেম্বর ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ নভেম্বর ২০১৬ 
  9. "Ron Perlman stars in a British Advertising Award winning Stella Artois beer commercial"। ২০০৩। [অকার্যকর সংযোগ]
  10. Kusaivy (২০১১-০৭-১৯)। "DelToroFilms.com"। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৪-০৫ [অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]