যাঁতা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
যাঁতার মাধ্যমে ডাল তৈরীর দৃশ্য।

যাঁতা হল ডাল ভাঙ্গার এক প্রকার হস্তচালিত যন্ত্র। বর্তমানে এটি ইঞ্জিল চালিত যন্ত্রের সাথে লাগিয়ে ডাল, চাল, হলুদ-মরিচ বা অন্য যে কোন কিছু গুড়া করতে ব্যবহার করা হয়। তবে গ্রামাঞ্চলে যাঁতা বলতে এখনও হাতে এক খণ্ড কাঠি দিয়ে গোলাকৃতির চাকার মত পাথরের যে যন্ত্রটি ঘুরিয়ে ডাল বের করা হয় তাকেই বোঝায়। হাতে চালিত ডাল জাতীয় শস্য ভাঙ্গার যন্ত্রটি আজ উপমহাদেশে বিলুপ্তির পথে। [১]

বিবরণ[সম্পাদনা]

এটি পাথর দ্বারা নির্মিত একটি হাতল যন্ত্র। যার দুইটি অংশ থাকে। দেখতে অনেকটাই চাকার মতো। একটির উপর অপরটি বসিয়ে দিতে হয়। আর এর মুখের মধ্যে ডাল শস্য (মসুর, খেসারি, ছোলা, মাষকলাই ইত্যাদি) মুঠি মুঠি দিয়ে, কাঠির একপ্রান্ত যাঁতার উপরের অংশের কাঠি বাঁধানোর নির্দিষ্ট স্থানে বাঁধিয়ে ঘুরালেই; যাঁতার দুই শাণিত অংশের মাঝে পরে শস্য গুলো ডাল হয়ে বের হয়। এছাড়া চাউলের আটাও বানানো হয় এর মাধ্যমে।

ব্যবহারের ক্ষেত্রসমূহ[সম্পাদনা]

আগে যাঁতা ব্যবহার করা হতো ধান, চাল, ডাল, গম, যব ভাঙিয়ে চাল, চালের গুঁড়া, পায়রা ইত্যাদি বানানোর কাজে। তবে এসব কাজের বেশিরভাগ-ই করা হতো ঢেঁকি এর মাধ্যমে। তা-ও অল্প পরিমাণে ভাঙানোর কাজে যাঁতা ব্যবহার করা হতো। আগেকার দিনের নববধূরা তাদের বাবার বাড়ি থেকে উপহার হিসেবে যাঁতা পেত। অর্থাৎ, একসময় যাঁতা উপহার সামগ্রী হিসেবে ব্যবহৃত হতো। এগুলো গ্রাম্যমেলায় কিনতে পাওয়া যেতো। কালের বিবর্তনে যাঁতা এর ব্যবহার অনেককাংশে হ্রাস পেয়েছে। খুব কম পরিবার-ই এখন যাঁতা প্রয়োজনীয় বস্তু হিসেবে ব্যবহার করে। অনেকে ঐতিহ্য হিসেবে যাঁতা সংরক্ষন করে থাকেন। তাই কিছু কিছু বাড়িতে এখনো যাঁতা দেখতে পাওয়া যায়।

ঐতিহাসিক পটভূমি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]