ম্যানিটোবা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ম্যানিটোবা
নীতিবাক্য: লাতিন: Gloriosus et Liber
("Glorious and free")
কনফেডারেশন১৫ জুলাই ১৮৭০ (৫ম)
রাজধানীউইনিপেগ
বৃহত্তর শহরউইনিপেগ
বৃহত্তর মেট্রোউইনিপেগ রাজধানী অঞ্চল
সরকার
 • লেফটেন্যান্ট গভর্নরজিনস ফিলম্যান
 • প্রধানমন্ত্রীব্রায়ান প্যালিস্টার (পিসি)
আইনসভাম্যানিটোবা আইন পরিষদ
ফেডারেল প্রতিনিধিত্ব(কানাডীয় সংসদে)
সভায় আসন৩৩৮টির মধ্যে 14টি (4.1%)
সিনেটে আসন১০৫টির মধ্যে 6টি (5.7%)
আয়তন
 • মোট৬,৪৯,৯৫০ বর্গকিমি (২,৫০,৯৫০ বর্গমাইল)
 • স্থলভাগ৫,৪৮,৩৬০ বর্গকিমি (২,১১,৭২০ বর্গমাইল)
 • জলভাগ১,০১,৫৯৩ বর্গকিমি (৩৯,২২৫ বর্গমাইল)  ১৫.৬%
এলাকার ক্রমক্রম 8th
 কানাডার 6.5%
জনসংখ্যা
 • মোট১২,৭৮,৩৬৫ [১]
 • আনুমানিক (2017 Q3)১৩,৩৮,১০৯ [২]
 • ক্রমক্রম 5th
 • জনঘনত্ব২.৩৩/বর্গকিমি (৬.০/বর্গমাইল)
বিশেষণManitoban
প্রাতিষ্ঠানিক ভাষাইংরেজি[৩]
জিডিপি
 • ক্রম৬ষ্ঠ
 • মোট (২০১৫)C$৬৫.৮৬২ বিলিয়ন[৪]
 • মাথা পিছুC$৫০,৮২০ (৯ম)
সময় অঞ্চলCentral: UTC–6, (DST −5)
ডাককোড সংক্ষেপণMB
ডাক কোডের উপসর্গR
আইএসও ৩১৬৬ কোডCA-MB
ফুল
Anemonepatens.jpg
  প্রাইরি ক্রোকাজ
গাছ
Picea glauca Fairbanks.jpg
  White spruce
পাখি
Great Gray Owl - Bird of Prey exhibit at Waddington Air Show - geograph.org.uk - 1570223.jpg
  Great grey owl
ওয়েবসাইটwww.gov.mb.ca
ক্রমায়নে সব প্রদেশ ও অঞ্চল অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে

ম্যানিটোবা (/ˌmænɪˈtbə/ (এই শব্দ সম্পর্কেশুনুন)) কানাডার কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত একটি প্রদেশ। এটি কানাডার তিনটি বৃক্ষহীন তৃণভূমিময় তথা প্রেইরি প্রদেশের একটি (অন্য দুইটি হল অ্যালবার্টা এবং সাসকাচুয়ান)। প্রদেশটির জনসংখ্যা প্রায় ১৩ লক্ষ; এটি কানাডার পঞ্চম সর্বোচ্চ জনবহুল প্রদেশ। ম্যানিটোবা প্রদেশের আত্যতন ৬,৪৯,৯৫০ বর্গকিলোমিটার (২,৫০,৯০০ মা)। প্রদেশটির পূর্বে অন্টারিও এবং পশ্চিমে সাসকাচুয়ান প্রদেশ, উত্তরে নুনাভুট এবং উত্তর-পশ্চিমে উত্তর-পশ্চিম প্রশাসনিক অঞ্চল নামক প্রদেশ, এবং দক্ষিণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য নর্থ ডাকোটা এবং মিনেসোটা অবস্থিত।

আদিবাসী জনগোষ্ঠী হাজার হাজার বছর ধরে ম্যানিটোবায় এখন পর্যন্ত বাস করছে। ১৭ শতকের শেষের দিকে, পশম ব্যবসায়ীরা এই এলাকাতে পৌছায় যখন এটি ছিল রূপার্ট'স ল্যান্ডের অংশ এবং মালিকানা ছিল হুডসন বে কোম্পানির অধীনে। ১৮৬৯ সালে, ম্যানিটোবা প্রদেশ সৃষ্টির আলোচনার জন্য মেটিস জনগন সশস্ত্র বিদ্রোহ করে কানাডার সরকারের বিরুদ্ধে, এটি রেড রিভার বিদ্রোহ নামে পরিচিত। বিদ্রোহটির সমাধান হিসেবে কানাডার সংসদ ১৮৭০-এ মানিটোবা অ্যাক্ট পাশ করে যেটি এই প্রদেশের সৃষ্টি করে।

ম্যানিটোবার রাজধানী এবং সর্ববৃহৎ শহর, উইনিপেগ, হচ্ছে কানাডার অষ্টম-বৃহত্তম জনসংখ্যাবহুল মহানগর এলাকা। এই প্রদেশের অন্যান্য জনবহুল এলাকা হল ব্র্যান্ডন, স্টেইনবাক, পোর্টেজ লা প্রাইরি, এবং থম্পসন

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

মনে করা হয় যে "ম্যানিটোবা" নামটির উদ্ভূত হয়েছে ক্রি, ওজিবওয়া অথবা অ্যাসাইনবোইনে ভাষা থেকে এসেছে। নামটি ক্রি 'ম্যানিতো-ওয়াপো' বা ওজিবওয়া 'মিন্ডোবা' থেকে এসেছে, উভয়ের অর্থ "straits of Manitou, the Great Spirit", একটি স্থানকে বুঝায় যা এখন লেক ম্যানিটোব এর কেন্দ্রস্থলে দ্য নারোজ নামে পরিচিত। "প্রাইরি হ্রদ" এর জন্য এটি অ্যাসাইনবোইনে থেকেও আসতে পারে।[৫]

হ্রদটি ফরাসি অভিযাত্রীদের কাছে লেক দেস প্রাইরিস নামে পরিচিত ছিল। টমাস স্পেন্স নামটি বেছে নেওয়ার জন্য তিনি একটি নতুন প্রজাতন্ত্রের প্রস্তাব করেছিলেন যা তিনি হ্রদটির দক্ষিণের এলাকার জন্য প্রস্তাব করেছিলেন। ম্যাটিস নেতা লুই রিয়েলও নামটি বাছাই করেছিলেন, এবং এটি ১৮৭০ সালের ম্যানিটোবা আইনের অধীনে অটোয়াতে গৃহীত হয়েছিল।[৬]

ভূগোল[সম্পাদনা]

ম্যানিটোবার পূর্বে অন্টারিও এবং পশ্চিমে সাসকাচুয়ান প্রদেশ, উত্তরে নুনাভুট এবং উত্তর-পশ্চিমে উত্তরপশ্চিম অঞ্চলসমূহ প্রদেশ , এবং দক্ষিণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজ্য নর্থ ডাকোটা এবং মিনেসোটা দ্বারা বেষ্টিত। এটি উত্তর-পূর্বে হাডসন বেকে সংযুক্ত করেছে, এবং কানাডীয় তিনটি বৃক্ষহীন তৃণভূমি প্রদেশগুলোর মধ্যে একমাত্র এখানেই লবনাক্ত জলের তটরেখা রয়েছে। চার্চিল বন্দর কানাডার একমাত্র আর্কটিক গভীর জল বন্দর। লেক উইনিপেগ হচ্ছে বিশ্বের দশম-বৃহৎত্তম স্বাদু পানির হ্রদ। হাডসন বে হচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম বে। ম্যানিটোবা বৃহদাকার হাডসন বে এর জলবিভাজিকায় অবস্থিত, একদা রুপাট'স ল্যান্ড নামে পরিচিত ছিল। এটি হাডসন বে কোম্পানি এর জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ছিল, সঙ্গে অনেক নদী এবং হ্রদ যা লাভজনক পশম বাণিজ্যের জন্য চমৎকার সুযোগ প্রদান করতো।

জনসংখ্যা উপাত্ত[সম্পাদনা]

জনসংখ্যা অনুসারে বৃহত্তম শহর
শহর ২০১১ ২০০৬
উইনিপেগ ৬৬৩,৬১৭ ৬৩৩,৪৫১
ব্র্যান্ডন ৪৬,০৬১ ৪১,৫১১
স্টেইনবাক ১৩,৫২৪ ১১,০৬৬
পোর্টেজ লা প্রাইরি ১২,৯৯৬ ১২,৭২৮
থম্পসন ১২,৮২৯ ১৩,৪৪৬
উইঙ্কলার ১০,৬৭০ ৯,১০৬
শেলকির্ক ৯,৮৩৪ ৯,৫১৫
ডাওপিন ৮,২৫১ ৭,৯০৬
মোর্ডেন ৭,৮১২ ৬,৫৭১
ছক উৎস: পরিসংখ্যান কানাডা

২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী, ম্যানিটোবার জনসংখ্যা ছিল ১২,০৮,২৬৮ জন, যার অর্ধেকেরও বেশি ছিল উইনিপেগ রাজধানী অঞ্চলে; ৭৩০,০১৮ জন (২০১১ আদমশুমারি) জনসংখ্যা নিয়ে উইনিপেগ হচ্ছে কানাডার অষ্টম বৃহত্তম জনসংখ্যাবহুল মেট্রোপলিটন এলাকা[৭]।যদিও প্রদেশের প্রারম্ভিক উপনিবেশিকতা বেশিরভাগ একটি বাসস্থানের একজন বাসিন্দা হিসাবে জীবন ঘুরপাক খাচ্ছিল, গত শতাব্দীতে নগরায়নের দিকে একটি পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে; ম্যানিটোবা একমাত্র কানাডীয় প্রদেশ যার জনসংখ্যার পঞ্চাশ শতাংশের বেশি জনসংখ্যা কেবল একটি শহরেই বসবাস করে।[৮]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

ম্যানিটোবার অর্থনীতি মূলত প্রাকৃতিক সম্পদের উপর ভিত্তি করে একটি বাজার অর্থনীতি। কৃষি, প্রদেশের বেশিরভাগই উর্বর দক্ষিণ ও পশ্চিম অংশে কেন্দ্রীভূত,যা প্রাদেশিক অর্থনীতিতে অত্যাবশ্যক। অন্যান্য প্রধান শিল্প হল পরিবহন, উত্পাদন, খনির, বন, শক্তি, এবং পর্যটন। প্রদেশটির অর্থনৈতিক ইতিহাস ইউরোপীয় যোগসূত্রের আগেই রয়েছে, এবং মূলত একটি ফার্স্ট নেশন ট্রেডিং নেটওয়ার্কের উপর ভিত্তি করে। ইউরোপীয় ব্যবসায়ীরা ১৭ শতকে এখানে এসেছে এবং একটি ট্রান্স-আটলান্টিক পশমের বাণিজ্য সংগঠিত করেছে। কৃষি ঔপনিবেশিকরা ১৯ শতকের প্রথম দিকে এসেছিল, এবং ১৮৭০ সালে ম্যানিটোবা কানাডার একটি প্রদেশে পরিণত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Population and dwelling counts, for Canada, provinces and territories, 2016 and 2011 censuses"Statistics Canada। ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ৩০, ২০১৭ 
  2. "Estimates of population, Canada, provinces and territories"Statistics Canada। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  3. টেমপ্লেট:Vcite web
  4. টেমপ্লেট:Vcite web
  5. টেমপ্লেট:Vcite web
  6. টেমপ্লেট:Vcite web
  7. টেমপ্লেট:Vcite web
  8. টেমপ্লেট:Vcite web

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ৫৫° উত্তর ০৯৭° পশ্চিম / ৫৫° উত্তর ৯৭° পশ্চিম / 55; -97