মৌলভী মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান
মৌলভী মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান
Maulvi Md. Abdul Jubbar Pahlowan
বঙ্গীয় ব্যাবস্থাপক সভার সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯২১ – ১৯৩৭
বঙ্গীয় আইন পরিষদ
কাজের মেয়াদ
১৯৩৭ – ১৯৪৬
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মআব্দুল জব্বার পাহলোয়ান
(১৮৯৫-১২-১৬)১৬ ডিসেম্বর ১৮৯৫
ময়মনসিংহ জেলা, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমান  Bangladesh)
মৃত্যুঢাকা, বাংলাদেশ (বর্তমান  Bangladesh)
১৬ এপ্রিল ১৯৭৬(1976-04-16) (বয়স ৮০)
সমাধিস্থলগুঠাইল বাজার,ইসলামপুর জামালপুর
রাজনৈতিক দলস্বরাজ পার্টি
ধর্মইসলাম
রাজনৈতিক আন্দোলনপ্রজা অধিকার আন্দোলন

মৌলভী মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান (১৬ ডিসেম্বর, ১৮৯৫ বাংলা ২ পৌষ, ১৩০২১৬ এপ্রিল, ১৯৭৬ বাংলা ৩ বৈশাখ, ১৩৮৩ ) বাঙালি রাজনীতিবিদ । ১৯২০ সালের ভারতবর্ষের প্রথম নির্বাচনে তিনি কুঠার প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ময়মনসিংহ পশ্চিম এলাকার মুসলিম অধ্যুষিত জনপদ থেকে নির্বাচিত হন। ১৯২১ সালে স্যার সুরেন্দ্রনাথ ব্যানার্জি কর্তৃক গঠিত বঙ্গীয় ব্যবস্থাপক সভার সদস্যপদ লাভ করেন।[১] ১৯২৩ সালে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশ কর্তৃক গঠিত স্বরাজ পার্টি তে সহকর্মী হিসেবে যোগদান করেন, এবং একই বছরে অনুষ্টিত বঙ্গীয় বিধান পরিষদের নির্বাচনে জয়লাভ করেন। ১৯৩৭ সালের নির্বাচনেও তিনি জয় লাভ করেন। [২]।তিনি ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।[৩] তার পরিবার তৎকালীন সময়ে সম্ভ্রান্ত মুসলিম রাজনৈতিক পরিবারের মর্যাদা লাভ করে যা গুটিকয়েক মুসলিম পরিবারের ছিল যার প্রমান পাওয়া যায় “Muslim identity and community consciousness: Bengal legislative politics, 1912-36” নামক বইয়ে। [৪]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মৌলভী মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান ১৮৯৫ সালের ১৬ ডিসেম্বর শুক্রবার বর্তমান জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানার চিনাডুলী ইউনিয়নের পাহলোয়ান বাড়িতে জন্মগ্রহন করেন । তিনি আবুল মনসুর পাহলোয়ান ও সোফিয়া খাতুনের এক মাত্র পুত্র ছিলেন। আব্দুল জব্বার পাহলোয়ানের শিক্ষাজীবন শুরু হয়েছিল গুঠাইলের মাইনর ইংলিশ স্কুলে (এম ই স্কুল) । মাইনর স্কুলের পড়াশোনা শেষে তিনি ভর্তি হন জামালপুর গর্ভমেন্ট স্কুলে , কিন্তু ইংরেজ বিরোধী আন্দোলনে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে সেই স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়। পরে ময়মনসিংহের মৃত্যুঞ্জয়ী স্কুলে ভর্তি হন এবং এখান থেকে ৭ বিষয়ে লেটার মার্ক নিয়ে এনট্রান্স পাশ করে ।

বৃটিশ আমলে রাজনীতি[সম্পাদনা]

বঙ্গীয় ব্যবস্থাপক সভা

১৯২১ সালে মাত্র ২৬ বছর বয়সে বঙ্গীয় ব্যবস্থাপক সভার সর্বকনিষ্ঠ সদস্য নির্বাচিত হন । ১৯২৩ সালে স্বরাজ পার্টি থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন এবং বিজয় লাভ করেন।[৫] ১৯৩৭ সালের নির্বাচনেও তিনি ময়মনসিংহ পশ্চিম থেকে নির্বাচিত হন। ১৯৪৬ সাল পর্যন্ত তিনি একক ভাবে ময়মনসিংহ পশ্চিম অঞ্চল থেকে নির্বাচিত সদস্য ছিলেন। ১৯২৩ সালের নির্বাচনে তার নির্বাচনী ব্যয় ছিল ১২০৩ টাকা অপরদিকে তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী নওয়াব বাহাদুর সৈয়দ নওয়াব আলী চৌধুরী নির্বাচনী ব্যয় ছিল ৩৬০৮ টাকা ।[৬] বিশাল ব্যায়ের পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান ওই নির্বাচনে জয় লাভ করেছিল। নওয়াব বাহাদুর সৈয়দ নওয়াব আলী চৌধুরীর সম্মান রক্ষা করার জন্য নওয়াব সাহেব কে সন্মানিত সদেস্য পদ দান করে এবং তিনি শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেন। আব্দুল জব্বার পাহলোয়ান বহুবার বঙ্গীয় ব্যাবস্থাপক সভায় ভাষন প্রদান করেন। তিনি ম্যালেরিয়া রোগ প্রতিষধক কুইনাইনের দাম কমানোর জন্য তার যুক্তি তর্ক উপস্থাপন করেন। ১৯২১ সালের ২১ শে নভেম্বর কলকাতায় হরতাল চলাকালে জনগণের উপর পুলিশের নির্বিচারে গুলি বর্ষনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। [৭] তিনি জমিদারদের আয়ের উপর কর আরোপের জন্য একটি বিল উত্থাপন করে ছিলেন [৮]

আইন সভায় উত্থাপিত তার ভাষন সমুহ[সম্পাদনা]

কানুন গো পেনশন বৃদ্ধি প্রসঙ্গে... “I cannot understand the sprite of the resolution. When the Government is unable to protect the lives of the people from the attack of such serious diseases as cholera, malaria, etc., when such important items of work as are most essential factors to build a nation are left aside for want of funds, and when there is a cry, in and outside the Council retrenchment is it advisable us to burden the Government with additional expense? And if we do so, will not our cry for retrenchment be taken as false one? With these few words, I oppose the resolution”. 23 November 1921 [৯]

ম্যালেরিয়া রোগ প্রতিষধক কুইনাইনের দাম কমানোর জন্য তার যুক্তি তর্ক

"The quinine is manufactured by Government, i do not of course know whether it is manufactured by the* Revenue Department or by the Public Health Department. The general idea, however, is that it is made by the Public Health Department. In case it is made by the Revenue Department, it is not a very difficult task to have it transferred from the Revenue Department to the Public Health Department. Government ought to do what is necessary for the protection of the people and if they do not do so, they would be failing in their duty. The Hon'ble Member said that quinine is exported to other provinces, but I think that if the price of quinine is lowered, the whole quantity will be con- summed by the people of our province. Thus, there does not seem to be any possibility of loss of revenue and even if there is a loss of revenue by reducing its price, it ought to be so done as the people will be benefited. With these words, I commend my resolution to the acceptance of the House."কুইনাইনের দাম[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. The Bengal legislative council proceedings 1921 vol.5
  2. O P Ralhan (১৯৯৮)। "Swaraj Party (1925-1936)" (English ভাষায়)। Anmol Publications 
  3. Indian freedom movement through politics House of Commons paper vol 21
  4. Asim pada Chakraborti (১৯৯৩)। "Muslim identity and community consciousness: Bengal legislative politics, 1912-36" (English ভাষায়)। Minerva Associates 
  5. Struggle for Independence: Indian freedom fighters C.R.Das.
  6. The proceedings of Bengal legislative assembly 1937
  7. The proceedings of Bengal legislative council 1921 vol 5 ch 3 p-216
  8. Asian Studies, Issue 3, Center for Asian Studies, Jahangirnagar University., 1981 
  9. The proceedings of Bengal legislative council 1921 Vol5_Chapter3_161-236P.