মীশা শফী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মীশা শফী
জন্ম নামমীশা শফী
জন্ম (1981-12-01) ১ ডিসেম্বর ১৯৮১ (বয়স ৪০)
লাহোর, পাঞ্জাব, পাকিস্তান
পেশাগায়িকা, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, মডেল
ওয়েবসাইটmeeshashafi.net

মীশা শফী (উর্দু: میشا شفیع‎‎) হচ্ছে একজন পাকিস্তানি অভিনেত্রী, মডেল এবং গায়িকা[১]

২০১৩ সালে তিনি মিরা নায়ারের চলচ্চিত্র দ্য রিলাকটেন্ট ফান্ডামেন্টালিস্টে শফির নামে একজন পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেছেন। পরের বছর তিনি বলিউডের চলচ্চিত্র ভাগ মিলখা ভাগে অভিনয় করেন, যা ২০১৩ সালে ভারতে সবচেয়ে লাভজনক বলিউড চলচ্চিত্রের মধ্যে অন্যতম হয়ে উঠে। তিনি একজন ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইংয়ের অপারেটর লক্ষ্মীর ভূমিকায় অভিনয়ের জন্য আরো গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য অর্জন করেছেন। শফী বিলাল লাসারীর অ্যাকশন থ্রিলার চলচ্চিত্র ওয়্যারে অভিনয় করেছিলেন, যা পাকিস্তানে "সর্বকালের সর্বাধিক আয়কারী পাকিস্তানি চলচ্চিত্র"-এর তালিকায় স্থান পায়।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮১ সালের ১লা ডিসেম্বর তারিখে, শফী পাকিস্তানের লাহোরের একটি পাঞ্জাবি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছেন। তার বাবা এবং মা হচ্ছেন অভিনেতা সাবা হামিদসৈয়দ পারভেজ শফী। তিনি লাহোর গ্রামার স্কুলে এ-লেভেল পর্যন্ত শিক্ষা লাভ করেছিলেন এবং ২০০৭ সালে জাতীয় কলেজ অব আর্টস থেকে ফাইন আর্টসে ডিগ্রি লাভ করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মডেলিং[সম্পাদনা]

শফী মাত্র ১৭ বছর বয়সে মডেলিং শিল্পে প্রবেশ করেন, তখন তিনি "বিন তেরে ক্যায়া হ্যায় জিনা" গানের জন্য চিত্রসঙ্গীতে জাওয়াদ আহমেদের সাথে অভিনয় করেছিলেন।[৩] ২০০৯ সালে শফী লোরিয়াল প্যারিস পাকিস্তানের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিযুক্ত হন।[২][৪] তিনি পাকিস্তানের বেশ কয়েকটি ম্যাগাজিন এবং আন্তর্জাতিক প্রকাশনা যেমন ল'অফিসিয়েল ও ভোগ ইন্ডিয়াতেও উপস্থিত হয়েছেন।[৩] এছাড়াও তিনি কোকা-কোলা, ফ্যান্টা, এলজি মোবাইল ফোন, মোবিলিঙ্ক, অ্যালাইড ব্যাংক, লিপটন চা, স্প্রাইট এবং অন্যান্য আরো অনেক বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপনে উপস্থিত হয়েছেন। ২০১৩ সালে, তিনি পেপার ম্যাগাজিনের "পেপার অ্যাওয়ার্ডস ২০১৩"-এ "সেটা শো স্টপার" পুরস্কার জয়লাভ করেন। ২০১৩ সালে আন্তর্জাতিক ফ্রাঞ্চাইজি "হ্যালো" পত্রিকা কর্তৃক পাকিস্তানের "১০০ সর্বাধিক প্রভাবশালী ব্যক্তি"-দের মধ্যে মীশা শফীর নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। মীশা শফী পাকিস্তানের প্রথম শিল্পী হিসেবে থ্রিডি আলোকসজ্জার সঙ্গে সঞ্চালন করেছেন। তার পারফর্ম্যান্সের সময় নেপথ্যের শিল্পী উমর তোরের সাহায্যে তার পোশাকটিতে ভিডিও ম্যাপ করা হয়েছিল।

টেলিভিশন উপস্থিতি[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে, মীশা শফী স্ট্রিংস (ব্যান্ড), আলী আজমাত, শাহজাদ হাসানআলমগীরের সাথে গানের প্রতিভা প্রদর্শনের অনুষ্ঠান "করানোটো মিউজিক আইকন"-এ একজন বিচারক এবং পরামর্শক হিসেবে যোগদান করেন। উক্ত অনুষ্ঠানটি এরি ডিজিটালে সম্প্রচার করা হয়েছিল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About: Meesha Shafi"। Web PK। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১১ 
  2. "Meesha interview with Fashion Central"। Fashion Central। ৬ এপ্রিল ২০১০। ২২ জানুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১১ 
  3. Mansuri, Anam। "It's getting hot in here"। Tribune Pakistan। 
  4. Hirani, Shireen। "Meesha Shafi Biography & Pictures"। Fashion in Step। ২৭ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]