মিজানুর রহমান সিনহা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মিজানুর রহমান সিনহা
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
২২ মে ২০০৩ – ২৯ অক্টোবর ২০০৬
প্রধানমন্ত্রীখালেদা জিয়া
মুন্সিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১২ জুন ১৯৯৬ – ২৯ অক্টোবর ২০০৬
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1943-08-18) ১৮ আগস্ট ১৯৪৩ (বয়স ৭৬)
লৌহজং, মুন্সিগঞ্জ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)
পেশাব্যবসা, রাজনীতি

মিজানুর রহমান সিনহা একজন বাংলাদেশি শিল্পপতি, রাজনীতিবিদ ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী। তিনি মুন্সিগঞ্জ-২ আসন থেকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং ২০০৩ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত খালেদা জিয়ার দ্বিতীয় মন্ত্রীসভায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মিজানুর রহমান সিনহা ১৯৪৩ সালের ১৮ আগস্ট মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং উপজেলার কলমা ইউনিয়ের ডহুরী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[১][২][৩] তার পিতার নাম হামিদুর রহমান সিনহা ও মাতার নাম নূরজাহান সিনহা।[৪] হামিদুর রহমান বাংলাদেশের ঔষধ ব্যবসায়ের অন্যতম পথিকৃৎ ও শিল্পগোষ্ঠী একমি গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা।[২] সিনহা শৈশবে কলকাতায় বেড়ে উঠেন। পরবর্তীতে নারায়নগঞ্জের সরকারি তোলারাম কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবসায় স্নাতক সম্পন্ন করেন।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৬৪ সালে সিনহা হাবিব ব্যাংকে চাকুরীর মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু করেন।[৫] তার পিতার মৃত্যুর পর ১৯৭৫ সালে তিনি পিতার প্রতিষ্ঠিত একমি গ্রুপে যোগদান করেন। ১৯৮৩ সাল থেকে তিনি গ্রুপটির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

সিনহা ছাত্রীজীবনে রাজনীতির সাথে যুক্ত হন। সরকারি তোলারাম কলেজে অধ্যয়নকালে তিনি ছাত্র ইউনিয়নের প্রার্থী হিসেবে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।[২] ১৯৯০ সালের মিজানুর রহমান সিনহা বিএনপিতে যোগদান করেন।[২] পরবর্তীতে তিনি দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পান।

সিনহা মুন্সিগঞ্জ-২ আসন থেকে বিএনপির মনোনয়নে ১৯৯৬ সালে সপ্তম২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে যথাক্রমে ৫৮,৪৫৫ ও ৮৩,৬২৩ ভোট লাভ করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নূরুল ইসলাম খান বাদল ও সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলিকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৬][৭][৮][৯][১০] ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি একই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে এমিলির কাছে পরাজিত হন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি পুনরায় একই আসনে বিএনপির মনোনয়ন লাভ করেন।[৯][১০]

২০০১ সালের নির্বাচনে বিএনপি সরকার গঠন করলে ২২ মে ২০০৩ সালে তিনি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান এবং ২০০৬ সাল পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

মিজানুর রহমান সিনহা ব্যক্তিগত জীবনে জাহানারা সিনহা তাজের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতির তাসনিম সিনহা স্নিগ্ধা নামে এক কন্যা ও তানভীর সিনহা সুপ্রিয় নামে এক ছেলে রয়েছে।[২] তার পিতামহ আনসার উদ্দিন সিনহা ছিলেন একজন ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ যিনি চিত্তরঞ্জন দাশের সাথে স্বরাজ্য পার্টির রাজনীতি করতেন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "মিজানুর রহমান সিনহার হলফ নামা" (PDF)নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. "'বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ মূলত খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য'"চ্যানেল আই। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  3. "প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব-কলমা ইউনিয়ন"সরকারি তথ্য বাতায়ন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  4. "হলফনামা-মিজানুর রহমান সিনহা"নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  5. "প্রধান ব্যক্তি ও পরিচালকবৃন্দ, একমি গ্রুপ"একমি গ্রুপ। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  6. "সংসদ নির্বাচন: দেখে নিন প্রার্থী এবং পূর্ববর্তী ফলাফল"বিবিসি বাংলা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  7. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. "৮ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  9. "মিজানুর রহমান সিনহা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  10. "একাদশ সংসদ নির্বাচন"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮