মাস্টারবেট-আ-থন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
প্রাচীন রোমান জাদুবিদ্যা বিষয়ক ও ধর্মীয় প্রতীক ফ্যাসিনাস এর অনুসরণে নকশা করা মাস্টারবেট-আ-থন লোগো

মাস্টারবেট-আ-থন হলো একটি আয়োজন যেখানে অংশগ্রহণকারীরা হস্তমৈথুন সম্পাদনের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছে এজাতীয় যৌনতাবিষয়ক লজ্জাজনক উপাদান ও ট্যাবুর সম্পর্কে ভুল ধারণা দূর করার জন্য দাতব্যকাজের অর্থ সংগ্রহ করার জন্য আয়োজিত হয়। ১৯৯৮ থে ২০০৩ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত মাস্টারবেট-আ-থনের মাধ্যমে প্রায় ২৫,০০০ মার্কিন ডলারের তহবিল সংগ্রহ করা সম্ভব হয়েছে, যা নারী স্বাস্থ্য বিষয়ক উদ্যোগ ও এইচআইভি নির্মূলের কাজে নিয়োজিত শিক্ষা ও সেবা সংস্থা, নিরাপদ যৌনতা সম্পর্কিত বিতর্ক এবং বিকল্প নিরাপদ যৌন উপাদানের সচেতনতা বৃদ্ধির কাজে ব্যবহার করা হয়েছে।[১] আয়োজনটিতে তাদেরকে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মান জানানো হয়, যারা পর্যাপ্তসংখ্যক রাগমোচনের মাধ্যমে যৌনক্ষমতা প্রদর্শন করে সর্বোচ্চ তহবিল উত্তোলন করতে পারেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৯৫ খ্রিষ্টাব্দের মে মাসে[২] মে মাসকে হস্তমৈথুন মাস ঘোষণা করা হয়। তখন থেকে ইতিবাচক যৌনতার ধারণার অনুসারী দাতব্য সংস্থাগুলোর জন্য আর্থিক সাহায্য খুঁজতে মানুষকে উৎসাহিত করা শুরু হয়। যদিও তখন থেকেই ধারণাগুলো যথেষ্ট বিতর্কের মুখে পড়ে।

১৯৯৯ খ্রিষ্টাব্দে গুড ভাইব্রেশন সংস্থা পরিলিত কালেক্টিভ ওপেন এন্টারপ্রাইজ মাস্টারবেট-আ-থন আয়োজন করে। যৌন খেলনা সামগ্রী সরবরাহকারী বেবল্যান্ড (পূর্ব নাম: টয়েস ইন বেবল্যান্ড) এর প্রতিষ্ঠাতা র্যাচেল ভেনিং এর শ্লোগান কাম ফর আ কজ বা কোনো কারণ নিয়ে আসুন তৈরি করেন। সিয়াটল, ব্রুকলিন, এবং ম্যানহাটনে দুটিসহ বেশ কিছু জায়গায় বেবল্যান্ড এর শাখা রয়েছে।মাস্টারবেট-আ-থন মূলত গুড ভাইব্রেশন দ্বারা শুরু হলেও এটি পরবর্তীতে বেবল্যান্ড, মেডিসনের আ ওমেন'স টাচ, টরোন্টোর কাম অ্যাজ ইউ আর এবং বোস্টন'স গ্যান্ড ওপেনিং এর মতো আধুনিক যৌন খেলনা সামগ্রী প্রস্তুতকারী অনেক প্রতিষ্ঠান তৈরির পেছনে উৎসাহ জোগায়, যারা একত্রে হস্তমৈথুন মাস (যুক্তরাষ্ট্রে মে মাস]] এর আয়োজনগুলোর পেছনে মূল ভূমিকা পালন করে থাকে। সে বছরই স্যান ফ্র্যান্সিসকোর ক্যাম্পাস থিয়েটারে সেন্টার ফর সেক্স অ্যান্ড কালচার (সিএসসি)র ক্যারোল কুইন এবং তার সহযোগী রবার্ট লরেন্সের উদ্যাোগে প্রথমবারের মতো কোনো সরাসরি অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। সিএসসি মূলত একটি শিক্ষামূলক অলাভজনক সংস্থা যারা "পেশাদার পর্যায়ের" যৌনশিক্ষা নিয়ে কাজ করে থাকে। বার্ষিক আয়োজনগুলোকে পাবলিক হেলথ এডুকেশন এর একটি উপাদান হিসেবে স্ব মৈথুন, নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর যৌনতার প্রসারে ব্যবহার করা হয়।

লন্ডনে ২০০৬ খ্রিষ্টাব্দের ৫ আগস্ট ইউরোপের প্রথম মাস্টারবেট-আ-থন আয়োজিত হয়। এর লক্ষ্য ছিল হস্তমৈথুন এর সাথে জড়িত সকল ভুল ধারণা ও লজ্জা দূর করা।[৩] কয়েকশত মানুষ একসাথে দাতব্য সংস্থা টেরেন্স হিগিন্স ট্রাস্ট এবং যৌন ও প্রজননস্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা সংস্থা মেরি স্টোপস ইন্টারন্যাশনাল এর জন্য অর্থ উত্তোলন করে। [৪] এই মাস্টারবেট-আ-থনটি (যাকে ওয়েংক-আ-থন নামেও ডাকা হচ্ছিল) আয়োজনটির আন্তর্জাতিক ভাবে নথিভুক্ত করার অংশ হিসেবে লন্ডনের জিগজ্যাগ প্রোডাকশন চিত্রধারণ করে।[৫] এমনকি আয়োজনটি চ্যানেল ফোর এ সরাসরি পরিবেশন করার পরিকল্পনাও ছিল।[৬]

২০০৯ খ্রিষ্টাব্দে স্যান ফ্রান্সিসকোয় সেন্টার অব সেক্স অ্যান্ড কালচার আয়োজিত মাস্টারবেট-আ-থন এ মোসানবু সানু নামের এক প্রতিযোগী টানা নয় ঘণ্টা তেত্রিশ মিনিট হস্তমৈথুন করে বিজয়ী হন।[৭]

২০১২ খ্রিষ্টাব্দে বিশ্ব এইডস দিবসI উদযাপনের অংশ হিসেবে চীনের শেনজেন এ চীনের প্রথম হস্তমৈথুন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।আয়োজকেরা জানান এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে যৌন সংগমের নিরাপদতম উপায় ও এইচআইভি সংক্রমণ প্রতিরোধের অন্যতম হাতিয়ার হিসেবে হস্তমৈথুন সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর চেষ্টা করা হবে।[৮][৯]

মন্ট্রিলের প্রথম মাস্টারবেট-আ-থন (তথা ওয়েংকফেস্ট আয়োজিত হয় ২০১৩ সালের ৪ মে, যার মাধ্যমে তরুণদের ভেতর যৌন সচেতনতা বাড়াতে তৎপর দাতব্য সংস্থা হেড অ্যান্ড হ্যানডস এবং যৌনতার ভেতর আনন্দ ধারণার প্রসারে কাজ করা প্রাপ্তবয়ষ্কদের জন্য শিক্ষা সরবরাহকারী সংস্থা সেক্সপ্লোরিয়াম এর জন্য অনুদান সংগ্রহ করা হয়। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের মাস্টারবেট-আ-থন থ্রি পর্যাপ্ত প্রতিযোগীর অভাবে বাতিল করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Queen, Carol (এপ্রিল ২৩, ২০০৩)। "The Royal Treatment: Time to Masturbate"Spectator Magazine, reprinted in Good Vibrations magazine। জুলাই ৯, ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২৪, ২০০৭ [অসম্পূর্ণ তথ্যসূত্র]
  2. Silver, Matty (১৪ এপ্রিল ২০১৫)। "Make time for yourselves during National Masturbation Month in May"The Sydney Morning Herald। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুন ২০১৭ 
  3. "Minerva"BMJ: British Medical Journal333 (7561): 268। ২৯ জুলাই ২০০৬। আইএসএসএন 0959-8138ডিওআই:10.1136/bmj.333.7561.268পিএমসি 1523434অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  4. Masturbate-a-thon press release (retrieved August 6, 2006) ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত এপ্রিল ২৩, ২০০৭ তারিখে
  5. Leigh Holmwood (জুলাই ১৮, ২০০৬)। "More tossers on TV"The Guardian। UK। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২, ২০০৭ 
  6. Jason Deans (ফেব্রুয়ারি ২, ২০০৭)। "'Wank week' postponed"The Guardian। UK। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২, ২০০৭ 
  7. Christina, Eva (২০১১)। The Book of Kink: Sex Beyond the Missionary (ইংরেজি ভাষায়)। Penguin। পৃষ্ঠা 68। আইএসবিএন 9781101545096। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুন ২০১৭ 
  8. Wilkins, Brett (৫ ডিসেম্বর ২০১২)। "China's first masturbation contest held for World AIDS Day"। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুন ২০১৭ 
  9. Thomas, Emily (৩ ডিসেম্বর ২০১২)। "Masturbation Contest In China Held To Celebrate Safe Sex On World AIDS Day (NSFW VIDEO)"Huffington Post। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুন ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]