মায়া ঘোষ (অভিনেত্রী)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মায়া ঘোষ
মায়া ঘোষ (অভিনেত্রী).jpg
জন্ম(১৯৪৯-১২-৩১)৩১ ডিসেম্বর ১৯৪৯
মৃত্যু১৯ মে ২০১৯(2019-05-19) (বয়স ৬৯)
নাগরিকত্ববাংলাদেশ
পেশাঅভিনেত্রী

মায়া ঘোষ (৩১ ডিসেম্বর ১৯৪৯ - ১৯ মে ২০১৯) ছিলেন একজন বাংলাদেশি মঞ্চ, নাটক ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন তিনি ভারতের কলকাতায় শরণার্থী শিবিরে মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার সরবরাহ করেছেন এবং যুদ্ধে অংশ নিয়েছেন।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মায়া ঘোষ ১৯৪৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলার প্রতাপকাঠি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[১] তার পিতার নাম শংকর প্রসাদ গাঙ্গুলি।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮১ সালে মায়া ঘোষ পাতাল বিজয় নাম চলচ্চিত্রে প্রথম অভিনয় করেন।[৩] ১৯৮৪ সালে স্বামী দিলীপ ঘোষের সাথে ঢাকাতে স্থানান্তরিত হন। এরপর নিয়মিত তিনি মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। তিনি মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত দুই শতাধিক নাটক ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।[১] তিনি এটিএন বাংলায় ২০১৬ সালে প্রচারিত ‘ডিবি’ নাম একটি ধারাবাহিক নাটকে সর্বশেষ অভিনয় করেন।[৪]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

মায়া ঘোষ ব্যক্তিগত জীবনে তার জন্মস্থান মনিরামপুর উপজেলার মাছনা-খানপুর গ্রামের দিলীপ ঘোষের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[১] দিলীপ ২০০২ সালে মৃত্যুবরণ করেন। এই দম্পতির তিন সন্তান রয়েছে। মায়া ২০০০ সাল থেকে ক্যান্সারে ভুগছিলেন। ২০০৯ সালে কিছুটা সুস্থ হলেও কিডনি, লিভার ও হাঁটুর সমস্যা ছিল। এরপর ২০১৮ সালের অক্টোবরে পুনরায় ক্যান্সার ধরা পড়ার পর কলকাতার সরোজ গুপ্ত ক্যানসার হাসপাতালে তাকে চিকিৎসাধীন রাখা হয়। পরবর্তীতে ২০১৯ সালের ১৫ এপ্রিল বাংলাদেশের আনা হয় এবং ১৯ মে তিনি যশোর কুইন্স হাসপাতালে ৬৯ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।[৫] মৃত্যুর পর যশোরের নীলগঞ্জ শ্মশানে তার শবদাহ করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "অভিনেত্রী মায়া ঘোষ মারা গেছেন"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৯ 
  2. প্রতিবেদক, গ্লিটজ; ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। "চিরনিদ্রায় অভিনেত্রী মায়া ঘোষ"বিডিনিউজ২৪.কম। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৯ 
  3. "অভিনেত্রী মায়া ঘোষ মারা গেছেন"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৯ 
  4. "চলে গেলেন অভিনেত্রী মায়া ঘোষ"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৯ 
  5. "চলে গেলেন মুক্তিযোদ্ধা ও অভিনেত্রী মায়া ঘোষ"ইত্তেফাক। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৯