মাধবচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

মাধবচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় (১২৩৭ - ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৩১২ বঙ্গাব্দ) ছিলেন একজন বাঙালি প্রকৌশলী, গণিতজ্ঞ ও জ্যোতির্বিদ। তার পরিচিতি মূলতঃ বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকা সম্পাদনা ও প্রকাশনার জন্য। [১]

সংক্ষিপ্ত জীবনী[সম্পাদনা]

মাধবচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের জন্ম ১৮৩০ খ্রিস্টাব্দে (১২৩০ বঙ্গাব্দে) বৃটিশ ভারতের অধুনা পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার নন্দীগ্রামে। পড়াশোনার শেষে তিনি ওভারসিয়ারের চাকরি পান এবং সেই সূত্রে তিনি ওড়িশায় যান। সেখানে চাকুরির পাশাপাশি জ্যোতিষবিদ্যা আয়ত্ত করেন। ওভারসিয়ার থেকে তিনি পরে কর্মজীবনে সহকারী ইঞ্জিনিয়ার হন এবং ১২৯৫ বঙ্গাব্দে(১৮৮৮ খ্রিস্টাব্দে) অবসর নিয়ে কলকাতায় ফিরে আসেন। সেসময় প্রখ্যাত সংস্কৃত পণ্ডিত মহামহোপাধ্যায় মহেশচন্দ্র ন্যায়রত্ন সঠিক গণনায় বাংলা পঞ্জিকা প্রকাশ করার জন্য বলেন। মাধবচন্দ্র আশুতোষ মিত্রের সহায়তায় সে কাজে মনোযোগী হন। প্রচলিত সূর্যসিদ্ধান্তের সংস্কার ঘটিয়ে নৌ-সারণী অনুসরণে তিনি সম্পূর্ণ বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে নক্ষত্রাদি নির্ভুলভাবে গণনা করেন। ফলস্বরূপ ১৮৯০ খ্রিস্টাব্দে [২] তারই সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকা[৩] প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য এই যে, বিজ্ঞানী মেঘনাদ সাহার নেতৃত্বে ভারতের “পঞ্জিকা সংস্কার কমিটি” যে “রাষ্ট্রীয় পঞ্চাঙ্গ” তৈরি করেন, তার সাথে বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকার গণনায় মিল আছে।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

মাধবচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় (১৯০৫ খ্রিস্টাব্দের) ১৩১২ বঙ্গাব্দের ৯ই জ্যৈষ্ঠ পরলোক গমন করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Network, N. F. N.। "বঙ্গ সংস্কৃতির স্বার্থে বাংলা ইংরেজি বছরের তারিখের সমন্বয় খুব জরুরী" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-২৯ 
  2. "নির্বাচন পেছানো যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত : - Poriborton"www.kholakagojbd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-২৯ 
  3. "‌'‌কথামৃত' ছাপিয়ে পঞ্জিকার বিক্রি - Aajkaal"Dailyhunt (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-২৯