ভবানীপ্রসাদ মজুমদার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ভবানীপ্রসাদ মজুমদার হলেন একজন বাঙালি কবি ও ছড়াকার। তিনি বাংলা ভাষার প্রতি বর্তমান বাঙালির মনভাব নিয়ে বহু কবিতা লিখেছেন। তিনি একবিংশ শতকের বাঙালি কবিও ছড়াকারদের মধ্যে প্রথম সারির একজন। তিনি প্রায় ২০ হাজারের বেশি ছড়া লিখেছেন।

জন্ম ও শৈশব[সম্পাদনা]

তিনি জন্মগ্রহণ করেন হাওড়া জেলার জগাছা থানার অন্তর্গত দাশনগরের কাছে দক্ষিণ শানপুর গ্রামে। তার পিতা নারায়ণচন্দ্র মজুমদার এবং মাতা নিরুপমা দেবী। কবির শৈশব জীবন তার গ্রামেই অতিবাহিত করেছেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

কবি ভবানীপ্রসাদ মজুমদার পেশায় একজ নিষ্ঠাবান শিক্ষক। বিশিষ্ট এই কবি ও ছড়াকার হাওড়া জেলার শানপুর গ্রামের কালিতলা প্রথমিক বিদ্যালয়-এ একজন শিক্ষক হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। পরে তিনি বিদ্যালয়টিতে প্রধান শিক্ষক হিসাবে নিযুক্ত হয়েছিলেন।

সাহিত্য চর্চা[সম্পাদনা]

তিনি প্রধানত সব ধরনের লেখাই লিখে থাকেন। প্রধানত ছোটদের উপযোগী মজার মজার ছড়া-কবিতা লেখায় বিশেষ পারদর্শী। তার প্রকাশিত ছড়ার সংখ্যা কুড়ি হাজারের বেশি। ছড়া নিয়ে নিরন্তন নানারকমের পরিক্ষানিরীক্ষা করতে ভালোবাসে।

কবির প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে- মজার ছড়া, সোনালী ছড়া, কোলকাতা তোর খোল খাতা, হাওড়া-ভরা হরেক ছড়া, ডাইনোছড়া প্রভৃতি। তিনি সত্যজিৎ রায়রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিয়ে লিখেছেন- ছড়ায় ছড়ায় সত্যজিৎ এবং রবীন্দ্রনাথ নইলে অনাথ

বিখ্যাত কিছু ছড়া/কবিতা[সম্পাদনা]

তার বিখ্যাত কিছু ছড়া ও কবিতার নাম-

  • আ-মরি বাংলাভাষা
  • বাংলাটা ঠিক আসেনা

বাংলাটা ঠিক আসেনা কবিতার প্রথম আংশ-

"ছেলে আমার খুব ‘সিরিয়াস’ কথায়-কথায় হাসে না
জানেন দাদা, আমার ছেলের, বাংলাটা ঠিক আসেনা।
ইংলিশে ও ‘রাইমস’ বলে
‘ডিবেট’ করে, পড়াও চলে
আমার ছেলে খুব ‘পজেটিভ’ অলীক স্বপ্নে ভাসে না
জানেন দাদা, আমার ছেলের, বাংলাটা ঠিক আসে না।
‘ইংলিশ’ ওর গুলে খাওয়া, ওটাই ‘ফাস্ট’ ল্যাঙ্গুয়েজ
হিন্দি সেকেন্ড, সত্যি বলছি, হিন্দিতে ওর দারুণ তেজ।
কী লাভ বলুন বাংলা প’ড়ে?
বিমান ছেড়ে ঠেলায় চড়ে?
বেঙ্গলি ‘থার্ড ল্যাঙ্গুয়েজ’ তাই, তেমন ভালোবাসে না
জানে দাদা, আমার ছেলের, বাংলাটা ঠিক আসে না।"

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]