ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-ন্যি-মা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-ন্যি-মা (তিব্বতি: བློ་བཟང་ཆོས་ཀྱི་ཉི་མ།ওয়াইলি: blo bzang chos kyi nyi ma) (১৭৩৭-১৮০২) তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের দ্গে-লুগ্স ধর্মসম্প্রদায়ের তৃতীয় থু'উ-ব্ক্বান (ওয়াইলি: thu'u bkwan) উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা ছিলেন।

প্রথম জীবন[সম্পাদনা]

ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-ন্যি-মা ১৭৩৭ খ্রিষ্টাব্দে তিব্বতের আমদো অঞ্চলের ফুন-ত্শোগ্স (ওয়াইলি: phun tshogs) নামক স্থানে প্রা-স্তি (ওয়াইলি: pra sti) পরিবারগোষ্ঠীতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম ছিল দ্বাং-স্ক্যাব্স-র্গ্যাল (ওয়াইলি: dbang skyabs rgyal) এবং মাতার নাম ছিল বা-রি-ব্জাং-ছোস-ম্ত্শো-স্ক্যিদ (ওয়াইলি: ba ri bzang chos mtsho skyid)। ছয় বছর বয়স হলে দ্কোন-ম্ছোগ-'জিগ্স-মেদ-দ্বাং-পো (ওয়াইলি: dkon mchog 'jigs med dbang po) নামক দ্বিতীয় 'জাম-দ্ব্যাংস-ব্ঝাদ-পা (ওয়াইলি: 'jam-dbyangs bzhad-pa) উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা তাঁকে ঙ্গাগ-দ্বাং-ছোস-ক্যি-র্গ্যা-ম্ত্শো (ওয়াইলি: ngag dbang chos kyi rgya mtsho) নামক দ্বিতীয় থু'উ-ব্ক্বান (ওয়াইলি: thu'u bkwan) উপাধিধারী লামার পুনর্জন্ম রূপে চিহ্নিত করেন এবং লাসা শহরে সপ্তম দলাই লামা তা নিশ্চিত করেন। এরপর তাঁকে দ্গোন-লুং-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারে নিয়ে যাওয়া হয় যেখানে দ্মার-ত্শাং-দ্পোন-ছুং-ব্লো-ব্জাং-ছোস-'দ্জিন (ওয়াইলি: dmar tshang dpon chung blo bzang chos 'dzin) নামক বৌদ্ধ ভিক্ষুর নিকট তাঁর শিক্ষালাভ শুরু হয়। ঙ্গাগ-দ্বাং-দ্গে-লেগ্স-র্গ্যা-ম্ত্শো (ওয়াইলি: ngag dbang dge legs rgya mtsho) নামক দ্গোন-লুং-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারের ত্রিশতম প্রধান তাঁকে উপাসকের শপথ এবং রোল-পা'ই-র্দো-র্জে নামক (ওয়াইলি: rol pa'i rdo rje) নামক তৃতীয় ল্চাং-স্ক্যা হো-থোগ-থু উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা তাঁকে শিক্ষার্থীর শপথ প্রদান করেন। এই সময় য়ে-শেস-দ্পাল-'ব্যোর (ওয়াইলি: ye shes dpal ’byor) নামক তৃতীয় সুম-পা-ম্খান-পো উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা তাঁকে প্রজ্ঞাপারমিতা, কাব্যশাস্ত্র, জ্যোতিষ ও জ্যোতিরবিদ্যা সম্বন্ধে শিক্ষাদান করেন এবং ১৭৫৪ খ্রিষ্টাব্দে তাঁকে ভিক্ষুর শপথ প্রদান করেন। এরপর তিনি দ্রেপুং বৌদ্ধবিহারের গোমাং মহাবিদ্যালয়ে দ্কোন-ম্ছোগ-'জিগ্স-মেদ-দ্বাং-পোর নিকট শিক্ষালাভ করেন। ১৬৫৭ খ্রিষ্টাব্দে ঙ্গাগ-দ্বাং-ব্যাম্স-পা (ওয়াইলি: ngag dbang byams pa) নামক প্রথম ফুর-ল্চোগ (ওয়াইলি: phur lcog) উপাধিধারী বৌদ্ধ লামা তাঁকে দ্বিতীয়বার ভিক্ষুর শপথ প্রদান করেন। এরপর তিনি তৃতীয় ল্চাং-স্ক্যা হো-থোগ-থু রোল-পা'ই-র্দো-র্জে এবং ষষ্ঠ পাঞ্চেন লামার নিকট শিক্ষালাভ করেন।[১]

পরবর্তী জীবন[সম্পাদনা]

১৭৬১ খ্রিষ্টাব্দে ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-ন্যি-মাকে দ্গোন-লুং-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারের প্রধানের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। ১৭৬৩ খ্রিষ্টাব্দে চিং সম্রাট চিয়ানলোংয়ের আমন্ত্রণে তিনি বেজিং যাত্রা করেন। এরপর তিনি বেজিং থেকে মঙ্গোলিয়া যাত্রা করে বিভিন্ন স্থানে ধর্মশিক্ষা প্রদান করেন। চিয়ানলোং তাঁকে জিংসেউ ছেনজি হোথোথু উপাধি প্রদান করেন। ১৭৬৮ খ্রিষ্টাব্দে তিনি দ্গোন-লুং-ব্যাম্স-পা-গ্লিং বৌদ্ধবিহারে ফিরে যান। ১৭৮৩ খ্রিষ্টাব্দে তিনি থার-পা-গ্লিং (ওয়াইলি: thar pa gling) বৌদ্ধবিহার প্রতিষ্ঠা করেন। ১৭৮৯ খ্রিষ্টাব্দে তাঁকে স্কু-'বুম বৌদ্ধবিহারের পঁয়ত্রিশতম প্রধান হিসেবে অধিষ্ঠিত করা হয় এবং পরবর্তী তিন বছর এই পদে থাকেন। 'জাম-দ্ব্যাংস-থুব-ব্স্তান-ন্যি-মা (ওয়াইলি: 'jam dbyangs thub bstan nyi ma) নামক তৃতীয় স্দে-খ্রি রিন-পো-ছে (ওয়াইলি: sde khri rin po che) এবং ঙ্গাগ-দ্বাং-মি-ফাম-জ্লা-বা (ওয়াইলি: ngag dbang mi pham zla ba) তাঁর উল্লেখযোগ্য শিষ্য ছিলেন।[১]

রচনা[সম্পাদনা]

ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-ন্যি-মা একজন বিখ্যাত লেখক ছিলেন, তিনি জীবনী, নাটক, জ্যোতিষশাস্ত্র, তন্ত্র, কাব্যশাস্ত্র প্রভৃতি বিষয়ে প্রায় পাঁচশোটি ছোট বড় লেখা রচনা করেন। ১৮০২ খ্রিষ্টাব্দে ধর্মের ইতিহাসের ওপর রচিত গ্রুব-ম্থা'-থাম্স-চাদ-ক্যি-খুং-দাং-'দোদ-ত্শুল-স্তোন-পা-লেগ্স-ব্শাদ-শেল-গ্যি-মে-লোং (ওয়াইলি: grub mtha' thams cad kyi khung dang 'dod tshul ston pa legs bshad shel gyi me long) গ্রন্থটি তাঁর সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ। এই গ্রন্থে তিনি নিরপেক্ষভাবে চান বৌদ্ধধর্মের সাথে ভারতীয়, মঙ্গোলীয়, তিব্বতী ও চীনা বৌদ্ধধর্মের তুলনা করেন। এই গ্রন্থে তিনি দ্গে-লুগ্স ধর্মসম্প্রদায়ের সাম্প্রদায়িক গোঁড়ামির উর্দ্ধে গিয়ে র্ন্যিং-মা, জো-নাং প্রভৃতি সম্প্রদায়ের বিভিন্ন ঐতিহ্যগুলির বিশ্লেষণ করে প্রশংসা করেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Chhosphel, Samten (অক্টোবর ২০১০)। "The Third Tukwan, Lobzang Chokyi Nyima"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters। সংগৃহীত ২০১৪-০৮-০১ 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Jackson, Roger. 2006. "Triumphalism and Ecumenism in Thu'u bkwan's Crystal Mirror." Journal of the International Association of Tibetan Studies 2; 23 pages.
  • Kapstein, Matthew. 1898. "The Purificatory Gem and Its Cleansing: A Late Tibetan Polemical Discussion of Apocryphal Texts." History of Religions, vol. 28, no. 3, pp. 217–244.
  • Smith, Gene. 2001 (1969). "Philosophical, Biographical, and Historical Works of Thu'u bkwan Blo bzang chos kyi nyi ma." In Among Tibetan Texts, pp. 147–170. Boston: Wisdom.
  • Eva K. Neumaier-Dargyay, Eva M. Dargyay: The rise of esoteric Buddhism in Tibet.
  • Geoffrey Samuel: Tantric revisionings: new understandings of Tibetan Buddhism and Indian religion.
পূর্বসূরী
ঙ্গাগ-দ্বাং-ছোস-ক্যি-র্গ্যা-ম্ত্শো
ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-ন্যি-মা
তৃতীয় থু'উ-ব্ক্বান
উত্তরসূরী
ব্লো-ব্জাং-থুব-ব্স্তান-ছোস-ক্যি-র্গ্যাল-ম্ত্শান