বিষয়বস্তুতে চলুন

ইয়েরাওয়াড়া কেন্দ্রীয় কারাগার: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎বর্ণনা: বানান সংশোধন
(বানান সংশোধন)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(→‎বর্ণনা: বানান সংশোধন)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
'''ইয়েরাওয়াড়া কেন্দ্রীয় কারাগার''' [[Maharashtra|মহারাষ্ট্রের]] [[পুনে|পুনের]] [[Yerwada|ইয়েরাওয়াড়া]]তে অবস্থিত সর্বোচ্চ নিরাপত্তা বেষ্ঠিত একটি কারাগার। এটি [[Maharashtra|মহারাষ্ট্রের]] সবচেয়ে বড় এবং একই সাথে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বড় কারাগার। ২০০৫ সালের হিসাব অনুসারে এই কারাগারে ৩৬০০ বন্দি রয়েছে। অনেক বিখ্যাত ব্যক্তি এই কারাগারে ছিলেন। [[ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন|ভারতের স্বাধীনতা অন্দোলনের]] সময় ১৯৩০ এর পর ও ১৯৪০ সালের পর [[মহাত্মা গান্ধী]]কে এই কারাগারে রাখা হয়েছিল।
 
== বর্ননাবর্ণনা ==
ইয়েরাওয়াড়া কেন্দ্রীয় কারাগারের আয়তন ৫১২ একর<ref name=mud10/> ও ৩৬,০০ জন এর উপর বন্দি নিয়ে এটি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম কারাগার। এই কারাগারের প্রধান বন্দিশালা চারটি বড় দেওয়াল বেষ্ঠিত<ref name=mud10>{{সংবাদ উদ্ধৃতি |title=Murder convict escapes from Yerawada prison|url=http://articles.timesofindia.indiatimes.com/2010-08-17/pune/28283205_1_murder-convict-jail-staff-balasaheb-pawar |publisher=The Times of India|date=Aug 17, 2010 }}</ref> ও পুলিশ ক্যাম্প এবং বিভিন্ন নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা।<ref name=toi05>{{সংবাদ উদ্ধৃতি |title=Nothing suspicious about it!|url=http://articles.timesofindia.indiatimes.com/2005-12-21/pune/27852091_1_jail-inmate-surprise-search-mobile-phones |publisher=The Times of India |date=Dec 21, 2005}}</ref> সাধারনতসাধারণত উচ্চ পর্যায়ের বন্দিদের এই কারাগারে রাখা হয়। কিন্তু ২০০৩ সালের মহারাষ্ট্রের মানবাধিকার কমিশনের এক প্রতিবেদনে এই কারাগারকে ঘনবসতিপূর্ন ও জীবনযাত্রার মানের দিক থেকে নিম্ন বলে উল্লেখ করা হয়।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি |title=Panel takes up issue of Yerwada jail overcrowding|url=http://articles.timesofindia.indiatimes.com/2003-02-18/pune/27282653_1_overcrowding-human-rights-vijay-bendre |publisher=The Times of India |date=Feb 18, 2003 }}</ref>
 
== ইতিহাস ==