"উদ্ভিদবিজ্ঞান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সম্পাদনা সারাংশ নেই
উদ্ভিদবিজ্ঞান, বা উদ্ভিদ-জীববিদ্যা হচ্ছে জীববিজ্ঞানের একটি শাখা যা জীবন্ত উদ্ভিদের বিষয়ে বৈজ্ঞানিক [[নিরীক্ষণ]] সংক্রান্ত কাজ করে থাকে। ঐতিহ্যগতভাবে, উদ্ভিদবিজ্ঞান [[ছত্রাক]], [[শৈবাল]] এবং [[ভাইরাস]] নিয়েও কাজ করে । বৈজ্ঞানিক পরিমন্ডলের দিক থেকে বিচার করলে, উদ্ভিদবিজ্ঞান অনেকগুলো পরিমন্ডলে বিস্তৃত; যেমন- গঠন, বৃদ্ধি, প্রজনন, metabolism, ক্রমোন্নয়ন, রোগ, [[রাসায়নিক]] বৈশিষ্ট্য এবং [[বিবর্তন]]গত সম্পর্ক। নামকরণের ভিত্তিতে প্রাপ্ত গুচ্ছগুলোর প্রেক্ষিতে এই বিষয়গুলো আলোচিত হয়। বিজ্ঞানের প্রাচীন শাখাগুলোর একটি হল উদ্ভিদবিজ্ঞান। মানুষ যখন প্রাথমিক পর্যায়ে খাওয়ার উপযোগী, ঔষধগুণ সম্পন্ন এবং [[বিষাক্ত]] উদ্ভিদ চিহ্নিত করতে শুরু করে, তখন থেকেই উদ্ভিদবিজ্ঞানের সূচনা। বর্তমান সময়ে উদ্ভিদবিজ্ঞানীরা ৫৫০,০০০ এরও বেশি প্রজাতির [[জীব|জীবন্ত প্রাণ]] নিয়ে গবেষণা করে চলেছেন।
[[চিত্র:504px-Pinguiculagrandiflora1web.jpg|thumb|]]
 
==উদ্ভিদবিজ্ঞানের কার্যক্ষেত্র এবং গুরুত্ব==
জীববিজ্ঞানের অন্যান্য শাখাগুলোর মতই, উদ্ভিদজীবনকেও বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে নিরীক্ষা করা যেতে পারে; যেমন- [[অণুজীববিজ্ঞান]], [[জিনতত্ত্ব|জীনতাত্ত্বিক]] বা [[জৈব রসায়ন|জৈব রাসায়নিক]] ইত্যাদি। এই নিরীক্ষা চলে বিভিন্ন বিষয়, যেমন- [[অঙ্গাণু|কোষের অভ্যন্তরস্থ অংশসমূহ]], [[কোষ]], [[Tissue (biology)|টিস্যু]]/[[কলা (জীববিজ্ঞান)|কোষকলা]], ইত্যাদির নিরিখে।
৫১টি

সম্পাদনা

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা