বিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বিদ্যালয় বা পাঠশালা হচ্ছে একটি প্রতিষ্ঠান বা সংগঠন, যা মূলত শিক্ষাদানের কেন্দ্র, যেখানে শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে শিক্ষার্থী পাঠ্যপুস্তকের মাধ্যমে জ্ঞানলাভ করে থাকে। বিদ্যালয় সব সময়ই দালানকোঠায় আবদ্ধ হবে এমন নয়, বরং একজন শিক্ষক, কিছু পরিমাণ শিক্ষার্থী, এবং শিক্ষাসহায়ক পরিবেশই বিদ্যালয় হবার জন্য যথেষ্ট। বিদ্যালয় নির্দিষ্ট পাঠক্রমের অধীনে পরিচালিত হয় এবং বিদ্যালয়ে পঠনের জন্য নির্ধারিত পাঠ্যপুস্তক থাকে। সাধারণত প্রথম শ্রেণী থেকে বিদ্যালয় শুরু হয়। তবে অধুনা প্লেগ্রুপ, নার্সারি, কেজি ইত্যাদিকে প্রিস্কুল বা প্রাক-বিদ্যালয় পঠন হিসেবে গ্রহণ করা হয় এবং এসব পাঠদানও বিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত ধরা হয়। সাধারণ অর্থে বিদ্যালয় সকল পাঠসহায়ক পরিবেশকে বোঝায় বলে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় সবকিছুর সাধারণ নামই বিদ্যালয়। কিন্তু সাধারণ্যের কাছে বিদ্যালয় শুধুমাত্র প্রথম শ্রেণী থেকে বা প্রাক-বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম কিংবা দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদানের প্রতিষ্ঠান হিসেবে গণ্য।

বিদ্যালয় সাধারণত তাত্ত্বিক জ্ঞান বিতরণ করে। তবে ব্যবহারিক জ্ঞান বিতরণকারী প্রতিষ্ঠানও বিদ্যালয় হতে পারে। এই ধারণায় বিভিন্ন ট্রেনিং ইনস্টিটিউটও বিদ্যালয় হিসেবে গণ্য হতে পারে। বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই তাত্ত্বিক শিক্ষা বাধ্যতামূলক, তাই প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণার্থে বিদ্যালয় গমনও প্রাথমিক শ্রেণীতে বাধ্যতামূলক।

শব্দগত গঠন[সম্পাদনা]

"বিদ্যা" (জ্ঞান) এবং "আলয়" (আগার বা স্থান) শব্দদ্বয় সহযোগে বিদ্যালয় শব্দটি গঠিত, যা বিদ্যা বিতরণ ও গ্রহণের স্থান বা আগার হিসেবেই পরিচিত।

বিদ্যালয়ের গঠন[সম্পাদনা]

সাধারণত বিদ্যালয়ের এক বা একাধিক ভবন থাকে। তবে ভবনবিহীন অনেক বিদ্যালয় ভারত, বাংলাদেশসহ আফ্রিকার অনেক দেশে পরিচালিত হয়। ভবনসমৃদ্ধ বিদ্যালয়ে যেসকল বিষয় পরিলক্ষিত হয়:

  • শ্রেণীকক্ষ (আবশ্যিক)
  • শিক্ষক ও প্রশাসনিক কক্ষ
  • পাঠাগার
  • খেলার মাঠ, অনেক বিদ্যালয়েই খেলার মাঠ থাকে না
  • খাবার ঘর বা ক্যাফেতেরিয়া
  • গবেষণাগার
  • কম্পিউটার ল্যাব

বিদ্যালয় অনুষঙ্গ[সম্পাদনা]

বিদ্যালয়ে পাঠদান ও বিদ্যার্জনে বিভিন্ন উপাদান ব্যবহৃত হয়। যেমন:

  • ব্ল্যাকবোর্ড-চক-ডাস্টার বা মোছনী
  • পাঠ্যবই
  • খাতা-কলম-পেন্সিল
  • বেঞ্চ-চেয়ার-টেবিল

অবশ্য এসব অনুষঙ্গ ছাড়াও শ্রেফ মুখে মুখে অনেক অনানুষ্ঠানিক বিদ্যালয় পরিচালিত হতেও দেখা যায়।

অনলাইন বিদ্যালয়[সম্পাদনা]

আধুনিক ইন্টারনেটভিত্তিক বিশ্বে অনলাইনে ইন্টারনেটের মাধ্যমে পাঠদান ও বিদ্যার্জনের উপায়কে অনলাইন বিদ্যালয় হিসেবে গণ্য করা হয়। এমন অনেক শিক্ষাসহায়ক প্রকল্প আছে, যারা অনলাইনেই এরকম পাঠদান পরিচালনা করে এবং পাঠসম্পন্ন হলে সনদ প্রদান করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]