বিউসেজাউর স্টেডিয়াম

স্থানাঙ্ক: ১৪°০৪′১৪.০০″ উত্তর ৬০°৫৫′৫৩.৯৫″ পশ্চিম / ১৪.০৭০৫৫৫৬° উত্তর ৬০.৯৩১৬৫২৮° পশ্চিম / 14.0705556; -60.9316528
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ড্যারেন স্যামি ক্রিকেট গ্রাউন্ড
বিউসেজ্যুর স্টেডিয়াম
Beausejour Stadium Cricket St Lucia.jpg
বিউসেজ্যুর স্টেডিয়াম
স্টেডিয়ামের তথ্যাবলী
অবস্থানগ্রোস আইসলেট, সেন্ট লুসিয়া
প্রতিষ্ঠাকাল২০০২
ধারন ক্ষমতা২০,০০০ [১]
প্রান্ত
প্যাভিলিয়ন এন্ড
মিডিয়া সেন্টার এন্ড
আন্তর্জাতিক তথ্যাবলী
প্রথম টেস্ট২০ জুন ২০০৩: ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ টেস্ট২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯: ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ইংল্যান্ড
প্রথম ওডিআই৮ জুন ২০০২: ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই৯ জুন ২০১৭: ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম আফগানিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
উইনওয়ার্ড আইল্যান্ডস (২০০৩ – বর্তমান)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ (২০০৩ – বর্তমান)
সেন্ট লুসিয়া জুকস (২০১৩ – বর্তমান)
১৭ ডিসেম্বর ২০০৭ অনুযায়ী
উৎস: Cricinfo

ড্যারেন স্যামি ক্রিকেট গ্রাউন্ড আগে, বিউসেজ্যুর স্টেডিয়াম (ইংরেজি: Beausejour Stadium) সেন্ট লুসিয়ার অন্তর্গত গ্রোস আইসলেটর কাছাকাছি এলাকায় অবস্থিত একটি ক্রিকেট মাঠ। স্টেডিয়ামটির দর্শক ধারণ ক্ষমতা বিশ হাজার। ২০০২ সালে এর নির্মাণ কার্য সমাপ্ত হয়। বিউসেজ্যুর পাহাড়ের নামানুসারে এর নামকরণ হয়েছে।[১] রডনি উপসাগরের উপকণ্ঠে এর অবস্থান। উইনওয়ার্ড আইল্যান্ডস ক্রিকেট দলের নিজস্ব মাঠ হিসেবে ঘরোয়া ক্রিকেটের খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হয়। ২০০৩ সালে প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল খেলতে নামে। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের প্রথম দিবা-রাত্রির ক্রিকেট খেলা আয়োজনের সুনাম রয়েছে। ২২ একর জমির উপর নির্মিত স্টেডিয়ামে ১৮টি অতিথি কক্ষ এবং একটি প্যাভিলিয়ন রয়েছে যাতে অংশগ্রহণকারী দলগুলো জিম ও লাউঞ্জ হিসেবে ব্যবহার করতে পারে। পাশাপাশি একটি ব্যালকনি ও কনফারেন্স কক্ষ রয়েছে। সেন্ট লুসিয়া’র শুকনো এলাকায় এর অবস্থান, তাই এটি ক্রিকেট খেলা আয়োজনের জন্যে সবিশেষ উপযোগী স্থান হিসেবে পরিচিত।

সুযোগ-সুবিধাদি[সম্পাদনা]

রডনি উপসাগরের তীরবর্তী পর্যটন কেন্দ্রের উত্তর-পূর্বাংশে অবস্থিত এ স্টেডিয়াম তার উচ্চস্তরের সুযোগ-সুবিধাদির জন্য বিখ্যাত। স্টেডিয়ামটি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত হয়। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের বর্তমান ও ভবিষ্যতের খেলাগুলো পরিচালনায় এর মান বজায় রাখতে সচেষ্ট।[২] মাঠের বহিরাবরণ ডিম্বাকৃতি ও প্রচুর ঘাস রয়েছে। স্থায়ী আসনসংখ্যা তেরো হাজার হলেও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতাসমূহে বিশ হাজারে উন্নীত করা হয়। দুইটি কৃত্রিম পীচ রয়েছে। অনুশীলন ও প্রস্তুতিমূলক খেলায় দু’টো টার্ফ আছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]