বাংলাদেশ মেরিন ফিশারীজ একাডেমী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাংলাদেশ মেরিন ফিশারীজ একাডেমী

বাংলাদেশ মেরিন ফিশারীজ একাডেমী (BMFA)[১] মৎস্য শিল্প, বণিক জাহাজ এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট মেরিটাইম শিল্পগুলিতে প্রবেশ করতে আগ্রহী ক্যাডেটদের জন্য বাংলাদেশ সরকারের একটি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান।[২] ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি শুধুমাত্র এই সংস্থাগুলির জন্য প্রশিক্ষণ প্রদানের একটি জাতীয় সংস্থা।

অবস্থান[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার কর্ণফুলি উপজেলার অন্তর্গত চর পাথরঘাটা ইউনিয়নের ইছানগর এলাকায় অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৬২ সালে চট্টগ্রামের জলদিয়াতে জলদিয়া মেরিন একাডেমি নামে এটি চালু হয়।[৩] বর্তমান একাডেমী বাংলাদেশ ফিশারিজ ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন (বিএফডিসি) এর অধীনে ১ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৩ সালে যাত্রা শুরু করে এবং ২০ এপ্রিল, ১৯৮৮ সালে এটি মৎস্য ও পশু সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণাধীন একটি প্রকল্প হিসেবে আগত।[২] কিন্তু ১ জুলাই, ১৯৯৩ সালে একই মন্ত্রণালয়ের অধীনে রাজস্ব বাজেটে এটি স্থানান্তর করা হয়।[২] এরপর থেকে এটি একাডেমী মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণের অধীনে কাজ করছে। একাডেমীর কার্যকরী কর্তৃত্ব প্রিন্সিপালের উপর ন্যস্ত হয়, যার তিনটি সহযোগী সংগঠন রয়েছে, যথা: একাডেমিক কাউন্সিল, বোর্ড অব স্টাডিজ এবং বোর্ড অফ ডিসিশন।

পাঠ্যক্রম[সম্পাদনা]

এ প্রতিষ্ঠানটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ের, অধীনে পেশাদার স্নাতক (সম্মান) কোর্স প্রদান করে।[২] এই সমস্ত স্বীকৃত কোর্সগুলি, বাংলাদেশ ও অন্যান্য জায়গায় স্বীকৃত। ক্যাডেটদের প্রশিক্ষণের মোট সময়কাল চার বছর। একাডেমিতে পেশাদার এবং একাডেমিক বিষয়গুলির তাত্ত্বিক দিকগুলি অন্তর্ভুক্ত করার জন্য ১ম ও ২য় বর্ষের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবছরের সমাপ্তিতে তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়, দ্বারা পরিচালিত বছরের চূড়ান্ত পরীক্ষায় যোগদান করে থাকে। ৩য় বছরের অন্যান্য শিল্প প্রশিক্ষণ, অনুশীলন এবং সহকারী কোর্স জুড়ে দেয়। এই কোর্স সফলভাবে সমাপ্ত হলে তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়, অধীনে চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। তারপরে সামুদ্রিক মৎস্য একাডেমী ট্রেনিংটি পাস করলে স্নাতক সার্টিফিকেটের পুরস্কার প্রদান করে।

ভর্তি প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়, এর অধীনে মেরিন ফিশারীজ একাডেমীতে বিএসসি (সম্মান) নটিক্যাল , বিএসসি (সম্মান) মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং এবং বিএসসি (সম্মান) মেরিন ফিসারিজে ভর্তির জন্য আবেদনকারীর আগ্রহী পুরুষ নাগরিকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়ে থাকে। এক প্রার্থী কোন এক কোর্সের জন্য অথবা তিনটি কোর্সের জন্য আবেদন করতে পারে। এই পরীক্ষাটি এইচএসসি পরীক্ষায় ইংরেজি, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও সাধারণ জ্ঞান, যা নটিক্যাল / মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেরিন ফিশারীজ গ্রুপ, নটিক্যাল / মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের গণিত এবং মেরিন ফিশারিজ গ্রুপের জীববিজ্ঞান উভয়ের জন্য সাধারণ বিষয়। যদি কেউ তিনটি বিভাগীয় কোর্সের জন্য আবেদন করেন তবে তাকে একটি পরীক্ষা নটিক্যাল এবং মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের জন্য ও অন্য একটি পরীক্ষা মেরিন ফিশারিজ গ্রুপের জন্য দিতে হবে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Ctg Marine Fisheries Academy: Principal's removal demanded"Priyo News। ২০১৬-০৪-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৩-২৫ 
  2. "Marine Fisheries Academy - Banglapedia"en.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৩-২৫ 
  3. "Why we need a maritime policy"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৩-২৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]