বসনিয়া ও হার্জেগোভিনার ইতিহাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা কখনও কখনও বসনিয়া হিসাবে পরিচিত এবং এটি বলকান উপদ্বীপ এর অন্তর্গত দক্ষিণপূর্ব ইউরোপের একটি দেশ। নব্যপ্রস্তরযুগ থেকেই এখানে মানুষের স্থায়ী বসবাস ছিল। আদি ঐতিহাসিক কাল থেকেই এখানে ইলরিয়ান্স এবং সেল্টিকরা বসবাস করত। এখানে খ্রিস্ট ধর্ম প্রথম কী দ্বিতীয় শতাব্দীতে এসেছিল এবং চতুর্থ শতাব্দীর মধ্যে অঞ্চলটি পশ্চিম রোমান সাম্রাজ্য এর অংশ হয়ে যায়। ৬ ষ্ঠ শতাব্দীতে স্লাভ এবং এর পরে জার্মানির উপজাতিরা এই অঞ্চলটি আক্রমণ করেছিল। ১১৩৬ সালে হাঙ্গেরির বেলা দ্বিতীয় বসনিয়া আক্রমণ করেন এবং তাঁর ছেলে হাঙ্গেরির দ্বিতীয় লেডিসলাস এর সম্মানের উপাধি হিসাবে "ব্যান অফ বসনিয়া" উপাধি সৃষ্টি করেন। এই সময়ের মধ্যে বসনিয়া কার্যত স্বায়ত্তশাসিত হয়ে ওঠে এবং শেষ পর্যন্ত ১৩৭৭ সালে একে একটি রাষ্ট্র (কিংডম) হিসাবে ঘোষণা করা হয়। ১৪৬৩ সালে দেশটি অটোমান সাম্রাজ্য বা উসমানীয় সাম্রাজ্যের অধীনে আসে এবং সেই শাসন ৪০০ বছর স্থায়ী হয়েছিল। তাঁরা রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক ব্যবস্থায় প্রচুর পরিবর্তন সাধন করেছিলেন। যেমন ভূমি সংস্কার এবং শ্রেণি ও ধর্মীয় পার্থক্য প্রবর্তন করেছিল। ১৮৩১ সালে এক ধারাবাহিক বিদ্রোহ শুরু হয় যা অবশেষে ১৮৭৫ সালের হার্জেগোভিনীয় বিদ্রোহে গিয়ে সমাপ্ত হয়। শেষেরটি ছিল এক বিশাল কৃষক বিদ্রোহ। সংঘর্ষের ফলে শেষ পর্যন্ত উসমানীয় শাসক ১৮৭৮ সালের বার্লিন চুক্তির মধ্য দিয়ে দেশটির প্রশাসনিক দায়িত্ব অস্ট্রিয়া-হাঙ্গেরির কাছে দিয়ে দিতে বাধ্য হন। ১৯২৯ সালে যুগোস্লাভিয়া রাজত্ব প্রতিষ্ঠায় দেশটির প্রশাসনিক অঞ্চলগুলিকে পুর্নবিন্যাস করে যুগোস্লাভিয়া রাজত্ব উদ্দেশ্যমূলকভাবে সমস্ত ঐতিহাসিক এবং জাতিগত ব্যাপার এড়িয়ে গিয়ে বসনিয়ান পরিচয়ের চিহ্নসমূহ নির্মূল করে দেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ -এ নাৎসি বাহিনী যুগোস্লাভিয়া রাজ্য জয় করে নেয় এবং বসনিয়াকে ক্রোয়েশিয়ার স্বতন্ত্র রাজ্য (এনডিএইচ) এর হাতে তুলে দেয়। এর পরণতিতে সেখানে ব্যাপক নির্যাতন ও গণহত্যা পরিচালিত হয়েছিল। ১৯৯২ সালে শুরু হয় তিন বছর ব্যাপী যুদ্ধ। এর ফলে প্রায় ১০০,০০০ জন লোক মারা গিয়েছিল এবং শরণার্থী হয়েছিল প্রায় ২ মিলিয়ন মানুষ।

প্রাগৈতিহাসিক এবং রোমান যুগ[সম্পাদনা]

বোসানস্কি নোভি -তে পাওয়া ২ য় শতাব্দীর রোমান গ্লাস

বসনিয়াতে নব্যপ্রস্তরযুগের সময় থেকে মানুষের বসতি রয়েছে। ব্রোঞ্জ যুগ এর শেষভাগে নব্যপ্রস্তরযুগের জনসংখ্যার অধীনস্থ আরও যুদ্ধপ্রিয় ইন্দো-ইউরোপীয় উপজাতি ইলিরিয়ান নামে পরিচিত গোষ্ঠীটি তাদের স্থান দখল করে। খ্রিস্টপূর্ব চতুর্থ এবং তৃতীয় শতাব্দীতে সেল্টিকদের অভিবাসনে অনেক ইলিরিয়ান উপজাতি তাদের দেশ থেকে বাস্তুচ্যুত হয়। কিছু সেল্টিক এবং ইলিরিয়ান উপজাতির সংমিশ্রণও ঘটে।[১] এই সময়ের কোনও জোরালো ঐতিহাসিক প্রমাণ খুব কম মেলে। তবে সামগ্রিকভাবে দেখা যায় যে পৃথক পৃথক ভাষায় কথা বলা বিভিন্ন লোকজনসহ অঞ্চলটি বেশ জনবহুল ছিল।[১]

২ য় শতাব্দীর শেষভাগে ইতিমধ্যে এই অঞ্চলে খ্রিস্টান ধর্ম এসে পৌঁছে গিয়েছিল এবং সেই সময়ের অসংখ্য নিদর্শন ও উপাদানগুলিই এর সাক্ষ্য দেয়। ৩৩৭ থেকে ৩৯৫ সালের মধ্যে (রোমান) সাম্রাজ্য বিভক্ত হয়ে যাওয়ার পরে ঘটনাক্রমে ডালমাশিয়া এবং প্যানোনিয়া অন্তর্ভুক্ত হয় পশ্চিম রোমান সাম্রাজ্য এর। ৪৫৫ সালে অঞ্চলটি জয় করে নেয় অস্ট্রোগথরা এবং পরবর্তী বছরগুলিতে অঞ্চলটি আলান এবং হুনদের মধ্যে আবারও হাতবদল হয়েছিল।

উসমানী যুগ[সম্পাদনা]

১৪৫৪ সালের পর থেকে বসনিয়া উসমানী সাম্রাজ্যের অংশ হয়েছিল। উসমানী হুকুমত সনজাক-বেগদের বসনিয়ার সুবাহদার নিয়োগিত করেছিলেন।

নাম কাল মন্তব্য
স্কপিয়ে সনজাকের আওতায় বসনিয়া
ঈসা-বেগ ইসহাকবিচ
(ইসহাকগলু ঈসা-বেগ)
১৪৫৪-১৪৬৩ স্কপিয়ের পহেলা উসমানী সুবাহদার, সনজাক-বেগ হিসাবে
বসনিয়া সনজাক কায়েম
মিন্নেতগলু মুহম্মদ বেগ
(মুহম্মদ বেগ মিন্নেতবিচ)
১৪৬৩–৬৪ আলাদা সনজাক বসনিয়ার পহেলা উসমানী সুবাহদার, সনজাক-বেগ হিসাবে.[২]
সিকান্দর পাশা
(মিহালগলু সিকান্দর পাশা)
১৪৭৮-১৪৮০, ১৪৮৫-১৪৯১, ১৪৯৯-১৫০৪.[৩]
ফিরোজ বেগ ১৫০৪-?
গাজী বালিবেগ এহিয়াপাশিচ ?—১৫ সেপ্টেম্বর ১৫২১
গাজী খসরু বেগ ১৫ সেপ্টেম্বর ১৫২১—১৫২৫
গাজী হাসান বেগ ১৫২৫—১৫২৬
গাজী খসরু বেগ ১৫২৬—১৫৩৪
ওলামা পাশা ১৫৩৪-১৫৩৬
গাজী খসরু বেগ ১৫৩৬—১৫৪১
সুফী খাদিম আলী পাশা ১৫৫২ - এপ্রিল ১৫৫৯
হোসেন পাশা বলিয়ানিচ ১৫৬৯ বাদে
এলায়তে বসনিয়া
ফরহাদ পাশা সকলবিচ ১৫৮০-১৫৮৭
করা আলী পাশা ১৫৮৭–১৫৮৮
শাহসোয়ার পাশা ১৫৮৮
ফরহাদ পাশা সকলবিচ ১৫৮৮/৮৯-১৫৯০
খলীল পাশা ১৫৯০
সুফী মুহম্মদ পাশা ১৫৯০/৯১–১৫৯২/৯৩
হাসন পাশা
(হরসক গাজী হাসন পাশা)
১৫৯২/৯৩

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Malcolm, Noel (1994). Bosnia A Short History. New York University Press. আইএসবিএন ০-৮১৪৭-৫৫২০-৮.[পৃষ্ঠা নম্বর প্রয়োজন]
  2. Esma Smailbegović (১৯৮৬)। Narodna predaja o Sarajevu। পৃষ্ঠা 121। različitim istorijskim ličnostima.48 U Bosni takođe nikada nije namjesnikovao neki Nesuh-beg, već je džamiju koju mu predaja pripisuje podigao prvi bosanski upravitelj sa titulom san- džak-bega, Mehmed-beg Minetović (1463 — 1464)49. 
  3. Enciclopedia Croatica (ক্রোয়েশীয় ভাষায়) (III সংস্করণ)। Zagreb: Naklada Hrvatskog Izdavalačkog Bibliografskog Zavoda। ১৯৪২। ৫ ডিসেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০১১ 

মন্তব্য[সম্পাদনা]