বন্দনা কাটারিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বন্দনা কাটারিয়া
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1992-04-15) ১৫ এপ্রিল ১৯৯২ (বয়স ২৭)
উত্তরপ্রদেশ, ভারত
উচ্চতা ১.৫৯ মি
মাঠে অবস্থান ফরোয়ার্ড
ক্লাব তথ্য
বর্তমান ক্লাব রেলওয়েজ
জাতীয় দল
২০১০– ভারত ২০৮ বার জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব (৪২ গোল)

বন্দনা কাটারিয়া (জন্ম ১৫ই এপ্রিল, ১৯৯২) একজন ভারতীয় ফিল্ড হকি খেলোয়াড়। তিনি ভারতীয় জাতীয় দলে ফরোয়ার্ড অবস্থানে খেলেন। ২০১৩ সালে ২০১৩ মহিলা হকি জুনিয়র বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়ে, বন্দনা সকলের চোখে পড়েন, সেখানে ভারত ব্রোঞ্জ পদক জেতে; তিনি টুর্নামেন্টে পাঁচ গোল করেন, যে কোন খেলোয়াড় হিসাবে তৃতীয় স্থানে।

কাটারিয়া ২০০ টিরও বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচে সিনিয়র জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন। তিনি ২০১৪ এশিয়ান গেমসে ব্রোঞ্জ পদক জয়ী ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন, এবং ২০১৬ রিও অলিমপিকে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি বলেছেন, আর্জেন্টিনার লুসিয়ানা আয়মার তার প্রিয় খেলোয়াড়।[১]

প্রথম জীবন[সম্পাদনা]

কাটারিয়া ১৫ই এপ্রিল, ১৯৯২ সালে উত্তরপ্রদেশে (এখন উত্তরাখণ্ড) জন্মেছিলেন। তার বাবা নহার সিং ভেল এর মাস্টার টেকনিশিয়ান হিসাবে কাজ করেন।[২] হরিদ্বার জেলার রোশানাবাদ গ্রাম থেকে বড় হওয়া বন্দনা, গত কয়েক বছরে ভারতের সবচেয়ে ভাল খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন। ২০০৬ সালে তার জুনিয়র আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয়, এর চার বছর পরে সিনিয়র আন্তর্জাতিকে খেলেন তিনি।[৩]

খেলোয়াড় জীবন[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে ভারতীয় জুনিয়র দলের জন্য কাটারিয়াকে বাছাই করা হয়েছিল এবং তিনি ২০১০ সালে সিনিয়র জাতীয় দলে নির্বাচিত হন। তিনি জার্মানির মনশেনগ্ল্যাডবাখে ২০১৩ জুনিয়র বিশ্বকাপে ব্রোঞ্জ জয়ী দলের সদস্য ছিলেন। টুর্নামেন্টে তিনি ৪ টি ম্যাচে ৫ গোল করে ভারতের শীর্ষ গোলদাতা হয়েছিলেন। [৪] একটি সাক্ষাতকারে তিনি বলেছেন, ব্রোঞ্জ পদক জয় তার জীবনের প্রিয় মুহূর্ত, "জার্মানির বিশ্বকাপে আমরা ব্রোঞ্জ পদক জিতেছি। আমার বাবাকে সম্প্রচার মাধ্যম ডেকেছিল এবং তিনি কেঁদে ফেলাছিলেন। তাই, আমার বাবাকে গর্বিত করা আমার হকি জীবনের সেরা মুহূর্ত।"[৫] স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে ২০১৪ কমনওয়েলথ গেমসে, কানাডার বিপক্ষে তিনি ভারতের হয়ে ১০০তম খেলায় প্রতিনিধিত্ব করেন।[৬] "হক এর বে কাপের সময় আমরা স্পষ্টভাবে বন্দনার অভাব বোধ করেছি। ওর দলে ফিরে আসা আমাদের আক্রমণকে শক্তিশালী করেছে, ওর গতি এবং দক্ষতা বিপক্ষের প্রতিরক্ষাকে ভাঙতে সাহায্য করে, ওদের পশ্চাৎপদ হতে বাধ্য করে," বলেন কাটারিয়ার ২১ বছর বয়সী সহ খেলোয়াড় পুনম রানি। ২০১৪ সালে হকি ইন্ডিয়ার প্লেয়ার অব দ্য ইয়ার পুরস্কারে কাটারিয়াকে সম্মানিত করা হয়।[৭] ২০১৪ এফআইএইচ হকি ওয়ার্ল্ড লীগের ২য় রাউন্ডে, তিনি ১১ গোল করে শীর্ষ গোলদাতা হয়ে সমাপ্ত করেন, ভারত এই টুর্নামেন্টটি জেতে।[৮] "আমার বইয়ে, বিশ্ব হকিতে বন্দনা শীর্ষস্থানীয় এক ফরোয়ার্ড। তিনি খুব দ্রুত, গোল করতে পারেন, রক্ষণে ভাল, এবং সব সময় উন্নতি করছেন," ২য় রাউন্ডে তার দক্ষতা দেখে বলেছেন ভারতীয় মহিলা হকি দলের সাময়িক প্রশিক্ষক রোল্যান্ট অলতমাস[৩] নভেম্বর ২০১৬তে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য ভারতীয় মহিলা হকি দলের অধিনায়ক হিসাবে কাটারিয়াকেই রাখা হয়েছিল এবং তিনি মেলবোর্নে ২৩ থেকে ৩০ নভেম্বর দলের নেতৃত্ব দেন। [৯]

২০১৬ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জনের পর তিনি বলেন :

২০১৮ সালের এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন ট্রফিতে কোরিয়ার কাছে হেরে ভারতীয় দলটি রৌপ্য পদক জিতেছিল। বন্দনা কাটারিয়া প্লেয়ার অব দ্য টুর্নামেন্ট পুরস্কার পান।[১১] বিশ্বকাপের আগে, ২০১৮ সালের জুন মাসে স্পেন সফরের সময় পাঁচ ম্যাচের সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটি ছিল তার ২০০ তম ম্যাচ [১২][১৩] বিশ্বকাপের জন্য নির্বাচিত ১৮ সদস্যের দলে তার নাম আছে।[১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Indian hockey team stronger with Vandana Kataria: Poonam Rani"। ১৩ জুন ২০১৫। 
  2. "CM honours Jr Hockey player Vandana"Daily Excelsior। ১৩ আগস্ট ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৪ 
  3. "Meet Vandana Katariya – Indian Hockey Star"। ১১ মার্চ ২০১৫। 
  4. "2013 Junior World Cup – Individual Statistics" (PDF)International Hockey Federation। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৪ 
  5. "Interview with Vandana Kataria: "Women's hockey needs an HIL for more exposure""। ৯ এপ্রিল ২০১৫। 
  6. "Vandana completes 100 caps at CWG"Business Standard। ২৪ জুলাই ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৪ 
  7. "Women's World Cup 2018: Battling poverty, self-doubt, striker Vandana Katariya surpasses the magic 200 mark"। ৮ জুলাই ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  8. Kulkarni, Abhimanyu (১৬ মার্চ ২০১৫)। "Chak De: Indian eves beat Poland to clinch World Hockey League round 2"Hindustan Times। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০১৫ 
  9. "Vandana to lead Indian eves in Test Series vs Australia"। ১২ নভেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  10. "Meet the first Indian women's hockey Olympic qualifiers ever"। ৫ ডিসেম্বর ২০১৫। 
  11. "Asian Champions Trophy 2018: Tournament gives us self-confidence with an eye on Asian Games gold, says Sjoerd Marijne"। ২০ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  12. "Women's hockey: Vandana Katariya hits 200-cap milestone"Business Standard। ১৬ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৮ 
  13. "Women's World Cup 2018: Battling poverty, self-doubt, striker Vandana Katariya surpasses the magic 200 mark"Sportskeeda। ৮ জুলাই ২০১৮। ১৭ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৮ 
  14. "Women's World Cup: Rani Rampal to captain India"Sportstarlive (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]