প্রবন্ধ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফরাসী লেখক ও দার্শনিক Michel de Montaigne কর্তৃক রচিত প্রবন্ধের সংকলন,১৫৮৮ খ্রিস্টাব্দ

সাহিত্যে বর্ণনামূলক গদ্যকে প্রবন্ধ বলা হয়।প্রবন্ধ সাহিত্যের অন্যতম একটি শাখা। এর সমার্থক শব্দগুলো হলো - সংগ্রহ, রচনা, সন্দর্ভ। প্রবন্ধের বিষয়বস্তু শৈল্পিক, কাল্পনিক, জীবনমুখী, ঐতিহাসিক কিংম্বা আত্মজীবনীমূলক হয়ে থাকে। যিনি প্রবন্ধ রচনা করেন তাকে প্রবন্ধকার বলা হয়। প্রবন্ধে মূলত কোনো বিষয়কে তুলে ধরে তার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়

প্রবন্ধ’ শব্দের প্রকৃত অর্থ প্রকৃষ্ট রূপে বন্ধন । ‘প্রকৃষ্ট বন্ধন’ বলতে বোঝায় বিষয়বস্তু ও চিন্তার ধারাবাহিক বন্ধনকে । নাতিদীর্ঘ, সুবিন্যস্ত গদ্য রচনাকে প্রবন্ধ বলে । প্রবন্ধ রচনার বিষয়, ভাব, ভাষা সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ ।

এক কথায় কল্পনা শক্তি ও বুদ্ধিবৃত্তিকে কাজে লাগিয়ে লেখক যে নাতিদীর্ঘ সাহিত্য রূপ সৃষ্টি করেন তাই প্রবন্ধ ।

শ্রেণিবিভাগঃ

প্রবন্ধ প্রধানত ২ ভাগে বিভক্তঃ

১। তন্ময় বা বস্তুনিষ্ঠ

২। মন্ময় বা ব্যক্তিনিষ্ঠ

যে প্রবন্ধে বিষয়বস্তুর প্রাধান্য থাকে তাকেই তন্ময় বা বস্তুনিষ্ঠ প্রবন্ধ বলে।লেখকের পান্ডিত্য,জ্ঞানের গভীরতা ইত্যাদি এখানে ভালোভাবে প্রকাশ পায়।বস্তুনিষ্ঠ প্রবন্ধকেই মূলত প্রবন্ধ বলে বিবেচনা করা হয়।

এই প্রবন্ধ অনেক ভাগে বিভক্তঃ

১। বিবৃতিমূলক

২। ব্যাখ্যামূলক

৩। বর্ণনামূলক

৪। বিতর্কমূলক

৫। চিন্তামূলক

৬। তথ্যমূলক

৭। নীতিকথামূলক

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্রঃ

প্রবন্ধ,ebbokbou.rdu.bd