পটারমোর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পটারমোর
PottermoreLogo.jpg
ওয়েব ঠিকানা pottermore.com
সাইটের ধরন
হ্যারি পটার ওয়েবসাইট
উপলব্ধ ভাষা ইংরেজি, জার্মান, স্পেনীয়, ফরাসি, ইতালীয়
মালিক জে কে রাউলিং
চালুর তারিখ ৩১ জুলাই ২০১১[১] (প্রথম এক মিলিয়ন নিবন্ধঙ্কারীর জন্য)
০১ অক্টোবর ২০১১[১] (সকলের জন্য)

পটারমোর (ইংরেজিতে Pottermore) জে কে রাউলিং, TH_NK এবং সোনি এর যৌথ উদ্যোগে নির্মিত একটি আসন্ন ওয়েবসাইট।[২][৩] ওয়েবসাইটটি মূলত হ্যারি পটার উপন্যাস সিরিজের সাতটি বইয়ের ই-বুক এবং অডিওবুক সংস্করণ বিক্রি করবে, পাশাপাশি হ্যারি পটারের জাদু দুনিয়ায় উল্লেখিত স্থান, কাল, চরিত্র ও অন্যান্য বিষয়ের জন্য রাউলিং লিখিত প্রায় ১৮০০০ শব্দবিশিষ্ট অতিরিক্ত তথ্য, ব্যাকগ্রাউন্ড ও সেটিংস প্রভৃতি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করবে, যা পূর্বে কখনো প্রকাশিত হয় নি।[১][৪] ওয়েবসাইটটি ৩১ জুলাই ২০১১ (রাউলিং এবং তার সৃষ্ট চরিত্র হ্যারি পটারের জন্মদিন) নিবন্ধীকরণ সম্পন্ন করা প্রথম এক মিলিয়ন ভক্তদের জন্য এবং ১ অক্টোবর ২০১১ সকলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে।[১][৫]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঘোষণা[সম্পাদনা]

২০১১ সালের জুন মাসে সর্বপ্রথম একটি ওয়েবপেজে প্রকল্পটি ঘোষিত হয়।[৬] ওয়েবপেজে ইউটিউব চ্যানেলের একটি লিঙ্ক সংযুক্ত করা হয় যেখানে ওয়েবসাইটটির জন্য কাউন্টডাউন দেখানো হয়।[২][৭] ২৩ জুন রাউলিং একটি ইউটিউব ভিডিওর মাধ্যমে সাইটটির কিছু বিবরণ প্রকাশ করেন।[১][৭]

ফিচার[সম্পাদনা]

ব্যবহারকারীরা ভিন্ন আঙ্গিকের পঠন অভিজ্ঞতা অথবা "মুহূর্ত"- এর সঙ্গে অংশগ্রহণ করতে পারবে যার সূচনা হবে প্রথম বই হ্যারি পটার অ্যান্ড দ্য ফিলোসফার্স স্টোন দিয়ে।[৮] একটি ব্যবহারকারী নাম নির্বাচনের মাধ্যমে, ব্যবহারকারীরা সাইটটির অধ্যায়সমূহে হ্যারিকে "অনুসরণ" করার অভিজ্ঞতা লাভ করতে পারবে।[৮] অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে, ব্যবহারকারীর ডায়াগন অ্যালি ভ্রমণ করতে পারবে, যে কোন একটি হগওয়ার্টস হাউজের সদস্য হতে পারবে এবং বিভিন্ন জাদুমন্ত্র শিখতে সক্ষম হবে।[৮] কিভাবে এসব ওয়েবসাইটটিতে অন্তর্ভুক্ত হবে তা এখনও অজানা।[৯] তবে এধরনের অনলাইন বই পাঠের অভিজ্ঞতার যৌক্তিকতার ব্যাপারে অনলাইন বই বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান যেমন আমাজন তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ ১.৪ Cooke, Sonia Van Gilder (২০১১-০৬-১৯)। "'Pottermore' Secrets Revealed: J.K. Rowling's New Site is E-Book Meets Interactive World"Time। সংগৃহীত ২০১১-০৬-১০ 
  2. ২.০ ২.১ "New Rowling mystery project spellbinds"Sydney Morning Herald। ২০১১-০৬-১৭। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৩ 
  3. "J.K. Rowling announces Pottermore"। TH_NK। ২০১১-০৬-২৩। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৪ 
  4. Solon, Olivia (২০১১-০৬-২৩)। "J.K. Rowling's Pottermore reveal: Harry Potter e-books and more"Wired UK (Ars Technica)। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৪ 
  5. "Pottermore Press Release" (PDF)। Pottermore.com। ২০১১-০৬-২৩। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৩ 
  6. "More ‘Harry’: Pottermore website raises fan hopes"Toronto Star। ২০১১-০৬-১৬। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৩ 
  7. ৭.০ ৭.১ "J.K. Rowling has mysterious new Potter website"The Sacramento Bee। ২০১১-০৬-১৬। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৩ 
  8. ৮.০ ৮.১ ৮.২ "Pottermore website launched by JK Rowling as 'give-back' to fans"। ২০১১-০৬-২৩। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৮ 
  9. "New Pottermore Website Will Offer Interactive Reading Experience and Harry Potter Ebooks"। ২০১১-০৬-২৩। সংগৃহীত ২০১১-০৬-২৮ 
  10. "Harry Potter And "Pottermore" Could Force Amazon To Open Up The Kindle"। ২০১১-০৬-২৩। সংগৃহীত ২০১১-০৭-০২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]