নুরুল ইসলাম হাশেমি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নুরুল ইসলাম হাশেমি
নুরুল ইসলাম হাশেমি, ইসলামি ব্যক্তিত্ব.jpg
নুরুল ইসলাম হাশেমি
জন্ম(১৯২৮-১২-২৮)২৮ ডিসেম্বর ১৯২৮
মৃত্যু২ জুন ২০২০(2020-06-02) (বয়স ৯১)
জাতীয়তাবাংলাদেশি
পরিচিতির কারণসভাপতি, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত বাংলাদেশ

আল্লামা কাজী নুরুল ইসলাম হাশেমী (জন্ম: ২৮ ডিসেম্বর ১৯২৮ - মৃত্যু: ২ জুন ২০২০) বাংলাদেশের একজন ইসলামি শিক্ষাবিদ, আলেম ও ধর্মপ্রচারক।[১] তিনি আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সভাপতি ছিলেন।[২] তিনি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রেসিডিয়াম সদস্য ছিলেন।[৩] এছাড়াও বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র সেনা প্রতিষ্ঠায় তার ভূমিকা ছিলো।[৪][৫] তিনি বটতল আহসানুল উলুম জামেয়া গাউসিয়া কামিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে অবস্থান করেছিলেন, এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন মাদ্রাসায় রাজাকারদের ক্যাম্প তৈরি করতে বাধাপ্রদান করেছিলেন।[৬]

জন্ম ও পরিচয়[সম্পাদনা]

নুরুল ইসলাম হাশেমী ১৯২৮ সালের ২৯ শে ডিসেম্বর সেই সময়ের পাঁচলাইশ থানার কুলগাঁও গ্রামের হাশেমী বংশের এক মুসলিম কাজী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম শাহ সুফি কাজী আহসানুজ্জামান হাশেমী।[৭] এবং নুরুল ইসলামের মাতা ছিলো চট্টগ্রাম শাহী জামে মসজিদের খতিব আল্লামা সাফিউর রহমানের কন্যা। প্রচলিত আছে, এই হাশেমি বংশ মুঘল আমলে তুরস্ক থেকে এসেছে, এবং বংশের ধারা ইমাম হোসেনের বংশধরের সাথে মিলিত হয়েছে।[৮]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

নুরুল ইসলাম হাশেমী ছোট বেলায় মাত্র ৬ বছর বয়সে কুরআন শরীফ মুখস্থ করেছিলেন। বাল্যকালে ঘরে থাকতেই উর্দু, ফারসি ও আরবি আয়ত্ত করেছিলেন। প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষা সম্পন্ন করে তিনি ওয়াজেদিয়া আলিয়া মাদ্রাসায় ভর্তি হন। এই মাদ্রাসায় ১৯৪৫ সালে পঞ্চম শ্রেণীর বোর্ড পরীক্ষায় স্বর্ণপদক পেয়েছিলেন। এই মাদ্রাসা থেকেই তিনি ১৯৪৯ সালে জামাতে উলা শেষ করেন। এখানে তিনি মুসা মুজাদ্দেদীর নিকট আরবি ভাষা শিখেছিলেন।

জামাতে উলা পাশ করার পরে তিনি ওয়াজিদিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা শুরু করেন, এক বছর শিক্ষকতা করার পরে তিনি ১৯৫১ সালে ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসায় টাইটেল ক্লাসে হাদিস বিভাগে ভর্তি হোন। এসময় তিনি সৈয়দ আমীমুল এহসানআবদুর রহমান কাশগরির নিকট শিক্ষা লাভ করেছেন। আমীমুল এহসান তাকে নাইলুল মুরাম বি-আসানিদ আউস শাইখ নুরুল ইসলাম নামে একটি সনদ প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি মুহাম্মদ শফি ফিরিঙ্গি ও মাওলানা মমতাজউদ্দিনের নিকট জ্ঞানচর্চা করেছেন।

পাশাপাশি তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উর্দু বিষয়ে সান্ধ্যকালীন ডিপ্লোমা কোর্স সম্পন্ন করেন। এছাড়াও তিনি জাফর আহমেদ ওসমানি, মাওলানা আজিজুর রহমান ও আন্দালীব সাদানীর নিকট বিভিন্ন বিষয় শিখেছিলেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি চট্টগ্রামের ওয়াজিদিয়া আলিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষক হিসাবে কর্মজীবন শুরু করেন। এছাড়াও তিনি পটিয়ার শাহচান্দ আউলিয়া আলিয়া মাদ্রাসা, ষোলশহরের জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসা, হাটহাজারীর ওদুদিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসাতে শিক্ষক হিসাবে কর্মরত ছিলেন। নুরুল ইসলাম ১৯৬৪ সালে একটি ইসলামি আধ্যাত্মিক শিক্ষাকেন্দ্র ও একটি মসজিদ নির্মাণ করেন। তিনি এই প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ও পীর ছিলেন।[৯]

তার কিছু উল্লেখযোগ্য শিক্ষার্থী:

  • ওবায়দুল হক নঈমী - শায়খুল হাদিস, জামিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসা, চট্টগ্রাম।
  • আজিজুল হক আল কাদেরী, প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ, সিপাতলী আলিয়া মাদ্রাসা।
  • মুফতি ইনামুল হক, অধ্যক্ষ, ওয়াজিদিয়া আলিয়া মাদ্রাসা
  • আল্লামা মুফতি আহমেদ নাজির, মুহাদ্দিস, আহসানুল উলুম আলিয়া মাদ্রাসা।
  • আল্লামা আবদুস সাত্তার আনোয়ারী, অধ্যক্ষ, ওয়াজিদিয়া আলিয়া মাদ্রাসা।
  • আল্লামা মুহাম্মদ আবদুর রব চিশতী, পীর, বদরপুর দরবার শরীফ, ঢাকা।
  • আল্লামা জাফর আহমেদ সিদ্দিকী, প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ, বুড়িশ্চর জিয়াউল উলুম মাদ্রাসা।
  • মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ অছিউর রহমান আল ক্বাদেরী, সাবেক অধ্যক্ষ, জামিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসা।

তিনি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রেসিডিয়াম সদস্য ছিলেন। এছাড়াও তিনি আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সভাপতি, জাতীয় ঈদে মীলাদুন্নবী পর্যবেক্ষণ আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিলেন। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র সেনা প্রতিষ্ঠায় তার ভূমিকা ছিলো। তিনি মাজার সংস্কৃতির বিরোধিতা করতেন। তিনি বিভিন্ন দেশ ভ্রমনসহ ৮ বার হজ্ব করেছেন। তিনি ১৯৮৯ সালে প্রথমবার সৌদি আরব সফর করেন। ১৯৯৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সুন্নি সম্প্রদায়ের আমন্ত্রণে কয়েকটি রাজ্য ভ্রমন ও বক্তৃতা প্রদান করেন।

তিনি তার পিতা মাওলানা কাজী মোহাম্মদ আহসানুজ্জামান হাশেমী নিকট হতে পীরের খেলাফত অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি শাহ আহমদ উল্লাহ মাইজভাণ্ডারী পীর মুর্শিদও ছিলেন।

লিখিত অবদান[সম্পাদনা]

নুরুল ইসলাম একজন লেখক ছিলেন, ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ের উপর বই রচনা করেছেন।

  • নসিহাতুত তালিবিন
  • যাদুল মুসলিমিন
  • আকাঈদ-ই-বাতিল
  • সত্যের আহবান
  • আদদুররুদ দালায়িল বেকেরাহতিল জামাতি ফিন নওয়াফিল
  • আল আরবাইন ফি মুহিম্মাতিদ দ্বীনি
  • মিরাজুল মুমিনিন
  • মুসলমানদের সম্বল পরহেজগারদের দিশারী
  • ঈদে মীলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কেনো?
  • নুরে মোস্তফা
  • আল্লামা এহসানুজ্জামান হাশেমী (র:) এর জীবনী গ্রন্থ
  • শাজরাতুজ জাহাব
  • দোয়ার ভান্ডার
  • তাজকেরাতুল কেরাম
  • ওয়াজিফায়ে হাশেমীয়া।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

নুরুল ইসলাম হাশেমী ২০২০ সালের ২ জুন মৃত্যুবরণ করেন। তাকে চট্টগ্রাম হাশেমীয়া দরবার শরীফের কবরস্থানে দাফন করা হয়।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Azadi, Dainik (২০২২-০৫-২৫)। "শতাব্দীর মহাজাগরণের প্রতীক আল্লামা ইমাম হাশেমী (রহ.)"দৈনিক আজাদী (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  2. "আহলে সুন্নাত নেতা নুরুল ইসলাম হাশেমী মারা গেছেন"Jugantor (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  3. "ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা কাযী নুরুল ইসলাম হাশেমী (রহঃ)"i pipasa.com-আই পিপাসা.কম (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  4. "আল্লামা নুরুল ইসলাম হাশেমী আর নেই"banglanews24.com। ২০২০-০৬-০২। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  5. খান, আলতাফ হোসেন হৃদয়। "সুন্নীয়তের রণাঙ্গনে অপরিসীম ভূমিকা রেখেছেন ইমাম আল্লামা হাশেমী (রহ.)"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  6. বাঙালি, সিরু (২০১৯)। বাঙ্গাল কেন যুদ্ধে গেল। ঢাকা: আদিগন্ত প্রকাশন। পৃষ্ঠা ২৮৭। আইএসবিএন 9789848151259 
  7. দিগন্ত, Daily Nayadiganta-নয়া। "আহলে সুন্নাতের চেয়ারম্যান আল্লামা নুরুল ইসলাম হাশেমীর ইন্তেকাল"Daily Nayadiganta (নয়া দিগন্ত)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  8. "আল্লামা নুরুল ইসলাম হাশেমি : একজন রাসুল প্রেমিকের বিদায়"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  9. "আল্লামা নুরুল ইসলাম হাশেমী আর নেই | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। ২০২০-০৬-০২। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১ 
  10. "আল্লামা নুরুল ইসলাম হাশেমীর ইন্তেকাল"Daily Manobkantha। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৯-১১