নিষিদ্ধ পল্লি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

নিষিদ্ধ পল্লি বা লালবাতি এলাকা (ইংরেজি: "red-light district", রেড-লাইট ডিস্ট্রিক্ট) বলতে সেই অঞ্চলকে বোঝায় যেখানে যৌনশিল্প (যেমন সেক্স শপ, স্ট্রিপ ক্লাব বা অ্যাডাল্ট থিয়েটার ইত্যাদি) সংক্রান্ত বাণিজ্যের অস্তিত্ব বিদ্যমান। কোনো কোনো নিষিদ্ধ পল্লিতে যৌনকর্মীরা বৈধভাবে অবস্থান করে; কিন্তু অন্যান্য লালবাতি এলাকাগুলি তাদের বেআইনি পেশার কার্যকলাপের জন্য কুখ্যাত। ১৮৯৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিলওয়াউকির সংবাদপত্র দ্য সেন্টিনাল-এ প্রকাশিত একটি নিবন্ধে "রেড-লাইট ডিস্ট্রিক্ট" ("red-light district") শব্দটি প্রথম ব্যবহৃত হয়। ১৮৯০-এর দশকে সমগ্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বহু ক্ষেত্রে এই শব্দটি ব্যবহৃত হয়েছিল।

মনে করা হয় "রেড লাইট" বা "লালবাতি" কথাটির উৎস রেলওয়ে কর্মচারীদের লাল লণ্ঠন। এই লণ্ঠন তারা বেশ্যালয়ে প্রবেশের আগে বাইরে রেখে যেত, যাতে ট্রেন চলাচল সংক্রান্ত যে কোনও প্রয়োজনে তাদের সহজে খুঁজে পাওয়া যায়। অন্যমতে, প্রাচীন চীনে পতিতালয়ের বাইরে ঝুলিয়ে রাখা যৌনোদ্দীপক লাল রঙের কাগুজে লণ্ঠন থেকে এই শব্দের উৎপত্তি। বহু সহস্রাব্দ ধরে লাল রঙটি দেহব্যবসার সঙ্গে জড়িত; বাইবেলের একটি কাহিনিতে দেখা যায়, রাহাব নামে জেরিকোর এক পতিতা জোশুয়ার গুপ্তচর মদত দিয়েছিল এবং নগর দখলের পর লুণ্ঠনের সময় তারা যাতে সহজের রাহাবের বাড়ি চিনতে পারে এবং সেই বাড়িটিকে রেহাই দেয় সেই জন্য সে একটি লাল দড়ি দিয়ে তার বাড়ি চিহ্নিত করে রেখেছিল। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় বেলজিয়ামফ্রান্সের বহু বেশ্যালয়ে নীল ও লাল রঙ দিয়ে যথাক্রমে অফিসারদের ও অন্যান্য পদের লোকেদের ব্যবহৃত বেশ্যালয় চিহ্নিত করা হত।

লালবাতি এলাকার জাপানি নাম আকাসেন (akasen, 赤線)। এই শব্দটির অর্থ "লালরেখা"। তবে শব্দটি ইংরেজি থেকে কৃতঋণ শব্দ নয়। জাপান পুলিশ মানচিত্রে লাল রেখা দিয়ে নিষিদ্ধ পল্লির সীমা নির্ধারণ করত। সেই থেকে এই নামের উৎপত্তি। তারা আওসেন (aosen, 青線) বলেও একটি শব্দ ব্যবহার করত, যার অর্থ ছিল "নীলরেখা"। নীল রেখা দিয়ে তারা বেআইনি কার্যকলাপপ্রবণ অঞ্চলগুলি চিহ্নিত করত। বিভিন্ন সংস্কৃতিতে লালবাতি অঞ্চলকে বিভিন্ন রূপে দেখা যায়, কিন্তু সেগুলি আদতে "বেশ্যাঞ্চল" ("district of prostitutes")-এরই নানা রূপ।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]