বিষয়বস্তুতে চলুন

নায়ার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নায়ার
থমাস ড্যানিয়েল দ্বারা ১৭ এবং ১৮ শতকের মধ্যে পেন্সিল এবং জলরঙে নায়ারের এই চিত্র বানিয়েছিলেন।
উল্লেখযোগ্য জনসংখ্যার অঞ্চল
কেরালা
ভাষা
মালয়ালম,[১] Sanskrit[১]
ধর্ম
হিন্দু

নায়াররা হল ভারতীয় হিন্দু বর্ণের একটি দল। নৃতত্ত্ববিদ ক্যাথলিন গফের মত অনুসারে, নায়ার একটি একক গোষ্ঠী নয় বরং বর্ণের একটি নামকৃত বিভাগ। নায়ারদের মধ্যে বেশ কয়েকটি জাতি এবং অনেকগুলি উপবিভাগ রয়েছে, যাদের সকলেই 'নায়ার' উপাধি বংশপরম্পরায় বহন করেনি। এরা অধুনা ভারতের কেরালা রাজ্যে বসবাস করছে। তাদের অভ্যন্তরীণ বর্ণ আচরণ এবং পদ্ধতিগুলি এলাকার উত্তর এবং দক্ষিণ অংশের অধিবাসীদের থেকে স্পষ্টতই আলাধা।


ঐতিহাসিকভাবে জানা যায় যে নায়াররা থারাবাদ নামক বৃহৎ পারিবারিক সমুহে বাস করত। এই থারাবাদ সমূহ এক সাধারণ মহিলা পূর্বপুরুষের বংশধর। এই পরিবারের একক এবং তাদের অস্বাভাবিক বিবাহের প্রথা ছিল যা এখন আর প্রচলিত নেই। নায়ার বিবাহের প্রথার বিষয়ে গবেষকদের আগ্রহের মূল কারন ছিল দুটি বিশেষ আচারের অস্তিত্ব - প্রাক-বয়ঃসন্ধিকাল থালিকেট্টু কল্যাণম এবং পরবর্তীকালের সম্বন্ধম । কিছু অঞ্চলে বহুবিবাহের অনুশীলনও হয়। কিছু নায়ার মহিলা মালাবার অঞ্চলের নাম্বুদিরি ব্রাহ্মণদের সাথে অতিবিবাহও করতেন।

নায়াররা ঐতিহাসিকভাবে এই অঞ্চলে সামরিক সংঘাতে জড়িত ছিল। ১৮০৯ সালে নায়ার এবং ব্রিটিশদের মধ্যে শত্রুতার পর, ব্রিটিশরা ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীতে নায়ারের অংশগ্রহণ সীমিত করে। ভারতের স্বাধীনতার পর, ত্রাভাঙ্কোর রাজ্য বাহিনীর নায়ার সেনাদল ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেয় এবং ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রাচীনতম সেনাদল, মাদ্রাজ রেজিমেন্টের নবম ব্যাটালিয়নের একটি অংশ হয়ে ওঠে।

নায়ার পরিবারগুলি বংশের অভিভাবক হিসাবে সর্পকে পূজা করে। সাপের উপাসনা, একটি দ্রাবিড় প্রথা। [২] এই সর্প পূজা স্থানীয় এলাকায় এতটাই প্রচলিত যে একজন নৃবিজ্ঞানী উল্লেখ করেছেন: "পৃথিবীর কোন অংশেই কেরালার চেয়ে বেশি সাধারণ সাপের পূজা হয় না।" [৩] প্রায় প্রতিটি নায়ার পরিবারের বাড়ির উঠোনের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে সাপের ঢিবি দেখা যায়। [৪]

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. Goody 1975, পৃ. 132।
  2. K. Balachandran Nayar (১৯৭৪)। In quest of Kerala। Accent Publications। পৃষ্ঠা 85। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১১ 
  3. L. A. Krishna Iyer (১৯৬৮)। Social history of Kerala। Book Centre Publications। পৃষ্ঠা 104। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১১ 
  4. K. R. Subramanian; K. R. Subramanian (M.A.) (১৯৮৫)। The origin of Saivism and its history in the Tamil land (Reprinted সংস্করণ)। Asian Educational Services। পৃষ্ঠা 15–। আইএসবিএন 978-81-206-0144-4। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১১