দীপিকা ডেকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ড. দীপিকা ডেকা
চিত্র:দীপিকা ডেকা.jpg
জাতীয়তাভারতীয়
কর্মক্ষেত্রস্ত্রী ও প্রসূতিরোগ
প্রতিষ্ঠানসর্বভারতীয় চিকিৎসা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠান, নতুন দিল্লী
শ্রীমন্ত শঙ্করদেব স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়[১]
প্রাক্তন ছাত্রগুয়াহাটি চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়
পরিচিতির কারণপ্রথম অসমীয়া মহিলা উপাচার্য
স্ত্রী/স্বামীরমেশ চন্দ্র ডেকা

দীপিকা ডেকা (ইংরেজি: Dipika Deka) একজন ভারতীয় চিকিৎসাবিদ এবং অধ্যাপিকা তথা স্ত্রী ও প্রসূতিরোগ বিশেষজ্ঞ।[২] তিনি বর্তমানে নতুন দিল্লীতে অবস্থিত সর্বভারতীয় চিকিৎসা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের স্ত্রী ও প্রসূতিরোগ বিভাগর অধ্যাপিকা। তিনি ২০১৯ সালে স্থাপিত পশ্চিমবঙ্গের কল্যাণীতে অবস্থিত সর্বভারতীয় চিকিৎসা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের প্রথম ব্যবস্থাপক পদে নিযুক্ত হয়েছিলেন।[৩] ২০১৯ সালের ১১ এপ্রিল তারিখে তিনিআসামের গুয়াহাটির শ্রীমন্ত শঙ্করদেব স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য পদে নিযুক্তি লাভ করেছিলেন। এর মাধ্যমে তিনি প্রথম অসমীয়া নারী উপাচার্যে পরিগণিত হন। ২০২১ সাল ৩১ জানুয়ারি তারিখ পর্যন্ত তিনি শ্রীমন্ত শঙ্করদেব স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্বভার পালন করেছেন। তিনি নতুন দিল্লীর সর্বভারতীয় চিকিৎসা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের প্রথম অসমীয়া ব্যবস্থাপক ড. রমেশ চন্দ্র ডেকার স্ত্রী।[২]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

দীপিকা ডেকা ১৯৭৭ সালে গুয়াহাটি চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় থেকে চিকিৎসাবিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেছিলেন।[২] তিনি এমবিবিএস পরীক্ষায় প্রথম স্থান লাভ করেছিলেন এবং এজন্য তাঁকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়েছিল। ডেকা একটি মহাবিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেছিলেন। তিনি ১৯৮২ সালে স্ত্রী ও প্রসূতি রোগ বিভাগে এমডি অর্জন করেছিলেন।[৪][৫]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৯৯ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ফেলোশিপ ও ২০১০ সালে ভারতীয় চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ থেকে বরিষ্ঠ বিজ্ঞানী ফেলোশিপ অর্জন করেছেন। অধ্যাপক ডেকা ৫টি গ্রন্থ ও ৬০টি অধ্যায় রচনা করেছেন। ১৪১টি আন্তর্জাতিকসহ তাঁর মোট ২৫৫টি গবেষণা পত্র প্রকাশিত হয়েছে।[৬] তার লাভ করা উল্লেখযোগ্য পুরস্কারসমূহ হল:

  • ইমেজিং সায়েন্স পুরস্কার, ১৯৯৫
  • কমলা আচারী পুরস্কার, ২০০০
  • ফগসি রগাম গবেষণা পুরস্কার, ২০০০
  • এস.কে. ভাণ্ডারী স্বর্ণপদক, ২০০২
  • যুব বিজ্ঞানী পুরস্কার, ২০০৪
  • ড. অমরেন্দ্র নাথ দান পুরস্কার, ২০০৬
  • ড. চি.এল. জাভারি পুরস্কার, ২০০৯
  • ড. চি এস ডন পুরস্কার, ২০১০
  • ড. ডি.সি. দত্ত বইয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ ফগসি প্রকাশন পুরস্কার, ২০১০[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Vice Chancellor"। ssuhs.in। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  2. "Eminent Dr Dipika Deka relinquishes SSUHD vice-chancellor post to rejoin AIIMS, Delhi"। medicaldialogues.in। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  3. "Appointment of Director, AIIMS cleared"। indianmandarins.com। ৫ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "Dr Dipika Deka relinquishes Srimanta Sankaradeva University of Health Sciences VC post, rejoins AIIMS Delhi"। nenow.in। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  5. "SSUHS VC Prof. (Dr.) Dipika Deka repatriated to AIIMS, New Delhi"। timesofindia। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  6. "Srimanta Sankaradeva University of Health Sciences VC rejoins AIIMS New Delhi"। sentinelassam। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১