দাওফান্তাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
দাওফান্তাসের Arithmetic বইয়ের ১৬২১ তম সংস্করণের শিরোনাম পাতা, ক্লাউড গ্যাসপার্ড বাচেত দ্য মেজিরিয়াক কর্তৃক লাতিন ভাষায় অনূদিত.

আলেকজান্দ্রিয়ার দাওফেন্তাস (প্রাচীন গ্রিকΔιόφαντος ὁ Ἀλεξανδρεύς; সম্ভবত ২০১২১৫ খ্রিস্টাবের মাঝামাঝি সময়ে জন্মগ্রহণ করেন; ৮৪ বছরের মাথায়, সম্ভবত ২৮৫২৯৯ খ্রিস্টাবের মাঝামাঝি সময়ে মৃত্যুবরণ করেন) আলেকজান্দ্রীয় গ্রিক গণিতবিদ ছিলেন, যিনি Arithmetica নামক বইয়ের সিরিজের রচয়িতা ছিলেন, যার অধিকাংশই এখন বিলুপ্ত। মাঝে মাঝে তাকে "বীজগণিতের জনক" বলা হয়ে থাকে, তাঁর লেখায় বিভিন্ন বীজগাণিতিক সমীকরণসমূহের সমাধান দেওয়া হয়েছে।যখন দাওফেন্তাসের Arithmeticক্লাউড গ্যাসপার্ড বাচেত দ্য মেজিরিয়াক কর্তৃক সংস্করণ পড়েন ,' পিয়ের দ্য ফের্মা সিদ্ধান্ত নেন যে দাওফেন্তাসের বিবেচিত কিছু সমীকরণের কোনো সমাধান নেই, এবং মার্জিনের মধ্যে অবিস্তৃতভাবে টুকে নেন যে "তিনি সত্যিকারের এক চমকপ্রদ প্রমাণ পেয়েছেন", যা বর্তমানে ফের্মার শেষ উপপাদ্য রূপে বিবেচিত।এটি সংখ্যাতত্ত্বকে অত্যন্ত অগ্রগামী করেছে, এবং দাওফান্তীয় সমীকরণ ("দাওফান্তীয় জ্যামিতি") ও দাওফান্তীয় আসন্নতা বিষয়ে শিক্ষা গাণিতিক অনুসন্ধানের ব্যাপক জায়গা দখল করল। দাওফান্তাস আসন্ন সমীকরণকে নির্দেশ করতে παρισότης (parisotes) শব্দটির প্রবর্তন করলেন। [১]

এই শব্দটি লাতিন ভাষায় আসন্নতাকে ব্যাখ্যা করে, এবং আসন্নতাকে ব্যাখ্যা করতে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ;যাকে ফাংশনের সর্বোচ্চ সীমা এবং বক্রতার স্পর্শক পেতে পিয়ের দ্য ফের্মা উন্নয়ন করেন।দাওফান্তাস প্রথম গ্রিক গণিতবিদ ছিলেন যিনি ভগ্নাংশকে সংখ্যা হিসেবে উপলব্ধি করেন; এভাবে তিনি ধনাত্মক বাস্তব সংখ্যাগগুলো সহগ এবং সমাধানের আওতায় আনেন।বর্তমানে, দাওফান্তীয় সমীকরণগুলো সাধারণত অখন্ড সহগবিশিষ্ট বীজগাণিতিক সমীকরণ , যার জন্য সমাধানগুলো অখন্ড চাওয়া হয়।

জীবনী[সম্পাদনা]

দাওফান্তাসের জীবন সম্পর্কে খুব কমই জানা যায়। তিনি রোমান যুগে,সম্ভবত ২০০২১৪ এর মাঝামাঝি থেকে ২৮৪২৯৮ এর মধ্যে,মিশরেরআলেকজান্দ্রিয়ায় বসবাস করতেন।দাওফান্তাসকে ঐতিহাসিকরা বর্ণনা করেছেন হয় গ্রিক হিসেবে,[২] [৩][৪] অথবা অ-গ্রিক,[৫] তবে গ্রিকদের প্রভাবে প্রভাবান্বিত হিসেবে

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Katz, Mikhail G.; Schaps, David; Shnider, Steve (২০১৩)। "The Method of Adequality from Diophantus to Fermat and Beyond"। বিজ্ঞানের দৃষ্টিভঙ্গি ২১ (3)। এআরএক্সআইভি:1210.7750 
  2. Research Machines plc. (২০০৪)। The Hutchinson dictionary of scientific biography। Abingdon, Oxon: Helicon Publishing। পৃ: ৩১২। "দাওফান্তাস (বসবাস আনুমানিক ২৭০-২৮০ খ্রিস্টাব্দ) একজন গ্রিক গণিতবিদ যিনি রৈখিক গাণিতিক সমস্যা সমাধানে বীজগণিতের প্রাথমিক যুগ থেকে উন্নতি করেছেন" 
  3. Boyer, Carl B. (১৯৯১)। "Revival and Decline of Greek Mathematics"। A History of Mathematics (Second সংস্করণ)। John Wiley & Sons, Inc.। পৃ: ১৭৮। আইএসবিএন 0-471-54397-7। "At the beginning of this period, also known as the Later Alexandrian Age, we find the leading Greek algebraist, Diophantus of Alexandria, and toward its close there appeared the last significant Greek geometer, Pappus of Alexandria." 
  4. Cooke, Roger (১৯৯৭)। "The Nature of Mathematics"। The History of Mathematics: A Brief Course। Wiley-Interscience। পৃ: ৭। আইএসবিএন 0-471-18082-3। "Some enlargement in the sphere in which symbols were used occurred in the writings of the third-century Greek mathematician Diophantus of Alexandria, but the same defect was present as in the case of Akkadians." 
  5. H. Hankel (1874, 2nd ed. 1965), Zur Geschichte der Mathematik im Altertum und Mittelalter, Leipzig:

    "Here, in the midst of this sad and barren landscape of the Greek accomplishments in arithmetic, suddenly springs up a man with youthful energy: Diophantus. Where does he come from, where does he go to? Who were his predecessors, who his successors? We do not know. It is all one big riddle. He lived in Alexandria. If a conjecture were permitted, I would say he was not Greek; ... if his writings were not in Greek, no-one would ever think that they were an outgrowth of Greek culture..."