থাই পাঙ্গাশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

থাই পাঙ্গাশ
Pangasianodon hypophthalmus
Iridescent shark.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Chordata
উপপর্ব: Vertebrata
মহাশ্রেণী: Osteichthyes
শ্রেণী: Actinopterygii
বর্গ: Siluriformes
পরিবার: Pangasiidae
গণ: Pangasianodon
প্রজাতি: Pangasianodon hypophthalmus
দ্বিপদী নাম
Pangasianodon hypophthalmus
(Sauvage, 1878)
প্রতিশব্দ

Pangasius sutchi Fowler, 1937[২]
Pangasius pleurotaenia (non Sauvage, 1878)[২]
Pangasius hypophthalmus (Sauvage, 1878)[৩]
Helicophagus hypophthalmus Sauvage, 1878[২]
Pangasius pangasius (non Hamilton1822)[২]

থাই পাঙ্গাশ (বৈজ্ঞানিক নাম: Pangasianodon hypophthalmus) (ইংরেজি: sutchi catfish) হচ্ছে Pangasianodon পরিবারের Pangasiidae গণের একটি স্বাদুপানির মাছ

বর্ণনা[সম্পাদনা]

থাই পাঙ্গাশের আদি নিবাস থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম ও এর পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে।বর্তমানে থাই পাঙ্গাশ চাষাবাদের ক্ষেত্রে একটি জনপ্রিয় নাম।দেশি পাঙ্গাশের তুলনায় এ জাত দ্রুত বৃদ্ধি পায়। এ মাছ সর্বোচ্চ ১০-১২ কেজি ওজনের হয়ে থাকে।আঙ্গুলী পোনা অবস্থায় শরীরের উভয় পাশে লম্বালম্বি কালো দাগ থাকে এবং বয়স বাড়ার সাথেসাথে তা মিলিয়ে যায়।প্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় এই মাছের বর্ণ রুপালি হয়ে থাকে। পৃষ্ঠ ও পুচ্ছ পাখনার বর্ণ ধুসর-কালো অন্যান্য পাখনার বর্ণ লাল-কমলা এবং এই বর্ণ বয়স ও পরিবেশের উপর নির্ভরশীল। আঁশবিহীন এই মাছ প্রচুর চর্বি যুক্তও হয়ে থাকে।

চাষ[সম্পাদনা]

উৎপাদন খরচের তুলনায় আয় প্রায় দ্বিগুণ হওয়ায় অনেকেই এ মাছ চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছে।বর্তমানে দেশে বছরে প্রায় ২ - ৩ লক্ষ মেট্রিক টন থাই পাঙ্গাশ চাষ হচ্ছে।

বিস্তৃতি[সম্পাদনা]

এই প্রজাতির মাছ দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার থাইল্যান্ড, লাওস, কম্বোডিয়া এবং ভিয়েতনাম ও এর পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে পাওয়া যায়। এটি বাংলাদেশে বহিরাগত প্রজাতি হিসেবে বিবেচিত।১৯৮১ সালে থাইল্যান্ড থেকে এ জাত প্রথম বাংলাদেশে আনা হয়।[৪]

খাদ্য[সম্পাদনা]

এদের প্রধান খাদ্য ক্ষুদ্র উদ্ভিদ কণা(ফাইটোপ্লাংকটন) ও প্রাণীকণা(জুপ্লাংকটন)।এছাড়াও ছোট ছোট মাছ,ক্রাস্টেসিয়া,ইনসেক্ট খেয়ে থাকে।

প্রজনন[সম্পাদনা]

এরা ৩-৪ বছর বয়সে প্রাপ্ত বয়স্ক হয়।প্লাবিত নদীতে এমনকি প্লাবন ভূমিতে প্রজনন করে।[৫]

বাংলাদেশে বর্তমান অবস্থা এবং সংরক্ষণ[সম্পাদনা]

আইইউসিএন বাংলাদেশ (২০০০) এর লাল তালিকায় এই প্রজাতিটি অন্তর্ভুক্ত নয়।[৬]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Pangasianodon hypophthalmus"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা। সংস্করণ 2012.2প্রকৃতি সংরক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন। 2011। সংগ্রহের তারিখ 24/10/2012  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. Roberts, T.R. and C. Vidthayanon (1991) Systematic revision of the Asian catfish family Pangasiidae, with biological observations and descriptions of three new species., Proc. Acad. Nat. Sci. Philad. 143:97-144.
  3. Kottelat, M. (2001) Fishes of Laos., WHT Publications Ltd., Colombo 5, Sri Lanka. 198 p.
  4. ="জ্ঞানকোষ"
  5. BDFishbangla
  6. এ কে আতাউর রহমান, গাউছিয়া ওয়াহিদুন্নেছা চৌধুরী (অক্টোবর ২০০৯)। "স্বাদুপানির মাছ"। আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; আবু তৈয়ব, আবু আহমদ; হুমায়ুন কবির, সৈয়দ মোহাম্মদ; আহমাদ, মোনাওয়ার। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ২৩ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ১৬৫–১৬৬। আইএসবিএন 984-30000-0286-0 |আইএসবিএন= এর মান পরীক্ষা করুন: invalid prefix (সাহায্য)