তৌফিক ইমরোজ খালিদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
Toufique Imrose Khalidi.jpg
জন্ম
বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশি ও যুক্তরাজ্য
পেশাসংবাদ ব্যাক্তিত্ব
উল্লেখযোগ্য কৃতিত্ব
প্রধান সম্পাদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
পুরস্কার
ওয়েবসাইটbdnews24.com/profiles/ToufiqueKhalidi/

তৌফিক ইমরোজ খালিদী ২০০৬ সাল থেকে বাংলাদেশি অনলাইন সংবাদমাধ্যম ও সংবাদসংস্থা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক। এ সংবাদ সংস্থাটি তার মালিকানায় রয়েছে। সাংবাদিক, গণমাধ্যম ব্যাক্তিত্ব ও ভাষ্যকার হিসাবে খালিদীর জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পরিচিতি রয়েছে। [১][২][৩][৪][৫][৬]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আগে, খালিদী সম্পাদকীয় ও গণমাধ্যম পরিচালনার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রথম সারির ব্রডশিট পত্রিকায় সাংবাদিকতার অভিজ্ঞতা অর্জন করেন। এছাড়া যুক্তরাজ্যের বিবিসিতে উপস্থাপক, প্রযোজক এবং সম্পাদক পদে কাজ করেন। তিনি ঢাকা এবং লন্ডন, প্যারিস এবং টোকিওর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] সম্প্রচার ও প্রিন্ট ও ডিজিটাল সাংবাদিক হিসাবে তিনি বিদেশে ব্যবসা, রাজনীতি, অর্থনীতি, উন্নয়ন ও অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে বিদেশী বিষয়গুলি নিয়ে শুরুর দিকে কাজ করেন। তিনি বাংলাদেশের পাশাপাশি আন্তর্জাতিকভাবে ধারা ভাষ্যকার হিসেবে পরিচিত। [৭]

খালিদী সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা সমর্থন করেন এবং বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে রাজনৈতিক পক্ষপাতিত্বের বিপরীতে নিরপেক্ষভাবে পরিচালনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ২০১৩ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাশাপাশি বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সাথে বাংলাদেশের নৃতাত্ত্বিক সমাজকে মূলধারা সমাজের সাথে গড়ে তোলার জন্যে দ্বিপাক্ষিক সমর্থন আদায় করেন । [৮][৯][১০]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

খালিদী ডিসেম্বর ২০১৭ সালে 'ডিজিটাল বাংলাদেশ' উন্নয়নে "বিশেষ স্বীকৃতি ও সম্মাননা" হিসেবে জাতীয় আইসিটি পুরস্কার,পুরস্কার অর্জন করেন।

সমালোচনা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের একটি বেসরকারি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছ থেকে চাঁদা চাওয়ার অভিযোগে দুদক তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে এবং একাধিকবার জিজ্ঞাসাবাদ করে। দুদক খালিদীর বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন এবং বিডিনিউজের শেয়ার বিক্রির মাধ্যমে অর্থ গ্রহণ ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনে। ঠিক কী অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করছে, সেটা তার কাছে ‘স্পষ্ট নয়’ বলে খালিদী মন্তব্য করেন। [১১][১২][১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Chakrabarti, Sumon K. (২০১১-০৩-০৩)। "Bangladesh's Microfinance Pioneer Muhammad Yunus Faces a Political Battle to Survive"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  2. Motlagh, Jason (২০১৩-০২-১৯)। "Young Bangladeshis Lead Ongoing Protests Against War Crimes"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  3. Toufique Imrose Khalidi। "Behind the rise of Bangladesh's Hifazat - Features"Al Jazeera English। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  4. "Hello Washington: Student Politics and Violence in Bangladesh"VOA Bangla। ২০১০-০১-১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  5. "Reporting on violence and conflict: regional media conference for South Asia"। ICRC। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  6. "The Rising Bangali"The Hindu। ২০১৩-০৩-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  7. "Toufique Imrose Khalidi"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  8. "Politicking is not media's business: Khalidi"bdnews24.com। ২৩ অক্টোবর ২০১৩। 
  9. "Child Correspondents Join Forces for Children's Causes"UNICEF 
  10. "Hasina, Khaleda greet"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-২০ 
  11. "সুনির্দিষ্ট অভিযোগে খালিদীর বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চলছে: দুদক সচিব"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-২৬ 
  12. প্রতিবেদক, নিজস্ব; ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। "অভিযোগ এখনো স্পষ্ট নয়: তৌফিক ইমরোজ খালিদী"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-২৬ 
  13. "বিডিনিউজ সম্পাদককে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক"NTV Online (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১১-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-২৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]