তিন নদীর মোহনা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
তিন নদীর মোহনা

তিন নদীর মোহনা বাংলাদেশের সিলেট জেলার জকিগঞ্জ উপজেলার একটি দর্শনীয় স্থান। এটি ভারতের মণিপুর থেকে বয়ে আসা বরাক নদী এবং বাংলাদেশের উপরদিয়ে বয়ে যাওয়া সুরমা নদীকুশিয়ারা নদী এর সংযোগস্থলই তিন নদীর মোহনা । স্থানীয়দের মধ্যে এটা তি-গাঙ্গা নামে পরিচিত।[১][২]

অবস্থান[সম্পাদনা]

তিন নদীর মোহন এটা জকিগঞ্জ উপজেলা এর অন্তর্গত বারঠাকুরী ইউনিয়নে অবস্থিত। বারঠাকুরী ও আমলশীদের ঠিক মাঝামাঝি সিলেট-জকিগঞ্জ মেইন সড়কের পাশে একটা বাঁকের দক্ষিণমুখী রাস্তায় সোজা 'তিন নদীর মোহনা। 'মনোমুগ্ধকর হিমশীতল হাওয়ার সাথে এক অপরূপ দৃশ্য আপনার মনকে জুড়িয়ে দিবে। বিঃদ্রঃ এর পাশ ঘেষেই আছে ঐতিহাসিক বারঠাকুরী গায়বী দীঘি[৩]

বরাক[সম্পাদনা]

বরাক নদীটি ভারতের মণিপুর রাজ্যের কাছার পর্বতে উৎপন্ন হয়ে মণিপুর, আসাম, মিজোরামের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে অমলসিধের কাছে সুরমাকুশিয়ারা নামে দুটি ভাগে বিভক্ত হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। অমলসিধ থেকে সুরমা প্রায় ২৮ কিলোমিটার এবং কুশিয়ারা কিলোমিটার সীমান্ত নদী হিসাবে প্রবাহিত। বরাকের উজানের অংশটি ভারতের আসাম ও মনিপুর রাজ্যে বিস্তৃত। আর এর ভাটির প্লাবন সমভূমি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "তিন নদীর মোহনায়"সমকাল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-০৪ 
  2. BanglaNews24.com। "এবার সুরমার উৎসমুখে বাঁধ"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-০৪ 
  3. "জকিগঞ্জ উপজেলা : তিন নদীর মোহনা"http (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-০৪