ডি. এস. সেনানায়েক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ডি. এস. সেনানায়েক

ডন স্টিফেন সেনানায়েক (সিংহলঃ දොන් ස්ටීවන් සේනානායක ; তামিলঃ டி. எஸ். சேனநாயக்கா ; ইংরেজীঃ D. S. Senanayake[১] ; ২১ অক্টোবর ১৮৮৩ - ২২ মার্চ ১৯৫২) ছিলেন একজন শ্রীলঙ্কান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। তিনি ছিলেন শ্রীলঙ্কার প্রথম প্রধানমন্ত্রী যার নেতৃত্বে শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতা আন্দোলন সংঘটিত হয়। তাকে শ্রীলঙ্কার জাতির জনক বা জাতির পিতা বলা হয়ে থাকে।

একজন পরিকল্পক, সেনানায়েক শ্রীলঙ্কার গৃহযুদ্ধ কে শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতা আন্দোলনে পরিণত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি সিলনের (বর্তমান শ্রীলঙ্কা) আইন পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন এবং পরবর্তীতে সিলনের (বর্তমান শ্রীলঙ্কা) রাজ্য পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন, যেখানে তিনি কৃষি ও ভূমি মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি শ্রীলঙ্কার প্রথম সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হন এবং ১৯৪৭ সাল থেকে ১৯৫৫ সালে তার মৃত্যু পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

জন্ম ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

সেনানায়েকের পরিবার

১৮৮৩ সালের ২১ অক্টোবর হ্যাপিটিগাম কোরালের (বর্তমানে মিরগামা নামে পরিচিত) বোটালে গ্রামে ডন স্পাটার সেনানায়েকে[২] (১৮৪৭ - ১৯০৭) এবং দোনা ক্যাথরিনা এলিজাবেথ পেরেরা গুনাসেকেরা সেনানায়েকের (১৮৫২ - ১৯৪২) সন্তান ডি. এস. সেনানায়েক জন্মগ্রহণ করেন। স্প্যান্টার সেনানায়েকে গ্রাফাইট খনিতে উচ্চপদে কাজ করতেন এবং সেই সময় তিনি ফ্রাঞ্চাইজির খাজনা ও বিনিয়োগে বিনিয়োগের সময় বৃদ্ধি করেছিলেন এবং পরবর্তীতে তাকে তার দাতব্য প্রতিষ্ঠানের জন্য মুদালিয়র উপাধি প্রদান করা হয়। স্টিফেন সেনানায়েকের দুই বড় ভাই ছিল, ডন চার্লস সেনানায়েকে এবং ফ্রেড্রিক রিচার্ড সেনানায়েকে[৩] এবং একজন বোন মারিয়া ফ্রান্সেস সেনানায়েকে বিয়ে করেছিলেন এফ. এইচ. দিয়াস বান্দারানায়েক কে।

একটি ধার্মিক বৌদ্ধ পরিবারের মধ্যে বড় হয়েছেন সেনানায়েকে, মাতোয়ালের মর্যাদাপূর্ণ অ্যাংলিকান স্কুল এস থমাস কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। পড়াশুনার মধ্যে নিজেকে খুব কুমই রাখতেন তিনি। ক্রিকেটে পারদর্শিতা ছিলো এবং রয়েল-থোমিয়ান[৪] ম্যাচে কলেজের হয়ে ক্রিকেট খেলেছেন। পরে তিনি সিংহলি স্পোর্টস ক্লাব[৫] এবং নন্দস্ক্রিপ্ট ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে ক্রিকেট খেলেছিলেন। ডি. আর. উইজার্ভেন্দানা[৬], স্যার পল পিয়েরস[৭], স্যার আর্থার উইজার্দেন্ডা[৮] এবং স্যার ফ্রান্সিস মোলামুররা[৯] তার সমকালীন ছিলেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

স্কুলে পড়া শেষ করার পর তিনি সার্ভেয়ার জেনারেল বিভাগে ক্লার্ক হিসাবে কাজ শুরু করেন। কিন্তু কিছু দিন পরেই তা ছেড়ে দিয়ে তিনি তার ভাই ডি. সি. সেনানায়েকের সাথে যোগ দেন পিতৃপুরুষদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে। তিনি একটি রোপনকারী হিসেবে কাজ করেন, যার ফলে নতুন বাণিজ্যিক ফসল রোপণের জন্য পরিবার গাছপালা চালু করা হয়। তিনি কাহতাগাহ গ্রাফাইট খনি পরিচালিত করেন যা তার ভাই এফ। সেন সেনায়েকের পরিবারের মালিকানাধীন ছিল। এফ। সেনানায়েকে মুডালিয়র ডন চার্লস জ্যামরিস আটিগালের ছোট্ট মেয়েকে বিয়ে করেছিলেন। তিনি লো-কান্ট্রি প্রোডাক্ট অ্যাসোসিয়েশন ও ওরিয়েন্ট ক্লাবের সদস্য ছিলেন। 1914 সালে, তিনি গ্রাফাইট খনির শিল্পে অধ্যয়ন ও প্রতিবেদন করার জন্য মাদাগাস্কারে পাঠানো একটি সরকারি কমিশনের সদস্য হিসাবে নিযুক্ত হন।


  1. "D. S. Senanayake"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৬-৩০। 
  2. "Don Spater Senanayake"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৯-১২। 
  3. "Fredrick Richard Senanayake"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৪-২৭। 
  4. "Royal–Thomian"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৩-১০। 
  5. "Singhalese Sports Club"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৩-১২। 
  6. "D. R. Wijewardena"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৫-২২। 
  7. "Paul Pieris"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৮-২২। 
  8. "Arthur Wijewardena"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৬-১০। 
  9. "Alexander Francis Molamure"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৬-০৭।