ডার্ক ওয়েব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ডার্ক ওয়েব হল ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের একটি উপাদান যা ডার্ক নেটে বিদ্যমান। এটি পাবলিক ইন্টারনেট ব্যবহারকারী একধরনের লুকায়িত নেটওয়ার্ক । এতে প্রবেশ করতে নির্দিষ্ট সফটওয়্যার, কনফিগারেশন বা অনুমোদনের প্রয়োজন হয়। [১][২] ডার্ক ওয়েব মূলত ডিপ ওয়েবের একটি অংশ। এই অংশে সাধারন সার্চ ইঞ্জিন প্রবেশ করতে পারে না। যদিও কখনও কখনও ভুল করে "ডিপ ওয়েব" শব্দটি ডার্ক ওয়েবকে বোঝাতে ব্যবহার করা হয়। [৩][৪][৫][৬][৭]

ডার্ক ওয়েবকে গঠনকারী ডার্কনেটে থাকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ফ্রেন্ড-টু-ফ্রেন্ড, পিয়ার-টু-পিয়ার নেটওয়ার্ক, সেইসাথে থাকে ফ্রিনেট, আইটুপি ও টরের মতো বড় বড় নেটওয়ার্ক, এবং এসব নেটওয়ার্ক পরিচালিত হয় পাবলিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিদের দ্বারা। ডার্ক ওয়েব ব্যবহারকারীরা তাদের এনক্রিপশনবিহীন প্রকৃতির কারনে সাধারন ওয়েবে ক্লিয়ারনেট হিসাবে পরিচিত। [৮] টর নেটওয়ার্ক অনিয়ন ল্যান্ড হিসাবেও পরিচিত,[৯] এর কারন ডিপ ওয়েবের একটি উচ্চ পর্যায়ের ডোমেইন সাফিক্স ডট অনিয়ন এবং নিজেকে আড়াল করে ইন্টারনেট ব্যবহার করার পদ্ধতি অনিয়ন রাউটিং।

পরিভাষা[সম্পাদনা]

ডার্ক ওয়েবকে প্রায়ই ডিপ ওয়েব ভেবে বিভ্রান্ত হতে হয়, যে অংশ সার্চ ইঞ্জিন দিয়ে অনুসন্ধান করা যায় না। এই বিভ্রান্তি কমপক্ষে ২০০৯ পর্যন্ত ছিল।[১০] তারপর থেকে, বিশেষ ভাবে সিল্ক রোডের উপর প্রতিবেদনের পর, দুটি বিষয়ই গুলিয়ে ফেলাহয়েছিল,[১১][১২][১৩] সুপারিশ সত্ত্বেও যে তারা আলাদা বিষয়। [৫][১৪][১৫][১৬]

সংজ্ঞা[সম্পাদনা]

ডার্কনেট ওয়েবসাইট গুলো শুধুমাত্র কিছু নির্দিষ্ট নেটওয়ার্ক যেমন টর ("অনিয়ন রাউটার") এবং আইটুপি ("অদৃশ্য ইন্টারনেট প্রজেক্ট")। [১৭] টর ব্রাউজার এবং টর-অ্যাক্সেসযোগ্য সাইটগুলো ডার্কনেট ব্যবহারকারীদের দ্বারা ব্যাপক ভাবে ব্যবহারিত হয় এবং যা ".onion" ডোমেইন দ্বারা সনাক্ত করা সম্ভব। [১৮] টর ব্যবহারকারীদের অজ্ঞাতপরিচয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করার সুযোগ প্রদানের উপর গুরুত্ব প্রদান করে এবং আইটুপি অজ্ঞাতপরিচয়ে ডার্কনেটে ওয়েবসাইট হোস্টিং এর উপর গুরুত্ব দেয়। [১৯] ডার্কনেট ব্যবহারকারীদের পরিচয় এবং অবস্থান স্তরবিশিষ্ট এনক্রিপশন সিস্টেমের কারনে নির্ণয় করা সম্ভব নয়। ডার্কনেট এনক্রিপশন প্রযুক্তি তথ্যকে বড় সংখ্যক মাধ্যমিক সার্ভারের মধ্য দিয়ে যায়, যা ব্যবহারকারীর পরিচয় গোপনের সুরক্ষা প্রদান করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় নিশ্চিতা দেয়। প্রেরিত তথ্য শুধুমাত্র পরিকল্পনাতে একটি পরবর্তী নোডের মাধ্যমে ডিক্রিপ্ট করা যায় যা প্রস্থান নোডের দিকে যায়। একটি জটিল সিস্টেম নোড পুনর্গঠন এবং লেয়ার বাই লেয়ার মেনে চলে তথ্য ডিক্রিপ্ট করা প্রায় অসম্ভব করে তোলে। [২০] উচ্চ স্তরের এনক্রিপশনের কারনে ওয়েবসাইট ব্যবহারকারীর আইপি এবং ভূঅবস্থান ট্র্যাক করতে সক্ষম হয় না এবং ব্যবহারকারীও হোস্টের ক্ষেত্রে একই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যেতে হয়। এইভাবেই ডার্কনেট ব্যবহারকারীদের মধ্যকার যোগাযোগ যেমন কথা বলা, ব্লগিং এবং ফাইল আদান প্রদান অত্যন্ত নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তার সাথে সম্পন্ন করা হয়। [২১]

ডার্কনেট বিভিন্ন অবৈধ কার্যকলাপ যেমন অবৈধ বাণিজ্য, ফোরাম, পেডোপিলিসদের (একজন ব্যক্তি যিনি শিশুদের প্রতি যৌন আকৃষ্ট হন) জন্য মিডিয়া বিনিময় এবং সন্ত্রাসীদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাতেও ব্যবহার করা হয়। [২২]

একই সময়ে, কিছু প্রথাগত ওয়েবসাইট টর ব্রাউজারের জন্য বিকল্প প্রবেশপথ তৈরি করে, এর মাধ্যমে ডার্কনেটের ব্যবহারকারীদের সঙ্গে সংযুক্ত হওয়া যায়। যেমন, প্রোপাব্লিকা নামে একটি সংবাদপত্র টর ব্যবহারকারীদের জন্য তাদের ওয়েবসাইটের একটি নতুন সংস্করণ চালু করে। [২৩]

কন্টেন্ট[সম্পাদনা]

জানুয়ারি ২০১৫ এ ওয়েব নির্ভর লুকায়িত সেবাসমূহ[২৪]
বিভাগ শতকরা হার
গাম্বলিং
০.৪
বন্দুক
১.৪
চ্যাট
২.২
নতুন
(এখনো ইনডেক্স করা হয়নি)
২.২
নির্যাতন
২.২
বই
২.৫
ডিরেক্টরি
২.৫
ব্লগ
২.৭৫
পর্ণ
২.৭৫
সেবা
৩.৫
হ্যাকিং
৪.২৫
সার্চ
৪.২৫
নামহীনতা
৪.৫
ফোরাম
৪.৭৫
নকল
৫.২
ফাঁস
৫.২
উইকি
৫.২
মেইল
৫.৭
বিটকয়েন
৬.২
প্রতারণা
মার্কেট
মাদক
১৫.৪
ফেব্রুয়ারি ২০১৬ এ ওয়েব নির্ভর লুকায়িত সেবাসমূহ[২৫][২৬]
বিভাগ শতকরা হার
সহিংসতা
০.৩
অস্ত্র
০.৩
সামাজিক
১.২
হ্যাকিং
১.৪
অবৈধ পর্নোগ্রাফি
২.৩
যোগসূত্র
২.৩
চরমপন্থা
২.৭
অজানা
৩.০
অন্যান্য অবৈধ
৩.৮
ফাইন্যান্স
৬.৩
মাদক
৮.১
অন্যান্য
১৯.৬
কোনটি না
৪৭.৭

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পোর্টসমাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্যারেথ ওয়েনের একটি গবেষণা থেকে পাওয়া যায় যে, টর নেটওয়ার্কে সবচাইতে বেশি অনুরোধকৃত বিষয় ছিল শিশু পর্নোগ্রাফি, কালো বাজারকে অনুসরন করে, যেখানে অন্যান্য পৃথক সাইটে সর্বোচ্চ ট্রাফিক ছিল বটনেট অপারেশন বিষয়ক (সংযুক্ত মেট্রিক দেখুন)।[২৭] অনেক গোপন তথ্য ফাঁসকারী সাইট তাদের উপস্থিতি বজায় রাখে [২৮] পাশাপাশি রয়েছে রাজনৈতিক আলোচনার ফোরাম। [২৯] বিটকয়েন, জালিয়াতি সম্পর্কিত সেবা এবং মেইল অর্ডার সেবা সবচেয়ে লাভজনক থাকে। [২৭] বিতর্কিত বিষয়বস্তুর প্রবণতা মোকাবেলায়, শিল্পীদের যৌথ উদ্যোগে সাইবারটুই একটি অনিয়ন সাইটে বেক সেলের আয়োজন করে।[৩০]

ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তে ঘটে যাওয়া আরো একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় কিংস কলেজ লন্ডন এর গবেষকরা থেকে নিম্নলিখিত ব্রেক ডাউন দেয় বিকল্প বিভাগ সেটের মাধ্যমে, যা .onion সেবার অবৈধ সেবা সমূহ তুলে ধরেঃ [৩১][৩২]

বটনেট [সম্পাদনা]

বটনেট প্রায়ই গঠন করা হয় তাদের কমান্ড ও কন্ট্রোল সার্ভারের সঙ্গে, যা সেন্সরশিপ-প্রতিরোধী লুকানো সেবার উপর নির্ভর করে, বৃহৎ পরিমাণে বট-সম্পর্কিত ট্রাফিক তৈরি করার মাধ্যমে। [২৭][৩৩]

বিটকয়েন সেবা[সম্পাদনা]

টাম্বলারের মতো বিটকয়েন সেবা প্রায়ই টরে পাওয়া যায়, এবং কিছু – যেমন, গ্রামস – ডার্কনেট বাজার একত্রিকরণে প্রস্তাব করে। [৩৪][৩৫] ইসসেক বিজনেস স্কুলের গবেষণা সহকর্মী জিন-লোউপ রিচেট এর মাধ্যমে গৃহীত জাতিসংঘের মাদক ও অপরাধ অফিসের অনুমোদন প্রাপ্ত একটি গবেষণায়, মানিলন্ডারিং করার উদ্দেশ্যে বিটকয়েন টাম্বলারের নতুন প্রবণতাগুলো তুলে ধরা হয়েছে। ডিজিটাল টাকা এক্সচেঞ্জার ব্যবহারের এর সাধারন একটি উদ্যোগ বিটকয়েনকে অনলাইন গেম কারেন্সিতে রুপান্তর করে (যেমন ওয়ার্ল্ড অফ ওয়্যারক্রাফটে স্বর্ণের মুদ্রা) যা পরবর্তীতে আবার টাকায় রূপান্তরিত হবে। [৩৬][৩৭] ডার্ক ওয়েবে বিটকয়েন এবং এর অনুরূপ সেবা সমুহের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হলো তাদের এনক্রিপশন নীতি, যা একবিংশ শতাব্দীতে উদার গণতন্ত্রের মূল্যবোধের একটি পরীক্ষা হয়ে দাঁড়িয়েছে। [৩৮]

ডার্কনেট মার্কেট[সম্পাদনা]

বাণিজ্যিক ডার্কনেট মার্কেট, যা অবৈধ ওষুধের মধ্যস্থতা লেনদেনের জন্য[৩৯] এবং অন্যান্য পণ্য যা উল্লেখযোগ্য মিডিয়া কভারেজ পেয়ে সিল্ক রোড এবং ডায়াবোলাস বাজার এর জনপ্রিয়তার সঙ্গে শুরু হয়েছিলো। [৪০] তা পরবর্তীতে আইনি কর্তৃপক্ষ দ্বারা বাজেয়াপ্ত করা হয়। [৪১] অন্যান্য বাজারে বিক্রি সফটওয়্যার কীর্তিকলাপ[৪২] এবং অস্ত্র বিক্রি করা হয়। [৪৩] ডার্ক ওয়েব বাজারের পণ্যের দাম বনাম বাস্তব জীবনের বাজারে বা ওভার ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের বাজারের পণ্যের দামের তুলনা করা, সেইসাথে পণ্যের মানের উপর গবেষণা করার জন্য একটি পরীক্ষা চালানো হয়। এরকম একটি গবেষণা চালানো হয়েছিলো সেসব অবৈধ বাজারে প্রাপ্ত অবৈধ ওষুধের মানের উপর, তখনকার অত্যন্ত জনপ্রিয় ক্রাইপ্টোমার্কেট যা জানুয়ারি ২০১৪ থেকে মার্চ ২০১৫ পর্যন্ত। [৪৪] বিশ্লেষণাত্মক ফলাফলের একটি উদাহরণে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে যে, ডিজিটাল তথ্য যেমন গোপনীয়তার পদ্ধতি এবং দেশে অনুযায়ী রপ্তানি সঠিক দেখায়, কিন্তু অবৈধ ওষুধের বিশুদ্ধতা পরীক্ষা দেখতে গিয়ে দেখা যায়, ওষুধের তথ্য তাদের তালিকায় দেয়া তথ্য থেকে ভিন্ন। [৪৪] এইসব মার্কেটে ভোক্তার প্রবেশ নিয়ে প্রেরণা প্রাপ্তি এবং এ সম্পর্কিত অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে অল্প জানা গেছে। [৪৫]

হ্যাকিং গ্রুপ এবং সেবা[সম্পাদনা]

অনেক হ্যাকার তাদের সেবা স্বতন্ত্রভাবে অথবা দলের একটি অংশ হিসেবে বিক্রি করে। [৪৬] এমন গ্রুপের মধ্যে রয়েছে xDedic, hackforum, Trojanforge, Mazafaka, dark0de এবং TheRealDeal ডার্কনেট মার্কেট। [৪৭] কেউ কেউ আবার পেডোপিলিসদের ট্র্যাক এবং তাদের কাছ থেকে জোর পূর্বক আদায় করার জন্য পরিচিত হয়েছে.[৪৮] আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং ব্যাংক সম্পর্কিত সাইবার অপরাধ এবং হ্যাকিং এর সেবাও ডার্ক ওয়েবে পাওয়া যায়। [৪৯] বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের দ্বারা এই সকল কার্যক্রমের উপর নজর রাখার চেষ্টা করা হয়েছে এবং এ পরীক্ষণ সম্পন্ন করার জন্য যেসকল সরঞ্জাম ব্যবহার করা হয়েছে, তার তালিকা প্রসেডিয়া কম্পিউটার সাইন্স জার্নালে পাওয়া যাবে। [৫০] ইন্টারনেট-স্কেল ডিএনএস এর ব্যবহার ডিস্ট্রিবুটেড রিফ্লেকশন ডেনিয়াল অফ সার্ভিস (ডিআরডিওএস) আক্রমন করা হয় ডার্ক ওয়েবকে উপজীব্য করার মাধ্যমে। [৫১] অনেক হ্যাকিং গ্রুপ যেমন, কোডঃগ্রিন হ্যাকারদের যোগ্যতার উপর নির্ভর করে তাদের নিয়োগ দিয়ে থাকে। সেখানে অনেক প্রতারনা মূলক *.onion সাইট রয়েছে যারা সফটওয়্যার ডাউনলোড সুবিধা দিয়ে থাকে, তবে সেসব সফটওয়্যার ট্রোজান হর্স অথবা ব্যাকডোর দ্বারা আক্রান্ত থাকে।

জালিয়াতি সেবা[সম্পাদনা]

সেখানে অনেক কার্ডিং ফোরাম রয়েছে, পেপ্যাল এবং বিটকয়েন ট্রেডিং ওয়েবসাইট গুলোও জালিয়াতি এবং জাল সেবা।[৫২] এইরকম আরও অনেক সাইট আছে যারা স্ক্যাম। [৫৩]

CODE:GREEN qr code
এই ধরণের কিউআর কোড সচেতনতা তৈরি এবং তাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়।

হোক্স এবং অযাচাইকৃত কন্টেন্ট[সম্পাদনা]

সেখানে পেশাদার গুপ্তহত্যাকারী এবং পেশাদার খুনি ভাড়া করার প্রতিবেদন রয়েছে,[৪৩][৫৪] যাইহোক, বিশ্বাস করা হয় যে এ সকল কিছুই একচেটিয়াভাবে স্ক্যাম বা অনুরূপ। [৫৫] সিল্ক রোডের নির্মাতাকে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ইনভেস্টিগেশন (এইচসিআই) গ্রেফতার করে; কারন হিসাবে ছিল তার সাইট এবং ছয় জনকে হত্যা করার জন্য ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে পেশাদার খুনি ভাড়া করা, যা পরবর্তীতে খারিজ করা হয়। [৫৬][৫৭]

লোকমুখে শুনা যায় যে, ডার্ক ওয়েবে প্রকাশ্য হত্যাকারী পাওয়া যায়। "রেড রুম" শব্দটি এসেছে, জাপানি অ্যানিমেশন এবং একই নামের শহুরে কিংবদন্তী থেকে। যাইহোক, প্রমান না থাকার কারনে সবগুলো প্রতিবেদনকে হোক্স বলে মনে করা হচ্ছে। [৫৮]

জুন ২৫, ২০১৫ এ, অবস্কিউর হরর কর্নার নামক একটি চ্যানেল সাদ শয়তান নামক একটি ছম্ছমে ইন্ডি গেমের রিভিউ প্রকাশ করে, তাদের দাবি অনুসারে তারা এটিকে ডার্ক ওয়েবের মাধ্যমেই খুঁজে পেয়েছে। বিভিন্ন অসঙ্গতি থাকার কারনে তাদের প্রতিবেদনকে সন্দেহ করা হয়ে থাকে। [৫৯]

ফিশিং এবং স্ক্যাম[সম্পাদনা]

ক্লোন করা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফিশিং এবং অন্যান্য অসংখ্য স্ক্যাম সাইট আছে,[৬০][৬১] যা ডার্কনেট বাজারে প্রায়ই বিজ্ঞাপনের সঙ্গে প্রতারণাপূর্ণ ইউআরএল হিসাবে পাওয়া যায়। [৬২][৬৩]

পাজল[সম্পাদনা]

পাজল যেমন কিকাডা ৩৩০১ এবং উত্তরসূরিরা মাঝে মাঝে আরো অজ্ঞাতভাবে তথ্য প্রদান করার জন্য লুকানো সেবা ব্যবহার করে, প্রায়ই তাদের নির্মাতাদের নিয়ে ভাবনা-চিন্তা শুরু হয়। [৬৪]

অবৈধ এবং নীতিগত ভাবে বিতর্কিত পর্নোগ্রাফি[সম্পাদনা]

সেখানে শিশু পর্ণোগ্রাফি বিতরণ করা সাইটের বিরুদ্ধে নিয়মিত আইনের প্রয়োগ রয়েছে [৬৫][৬৬] – প্রায়ই সে সাইট এবং ব্যবহারকারীদের মধ্যে ম্যালওয়ার বিতরণ করা হয়। [৬৭][৬৮] সাইটগুলো জটিল সিস্টেম এর গাইড, ফোরাম এবং কমিউনিটি নিয়ন্ত্রণ ব্যবহার করে থাকে। [৬৯] অন্যান্য কনটেন্টের মধ্যে রয়েছে যৌনতাসূচক নির্যাতন ও পশুহত্যা [৭০] এবং প্রতিশোধ মুলক পর্ণ। [৭১]

সন্ত্রাসবাদ[সম্পাদনা]

সেখানে অন্তত কিছু বাস্তব এবং প্রতারণাপূর্ণ ওয়েবসাইট রয়েছে যারা আইএসআইএল দ্বারা ব্যবহারিত হওয়ার দাবি করে, যার মধ্যে অপারেশন অনিমোউস দ্বারা জিম্মি হওয়া একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে। [৭২] নভেম্বর ২০১৫ এ প্যারিস আক্রমণের প্রাক্কালে প্রকৃত সে ধরণের একটি সাইটই গোস্টসেক নামক হ্যাকিং গ্রুপের দ্বারা হ্যাক হয় এবং সাইটটি প্রোজ্যাক এর একটি বিজ্ঞাপন দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়। [৭৩] রাউতি শাক্স ইসলামপন্থী দলকে এক সময় ডার্ক ওয়েব পরিচালনা করতে দেখা যায়। [৭৪]

সামাজিক মাধ্যম[সম্পাদনা]

ডার্ক ওয়েবেও ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের মতো অনুরূপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম রয়েছে। ফেসবুক এবং অন্যান্য কিছু ঐতিহ্যগত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তাদের সেবা অব্যাহত রাখার জন্য এবং তাদের পরিষেবা সব স্থানে সমান ভাবে দেয়ার জন্য তাদের ওয়েবসাইটের ডার্ক ওয়েব ভার্সন তৈরি করছে।[৭৫]

ধারাভাষ্য[সম্পাদনা]

যদিও ডার্ক ওয়েবের বেশির ভাগই ক্ষতি করে না এমন ধরণের, কিন্তু কিছু প্রসিকিউটর এবং সরকারি সংস্থা এটা ভেবে উদ্বিগ্ন যে, অপরাধমূলক কর্মকান্ডের জন্য এটি একটি সর্গ সরূপ আশ্রয়স্থল। [৭৬] ডিপডটওয়েব এবং অল থিংস ভাইসের মতো বিশেষায়িত সংবাদ পত্র ডার্ক ওয়েব [৭৭][৭৮][৭৯] এবং তাদের সেবা সম্পর্কে কাভারেজ এবং ব্যবহারিক তথ্য প্রদান করে। দ্যা হিডেন উইকি এবং এর মিরর এবং লুকানো উইকি এবং ফরকে যেকোন প্রদত্ত সময়ে বিষয়বস্তুর বৃহত্তম ডিরেক্টরি রয়েছে।

.onion সম্বলিত লিঙ্কের জনপ্রিয় উৎসের মধ্যে রয়েছে পেস্টবিন, ইউটিউব, টুইটার, রেডিট এবং অন্যান্য ইন্টারনেট ফোরাম। [৮০] ডার্কসান এবং রেকর্ডেড ফিউচারের মতো বিশেষায়িত কোম্পানি আইন প্রয়োগের উদ্দেশ্যে ডার্ক ওয়েবে ঘটে যাওয়া সাইবার অপরাধের উপর নজর রাখে। [৮১] ২০১৫ তে ঘোষণা করা হয় যে, ইন্টারপোল এক ধরণের বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রদান করে, এতে টর সম্পর্কে টেকনিক্যাল তথ্য দেয়া, সাইবার সিকিউরিটি এবং কৃত্রিম ভাবে ডার্কনেট মার্কেট সরিয়ে ফেলার উপায় শিখানো হয়। [৮২]

২০১৩ এর অক্টোবরে যুক্তরাজ্যের জাতীয় অপরাধ সংস্থা এবং জিসিএইচকিউ সাইবার অপরাধের দিকে দৃষ্টি দেয়ার উদ্দেশ্যে 'জয়েন্ট অপারেশন সেল' এর গঠন ঘোষণা করে। [৮৩] ২০১৫ এর নভেম্বরে এই দলকে শিশু শোষণ এবং ডার্ক নেটে ঘটে যাওয়া অন্যান্য সাইবার অপরাধের মোকাবেলা করার জন্য বলা হবে। [৮৪]

সাংবাদিকতা[সম্পাদনা]

অনেক সতন্ত্র সাংবাদিক, বিকল্প সংবাদ সংস্থা এবং শিক্ষাবিদ অথবা গবেষকরা ডার্কনেট সম্পর্কে বলা এবং লিখার ক্ষেত্রে অনেক প্রভাবশালী হয়ে উঠেছেন, তারা ডার্কনেটকে জনগনের সামনে আর পরিষ্কার করে তুলে ধরছেন।

জেমি বার্টলেট[সম্পাদনা]

জেমি বার্টলেট টেলিগ্রাফের একজন সাংবাদিক এবং টেক ব্লগার এবং তিনি ইউনিভার্সিটি অব সাসেক্স এর সাথে সংযুক্ত সেন্টার ফর দ্য এনালাইসিস অফ সোশ্যাল মিডিয়া ফর ডেমোস এর পরিচালক। তার বই ডার্ক নেট[৮৫] এতে বার্টলেট ডার্কনেট জগত এবং বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে মানুষের আচরনের উপর এর প্রভাব নিয়ে বর্ণনা করেছেন। উদাহরণস্বরূপ, বইটি একজন যুবতীর একটি কাহিনী দিয়ে শুরু করা হয়, সে যুবতী অনলাইনে নগ্ন হওয়ার মাধ্যমে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পেতে চায় এবং আত্ম সম্মান গড়ে তুলতে চায়। ঘটনাচক্রে তাকে পাওয়া যায় সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে, যেখানে তার পরিবার এবং বন্ধুরা তার নগ্ন ছবিতে প্লাবিত হয়ে পড়েছিলো। এই গল্প বিভিন্ন মানবিক আচরণকে তুলে ধরে, যা ডার্কনেট অনুমোদন দেয়।কিন্তু পাঠককে এটাও মনে করিয়ে দেয় কিভাবে ডার্কনেটের মতো আবৃত নেটওয়ার্কে যোগদান করার মাধ্যমে একটি বৃহৎ ওয়েব থেকে আলাদা হয়ে যেতে হয়। বার্টলেট এর প্রধান উদ্দেশ্য হল ডার্কনেট নিয়ে অনুসন্ধান করা এবং সমাজের উপর এর প্রভাব সম্পর্কে জানা। তিনি বিভিন্ন উপ-সংস্কৃতির অনুসন্ধান করেন, যার মধ্যে কিছুর সমাজের প্রতি ইতিবাচক ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে এবং কিছুর নেতিবাচক.[৮৬]

জুন ২০১৫ এ বার্টলেট বিষয়টিকে আরো পরীক্ষা করে একটি টেডটক দেন।[৮৭] তার কথার শিরোনাম দেয়া হয়েছিলো  "কিভাবে রহস্যময় ডার্কনেট যাচ্ছে মূলধারায়", একটি ওয়েবসাইটের উদাহরন দিতে গিয়ে তিনি সিল্ক রোডকে দেখান এবং এটি শ্রোতাদের সামনে ডার্কনেটের পিছনের ধারনাকে তুলে ধরে। তিনি বৃহত্তর বাণিজ্যিক ওয়েবের ভোক্তা সাইট গুলোর সাথে ডার্কওয়েবের সাইট গুলোর ডিজাইনের সাদৃশ্যতা তুলে ধরেন। তারপর তিনি কিভাবে একটি অপারেটিং সিস্টেম অনিশ্চিত হতে পারে, তার উদাহরন দেখান। তিনি বিশ্বাস করেন যে, ডার্কনেটে সেসব উচ্চ ঝুঁকি সম্পন্ন মার্কেট মূলত নতুন প্রযুক্তির জন্ম দেয়, যা ভবিষ্যতে সকল মার্কেটের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা যেতে পারে। যেহেতু তিনি উল্লেখ করেছেন, বিক্রেতারা সবসময়ই পাশাপাশি পৌঁছানো এবং নিজেদের রক্ষা করার জন্য নতুন উপায় ভেবে চলেছে, ফলে ডার্ক নেট হয়ে উঠেছে বিকেন্দ্রীভূত, আরো গ্রাহক বন্ধুত্বপূর্ণ, সমালোচনা করা কঠিন এবং আরো উদ্ভাবনী। যেহেতু আমাদের সমাজ অনলাইনে নিজের গোপনীয়তা বজায় রাখা নিয়ে আরো উপায় খুঁজে চলেছে, সেহেতু ডার্কনেটে ঘটে চলা উপায় গুলো শুধু উদ্ভাবনীই নয়, কিন্তু বাণিজ্যিক অনলাইন ওয়েবসাইট এবং বাজারের ক্ষেত্রে ভীষণ উপকারী হতে পারে।

ভাইস নিউস [সম্পাদনা]

ভাইস নিউস ভাইস মিডিয়া ইনকর্পোরেটের চলিত বিষয়াবলির চ্যানেল, যা দৈনন্দিন তথ্যচিত্র বিষয়ক প্রবন্ধ এবং ভিডিও নিজের ওয়েবসাইট এবং ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে প্রকাশ করে। এটি নিজেকে নিজের অনূর্ধ্ব রিপোর্ট এবং অফ-স্ট্রিম গল্পের কভারেজের মাধ্যমে প্রমোট করে। ভাইস মিডিয়া ইনকর্পোরেট ২০১৩ এর ডিসেম্বরে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং নিউ ইয়র্ক সিটিতে অবস্থিত, কিন্তু এর সারা বিশ্বে কার্যালয় রয়েছে। ভাইস নিউসের প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এটি উদীয়মান ঘটনা এবং ব্যাপক সমস্যা এমন ভাবে প্রচার করেছে, যা অন্যান্য মিডিয়া করতে পারে নি বা পারে না। একটি "বিকল্প" নিউস স্টেশন হিসাবে এটি অনেক বিতর্কমূলক এবং অসম্পাদিত বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরি করতে পারে। তেমনই একটি বিষয় ডার্কনেট। ভাইসের এখন এমন অনেক গল্প আছে যা ডার্কনেটের বিভিন্ন বিষয় এবং এর গুপ্ত মার্কেটকে পরীক্ষা করে, যার মধ্যে রয়েছে ডার্কনেটের অবৈধ পশু শিকার, শিশু পর্ণোগ্রাফি, এবং ওষুধ সম্পর্কিত বিষয়।  

অন্যান্য মাধ্যম[সম্পাদনা]

এবিসি নিউজের মত সনাতন মিডিয়া এবং সংবাদ চ্যানেলও ডার্কনেটকে পরীক্ষা করে এমন নিবন্ধ প্রকাশ করেছে। [৮৮] ভেনিটি ফেয়ার ম্যাগাজিন অক্টোবর ২০১৬ এ 'দ্য আদার ইন্টারনেট' শিরোনামে একটি নিবন্ধ প্রকাশ করে। সে নিবন্ধে ডার্কনেটের উত্থানের কথা বলা হয়েছে, সাথে বলা হয়েছে যে আইন অমান্যকারী ডিজিটাল প্রান্তরে পুরস্কার বড় ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে উল্লেখ রয়েছিল যে ভালনেরাবিলিটি নেটওয়ার্কের ডিফেন্সে একটি দুর্বলতা হিসাবে কাজ করে। অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে প্রচলিত কালো বাজারের ই-কমার্স সংস্করণ, দ্যরিয়েলডিল থেকে সাইবার অস্ত্র ব্যবসা, এবং অপারেশন নিরাপত্তার ভূমিকা। [৮৯]

জনপ্রিয় সংস্কৃতিতে[সম্পাদনা]

  • ডার্ক ওয়েব হল লি চাইল্ড-এর উপন্যাস মেক মি (২০১৫) এর কাহিনিসূত্রের মূল উপাদান। [৯০]
  • চরিত্র লুকাস গুডউইন ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে মার্কিন টেলিভিশন সিরিজ হাউজ অফ কার্ডস (২০১৩) এ একজন হ্যাকার খুঁজে বের করেন। [৯১]
  • ডার্ক ওয়েব জার্মান টেকনো-থ্রিলার ফিল্ম হু এম আই (২০১৪) এর কাহিনিসূত্রের একটি প্রধান উপাদান। [৯২] সেই ফিল্মটি গোপন ডার্কনেট চ্যাট্রুমকে তুলে ধরে যা পরিচয় অজ্ঞাত থাকা সত্তেও বার্তা আদান প্রদানের সুবিধা প্রদান করে। [৯৩][৯৪]
  • কেনেথ জি ইয়াডের  একটি উপন্যাস কিলার.কম (২০১৫) এ,  একজন ব্যক্তি রয়েছে যে ডার্কনেট ব্যবহার করে অন্য একজন অজ্ঞাত মানুষকে হত্যা করার জন্য একজন হত্যাকারী ভাড়া করে। [৯৫][৯৬]
  • সিএসআই: সাইবার (২০১৫) মেরি আইকেন অনুপ্রাণিত স্পেশাল এজেন্ট ইন চার্জ এভেরি রায়ানের কাজকে অনুসরণ করে, যে একটি এফবিআই বিভাগের দায়িত্বে রয়েছে। অনলাইনে শিশুর নিলাম ("কিডন্যাপিং ২.০") থেকে শুরু করে, রোলার-কোস্টার সেফ গার্ড অক্ষম করে দেয়া ("CMND:\CRASH"), কালো বাজারের বিশ্বে অস্ত্রসম্ভার (গোস্ট ইন দ্য মেশিন"), একটি ট্রান্সপোর্ট অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে তাদের হত্যা করা ("কিলার এন রুট"), এবং একটি প্রিন্টারে একটি নকশা খুঁত, ("ফায়ার কোড")।
  • টমাস পাইঙ্কনের ব্লিডিং এজ  এ টুইন টাওয়ার হামলার জটিলতা উদ্ঘাটন করতে গিয়ে ডার্ক ওয়েবের গভিরে প্রবেশ করা হয়।
  • ২০১৬ এর একটি গেম "ওয়েলকাল টু দ্য গেম" সম্পূর্ণ ভাবেই ডিপ/ডার্ক ওয়েবকে ঘিরে তৈরি করা হয়েছে। [৯৭]
  • ডার্ক ওয়েব ২০১৬ এর একটি সিনেমা "নার্ভ" এর মূল কাহিনীসূত্রের সাথে জড়িত। যা জিয়ানি র‍্যায়ান এর একটি উপন্যাসের আদলে তৈরি করা হয়েছিলো। [৯৮][সন্দেহপূর্ণ ]
  • নাটক–থ্রিলার ভিত্তিক টেলিভিশন সিরিজ  মি. রোবট  এর একটি পর্বে "eps2.3_logic-b0mb.hc" (ep. 5 এর সিজন 2) এর নায়ক এলিয়ট একটি টর দ্বারা লুকায়িত সাইট ঠিক করার কথা থাকে। যা ছিল "মিডল্যান্ড সিটি" নামক একটি ডার্কনেট মার্কেট যা সিল্ক রোডের আদলে তৈরি করা হয়েছিলো এবং এতে বিক্রয়ের জন্য বন্দুক, যৌন উদ্দেশ্যে নারী পাচার, রকেট উতক্ষেপক, ওষুধ এবং হত্যাকারী ভাড়াতে পাওয়া যেত। [৯৯][১০০]
  • এপহেক্স টুইনের এ্যালবাম সাইরো ডার্ক ওয়েবেও ঘোষণা করা হয়েছিলো। [১০১]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Greenberg, Andy (১৯ নভেম্বর ২০১৪)। "Hacker Lexicon: What Is the dark web?"। Wired। সংগ্রহের তারিখ ২৭ আগস্ট ২০১৫ 
  2. Egan, Matt (১২ জানুয়ারি ২০১৫)। "What is the dark web? How to access the dark web - How to turn out the lights and access the dark web (and why you might want to)"। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুন ২০১৫ 
  3. Solomon, Jane (৬ মে ২০১৫)। "The Deep Web vs. The dark web"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৫ 
  4. Greenberg, Andy (১৯ নভেম্বর ২০১৪)। "Hacker Lexicon: What Is the dark web?"Wired। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৫ "Clearing Up Confusion – Deep Web vs. dark web"BrightPlanet 
  5. NPR Staff (২৫ মে ২০১৪)। "Going Dark: The Internet Behind The Internet"। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  6. The dark web Revealed. Popular Science. . pages 20-21
  7. Greenberg, Andy (১৯ নভেম্বর ২০১৪)। "Hacker Lexicon: What Is the dark web?"Wired। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৫ 
  8. "Clearnet vs hidden services – why you should be careful"DeepDotWeb। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫ 
  9. Chacos, Brad (১২ আগস্ট ২০১৩)। "Meet Darknet, the hidden, anonymous underbelly of the searchable Web"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১৫ 
  10. Beckett, Andy (২৬ নভেম্বর ২০০৯)। "The dark side of the internet"। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১৫ 
  11. Deep Web (film)
  12. Daily Mail Reporter (১১ অক্টোবর ২০১৩)। "The disturbing world of the Deep Web, where contract killers and drug dealers ply their trade on the internet"। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৫ 
  13. "NASA is indexing the 'Deep Web' to show mankind what Google won't"Fusion 
  14. "Clearing Up Confusion – Deep Web vs. Dark Web"BrightPlanet 
  15. Solomon, Jane (৬ মে ২০১৫)। "The Deep Web vs. The Dark Web"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৫ 
  16. Greenberg, Andy (১৯ নভেম্বর ২০১৪)। "Hacker Lexicon: What Is the Dark Web?"। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৫ 
  17. "The Deep Web and Its Darknets - h+ Media"h+ Media। ২০১৫-০৬-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১১-১৮ 
  18. "The 21st Century DarkNet Market: Lessons from the Fall of Silk Road: Start Your Search!"eds.b.ebscohost.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৬ 
  19. Crenshaw,, Adrian.। "Darknets and hidden servers: Identifying the true ip/network identity of i2p service hosts, Black Hat (2011)"। 
  20. "Cryptopolitik and the Darknet"। Survival (00396338)58 (1, p7-38. 32p.)। 
  21. DARKNET, SOCIAL MEDIA, AND EXTREMISM: ADDRESSING INDONESIAN COUNTERTERRORISM ON THE INTERNET
  22. "The Dark Net. Rolling Stone, 0035791X, 11/5/2015, Issue 1247"। 
  23. "A MARKETER'S GUIDE TO THE DARK WEB: Start Your Search!"eds.b.ebscohost.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-২৭ 
  24. Owen, Gareth। "Dr Gareth Owen: Tor: Hidden Services and Deanonymisation"। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৫ 
  25. Moore, Daniel। "Cryptopolitik and the Darknet"Survival: Global Politics and Strategy। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১৬ 
  26. Cox, Joseph (১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬)। "Study Claims Dark Web Sites Are Most Commonly Used for Crime"। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১৬ 
  27. Mark, Ward (৩০ ডিসেম্বর ২০১৪)। "Tor's most visited hidden sites host child abuse images"BBC News। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৫ 
  28. "Everything You Need to Know on Tor & the Deep Web"whoishostingthis। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুন ২০১৫ 
  29. Cox, Joseph (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "What Firewall? China's Fledgling Deep Web Community"। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  30. Paul, Kari (৯ ডিসেম্বর ২০১৫)। "I Bought Adorable Cookies on the Deep Web"। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  31. Moore, Daniel। "Cryptopolitik and the Darknet"Survival: Global Politics and Strategy। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১৬ 
  32. Cox, Joseph (১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬)। "Study Claims Dark Web Sites Are Most Commonly Used for Crime"। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১৬ 
  33. Reeve, Tom (৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫)। "Extortion on the cards"। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  34. Allison, Ian (১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "Bitcoin tumbler: The business of covering tracks in the world of cryptocurrency laundering"। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  35. "Helix Updates: Integrated Markets Can Now Helix Your BTC"। ৫ আগস্ট ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  36. Richet, Jean-Loup (জুন ২০১৩)। "Laundering Money Online: a review of cybercriminals methods"। arXiv:1310.2368অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  37. Richet, Jean-Loup (২০১২)। "How to Become a Black Hat Hacker? An Exploratory Study of Barriers to Entry Into Cybercrime."17th AIM Symposium 
  38. "Cryptopolitik and the Darknet."। Survival58 
  39. "Concepts of illicit drug quality among darknet market users: Purity, embodied experience, craft and chemical knowledge."। International Journal of Drug Policy.35 
  40. "Stay Clear of the Darknet."। Tech Directions.75 
  41. Burleigh, Nina (১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "The Rise and Fall of Silk Road, the dark web's Amazon"। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৫ 
  42. Greenberg, Andy (১৭ এপ্রিল ২০১৫)। "New Dark-Web Market Is Selling Zero-Day Exploits to Hackers"Wired। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মে ২০১৫ 
  43. Holden, Alex (১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "Ukraine crisis: Combatants scouring dark web for advice on bridge bombing and anti-tank missiles"। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৫ 
  44. "Buying drugs on a Darknet market: A better deal? Studying the online illicit drug market through the analysis of digital, physical and chemical data."। Forensic Science International.267 
  45. "Characterising dark net marketplace purchasers in a sample of regular psychostimulant users."। International Journal of Drug Policy.35 
  46. Holden, Alex (১৫ জানুয়ারি ২০১৫)। "A new breed of lone wolf hackers are roaming the deep web - and their prey is getting bigger"। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  47. "Hacking communities in the Deep Web"। ১৫ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  48. Cox, Joseph (১২ নভেম্বর ২০১৫)। "A dark web Hacker Is Hunting Potential Pedophiles to Extort Them for Money"। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৫ 
  49. "The Dark Net: Policing the Internet's Underworld."। World Policy Journal.32 
  50. "Large-Scale Monitoring for Cyber Attacks by Using Cluster Information on Darknet Traffic Features."। Procedia Computer Science.53 
  51. "Inferring distributed reflection denial of service attacks from darknet."। Computer Communications.62 
  52. Cox, Joseph (১৪ জানুয়ারি ২০১৬)। "Dark Web Vendor Sentenced for Dealing Counterfeit Coupons"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০১৬ 
  53. DeepDotWeb (২৮ মে ২০১৫)। "Secrets to Unmasking Bitcoin Scams – 4 Eye Opening Case Studies"। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৫ 
  54. Greenberg, Andy (১৮ নভেম্বর ২০১৩)। "Meet The 'Assassination Market' Creator Who's Crowdfunding Murder With Bitcoins"Forbes। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৫ 
  55. Ormsby, Eileen (৩ আগস্ট ২০১২)। "Conversation with a hitman (or not)"। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৫ 
  56. Nicole Hong, "Silk Road Founder Ross Ulbricht Sentenced to Life in Prison", Wall Street Journal, May 29, 2015.
  57. Andy Greenberg, "Silk Road Creator Ross Ulbricht Sentenced to Life in Prison", Wired, May 29, 2015.
  58. Howell O'Neill, Patrick (২৮ আগস্ট ২০১৫)। "Dark Net site promised to livestream torture and execution of 7 ISIS jihadists"। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৫ 
  59. Barton, Hannah (২৫ অক্টোবর ২০১৫)। "The spooky, twisted saga of the Deep Web horror game 'Sad Satan'"। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১৫ 
  60. Stockley, Mark (১ জুলাই ২০১৫)। "Hundreds of Dark Web sites cloned and "booby trapped""। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  61. Fox-Brewster, Thomas (১৮ নভেম্বর ২০১৪)। "Many Sites That Fell In Epic Onymous Tor Takedown 'Were Scams Or Legit'"Forbes। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  62. "Beware of Phishing Scams On Clearnet Sites! (darknetmarkets.org)"DeepDotWeb। ৩ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  63. "Warning: More Onion Cloner Phishing Scams"। ২২ এপ্রিল ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  64. Bell, Chris (২৫ নভেম্বর ২০১৩)। "The internet mystery that has the world baffled"। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  65. Willacy, Mark (২৬ আগস্ট ২০১৫)। "Secret 'dark net' operation saves scores of children from abuse; ringleader Shannon McCoole behind bars after police take over child porn site"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১৫ 
  66. Conditt, Jessica (৮ জানুয়ারি ২০১৬)। "FBI hacked the Dark Web to bust 1,500 pedophiles"। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  67. Cox, Joseph (৫ জানুয়ারি ২০১৬)। "The FBI's 'Unprecedented' Hacking Campaign Targeted Over a Thousand Computers"। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  68. Farivar, Cyrus (১৬ জুন ২০১৫)। "Feds bust through huge Tor-hidden child porn site using questionable malware"। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৫ 
  69. Evans, Robert (১৬ জুন ২০১৫)। "5 Things I Learned Infiltrating Deep Web Child Molesters"। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৫ 
  70. Cox, Joseph (১১ নভেম্বর ২০১৪)। "As the FBI Cleans the Dark Net, Sites Far More Evil Than Silk Road Live On"। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৫ 
  71. Markowitz, Eric (১০ জুলাই ২০১৪)। "The Dark Net: A Safe Haven for Revenge Porn?"। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৫ 
  72. Cub, Nik (১৭ নভেম্বর ২০১৪)। "FBI seizes fake Tor hosted Jihad funding website as part of Operation Onymous, leaves up real site."। সংগ্রহের তারিখ ২৫ নভেম্বর ২০১৫ 
  73. Cuthbertson, Anthony (২৫ নভেম্বর ২০১৫)। "Hackers replace dark web Isis propaganda site with advert for Prozac"। সংগ্রহের তারিখ ২৫ নভেম্বর ২০১৫ 
  74. "Jihadist cell in Europe 'sought recruits for Iraq and Syria'"BBC News। ১২ নভেম্বর ২০১৫। 
  75. "A MARKETER'S GUIDE TO THE DARK WEB."। Marketing Insights 
  76. Lev Grossman (১১ নভেম্বর ২০১৩)। "The Secret Web: Where Drugs, Porn and Murder Live Online"TIME.com 
  77. Swearingen, Jake (২ অক্টোবর ২০১৪)। "A Year After Death of Silk Road, Darknet Markets Are Booming"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মে ২০১৫ 
  78. Franceschi-Bicchierai, Lorenzo (১৩ মে ২০১৫)। "Hackers Tried To Hold a Darknet Market For a Bitcoin Ransom"। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৫ 
  79. Solon, Olivia (৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৩)। "Police crack down on Silk Road following first drug dealer conviction"। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০১৫ 
  80. Koebler, Jason (২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "The Closest Thing to a Map of the Dark Net: Pastebin"। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৫ 
  81. Simonite, Tom (১৮ মার্চ ২০১৬)। "The Surprising Light Side of the Dark Web"। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১৬ 
  82. Ricard (২ আগস্ট ২০১৫)। "Interpol dark web Training Course"। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৫ 
  83. Rose, David (১৩ অক্টোবর ২০১৩)। "Secrets of the UK's new FBI: Police chief reveals elite force of 5,000 'super' agents will wage a high-tech manhunt for Britain's most wanted criminals"। সংগ্রহের তারিখ ৯ নভেম্বর ২০১৫ 
  84. Box, Joseph (৮ নভেম্বর ২০১৫)। "The UK Will Police the dark web with a New Task Force"। সংগ্রহের তারিখ ৯ নভেম্বর ২০১৫ 
  85. Burrell, Ian (আগস্ট ২৮, ২০১৪)। "The Dark Net:Inside the Digital Underworld by Jamie Bartlett, book review"Independent 
  86. "The Growth of Dark Subcultures On the Internet, The Leonard Lopate Show"WNYC। জুন ২, ২০১৫। 
  87. Bartlett, Jamie (জুন ২০১৫)। "How the mysterious dark net is going mainstream"ted.com 
  88. Viney, Steven (জানুয়ারি ২৭, ২০১৬)। "Print Email Facebook Twitter More What is the dark net, and how will it shape the future of the digital age?"ABC News 
  89. "The Other Internet"। Vanity Fair58 
  90. "Book Review: Make Me by Lee Child" 
  91. Auerbach, David (২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৪)। "Not So Deep"Slate। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০১৬ 
  92. Pilarczyk, Hannah (সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "Hacker-Thriller mit Tom Schilling: Willkommen im Darknet"। DER SPIEGEL। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০১৬ 
  93. Jerzy, Nina (২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "Who Am I - Kein System ist sicher - Hacker mit Minderwertigkeitskomplexen"। N-TV। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  94. "Who am I – kein System ist sicher - Didaktisierungsvorschlag des Goethe-Instituts Frankreich" (PDF)। Goethe-Instituts Frankreich। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  95. Vinny O'Hare। "Featured Author Kenneth Eade"Book Reader Magazine। সংগ্রহের তারিখ ২ অক্টোবর ২০১৫ 
  96. "The Devil and the Dark Net"dissidentvoice.org। সংগ্রহের তারিখ ২ অক্টোবর ২০১৫ 
  97. "Welcome to the Game on Steam"। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০১৬ 
  98. Formo, Brian। "'Nerve' Review: Dave Franco and Emma Roberts Gotta Catch 'Em All"। Collider। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০১৬ 
  99. Varmazis, Maria। "Mr. Robot eps2.3logic-b0mb.hc – the security review"। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৬ 
  100. Jensen, Jeff। "Mr. Robot recap: 'eps2.3logic-b0mb.hc'"। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৬ 
  101. Jonze, Tim (১৮ আগস্ট ২০১৪)। "Aphex Twin announces new album SYRO via the deep web"। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬