ডানচৌকা সারবটি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ডানচৌকা সারবটি
Brachirus orientalis
Brachirus orientalis.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Chordata
উপপর্ব: Vertebrata
মহাশ্রেণী: Osteichthyes
শ্রেণী: Actinopterygii
বর্গ: Pleuronectiformes
পরিবার: Soleidae
গণ: Brachirus
প্রজাতি: Brachirus orientalis
দ্বিপদী নাম
Brachirus orientalis
(Bloch & Schneider, 1801)
প্রতিশব্দ

Synaptura filamentosa Sauvage, 1878[১]
Synaptura orientalis (Bloch & Schneider, 1801)[২]
Euryglossa orientalis (Bloch & Schneider, 1801)[৩]
Pleuronectes orientalis Bloch & Schneider, 1801[৪]

ডানচৌকা সারবটি (বৈজ্ঞানিক নাম: Brachirus orientalis)[৫] (ইংরেজি: Oriental sole) হচ্ছে Soleidae[৬][৭] পরিবারের Brachirus গণের একটি স্বাদুপানির মাছ

বর্ণনা[সম্পাদনা]

এই মাছের দেহ ডিম্বাকার ও চ্যাপ্টা। উভয় চোখ দেহের ডানদিকে থাকে।[৮]

বিস্তৃতি[সম্পাদনা]

এই মাছ পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগর, লোহিত সাগর, পারস্য সাগর, ভারত, শ্রীলংকা, মালয় উপদ্বীপ, চীন, উত্তর অস্ট্রেলিয়া অঞ্চলে পাওয়া যায়।[৮]

অর্থনৈতিক গুরুত্ব[সম্পাদনা]

খাদ্য হিসাবে এই মাছের বেশ গুরুত্ব আছে। বাণিজ্যিকভাবে বেশ লাভজনক। বাজারে ডানচৌকা সারবটি মাছ টাটকা, হিমায়িত ও শুটকি পাওয়া যায়।[৮]

স্বভাব ও আবাসস্থল[সম্পাদনা]

ডানচৌকা সারবটি মাছটি মাংসাশী ও তলদেশের খাবার খায়। অধিকাংশ সময় ছােট ছােট মাছ, তলদেশের অমেরুদণ্ডী প্রাণী খায়।বিশেষ করে ক্রাস্টেশিয়ান, মােলাস্ক এবং অন্যান্য উপাদান খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করে। উপকূলীয়। জলাশয়ের বালি বা কাদাযুক্ত স্থানে বাস করে। আবার ঈষৎ লােনাপানি এবং স্বাদুপানিতেও এদের পাওয়া যায় । নিশাচর স্বভাবের হওয়ায় বেশিরভাগ সময় বালি-কাদায় লুকিয়ে থাকে।[৮]

বাংলাদেশে বর্তমান অবস্থা এবং সংরক্ষণ[সম্পাদনা]

আইইউসিএন বাংলাদেশ (২০০০) এর লাল তালিকা এর লাল তালিকা অনুযায়ী এই প্রজাতিটি এখনও হুমকির সম্মুখীন নয়।[৮]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Desoutter M., F. Chapleau, T.A. Munroe, B. Chanet and M. Beaunier (2001) Catalogue critique des types de poissons du Muséum national d'histoire naturelle. Ordre des Pleuronectiformes., Cybium 25(4):299-368.
  2. Desoutter, M. (1986) Soleidae., p. 430-431. In J. Daget, J.-P. Gosse and D.F.E. Thys van den Audenaerde (eds.) Check-list of the freshwater fishes of Africa (CLOFFA). ISNB, Brussels; MRAC, Tervuren; and ORSTOM, Paris. Vol. 2.
  3. Munroe, T.A. (2001) Soleidae. Soles., p. 3878-3889. In K.E. Carpenter and V. Niem (eds.) FAO species identification guide for fishery purposes. The living marine resources of the Western Central Pacific. Vol. 6. Bony fishes part 4 (Labridae to Latimeriidae), estuarine crocodiles. FAO, Rome.
  4. Talwar, P.K. and A.G. Jhingran (1991) Inland fishes of India and adjacent countries. Volume 2., A.A. Balkema, Rotterdam.
  5. Randall, J.E. and K.K.P. Lim (eds.) (2000) A checklist of the fishes of the South China Sea., Raffles Bull. Zool. Suppl. (8):569-667.
  6. Bisby F.A., Roskov Y.R., Orrell T.M., Nicolson D., Paglinawan L.E., Bailly N., Kirk P.M., Bourgoin T., Baillargeon G., Ouvrard D. (red.) (2011)। "Species 2000 & ITIS Catalogue of Life: 2011 Annual Checklist."। Species 2000: Reading, UK.। সংগ্রহের তারিখ 24 september 2012  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  7. FishBase. Froese R. & Pauly D. (eds), 2011-06-14
  8. লতিফা, গুলশান আরা (অক্টোবর ২০০৯)। "স্বাদুপানির মাছ"। আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; আবু তৈয়ব, আবু আহমদ; হুমায়ুন কবির, সৈয়দ মোহাম্মদ; আহমাদ, মোনাওয়ার। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ২৩ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ২৯৪–২৯৫। আইএসবিএন 984-30000-0286-0 |আইএসবিএন= এর মান পরীক্ষা করুন: invalid prefix (সাহায্য)