এটি একটি ভাল নিবন্ধ। আরও তথ্যের জন্য এখানে ক্লিক করুন।

টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি (ম্যাগাজিন)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফেব্রুয়ারি, ১৯২৮ সংখ্যার প্রচ্ছদ

টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি একটি পঞ্চমাসিক ম্যাগাজিন ছিল, যা ১৯২৭ সালের ডিসেম্বর থেকে ১৯২৮ সালের এপ্রিল পর্যন্ত প্রকাশিত হয়েছিল। ওয়ালটার গিবসন সম্পাদিত এই ম্যাগাজিনে থাকত নানা ধরণের কল্পকাহিনী ও নিবন্ধের মিশ্রন। প্রধানত এইচ. পি. লাভক্র্যাফ্টের একটি গল্প প্রকাশিত হওয়ায় এই ম্যাগাজিনটিকে আজও স্মরণ করা হয়।

প্রকাশনার ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইন্টারন্যাশনাল করেসপন্ডেন্স স্কুলস্ (আইসিএস) এর মালিকানাধীন পার্সোনাল আর্টস কর্তৃক টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি প্রকাশিত হত। ১৯২৭ সালে আইসিএস "বয়সের রহস্য" (সিক্রেটস অব দ্য এইজেস) নামক একটি লেখার মধ্য দিয়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করে। বিল কোফোড এবং ওয়ালটার গিবসন তখন একটি ম্যাগাজিন করার পরামর্শ দেন যা ঐ একই জনগোষ্ঠীর কাছে তাৎপর্যপূর্ণ হবে। আইসিএস-এরই মালিকানাধীন হ্যাডন প্রেসের ব্যবসায়িক দিক চিন্তা করে এই প্রকল্পের কাজে এগিয়ে আসে। কোফোড হ্যাডন প্রেসের প্রকাশনার দিকগুলো নিয়ে সন্তুষ্ট হয় এবং এরই ধারাবাহিকতায় ঐ বছরেরই ডিসেম্বরে গিবসনকে সম্পাদক করে ম্যাগাজিনটির প্রথম সংখ্যা প্রকাশিত হয়।[১]

এর অবদানকারীদের মধ্যে এইচ. পি. লাভক্র্যাফ্ট, ফ্র্যাঙ্ক ওয়েন, মিরিয়াম এলেন ডিফোর্ড অন্যতম। লাভক্র্যাফট এই ম্যাগাজিনে "কুল এয়ার" নামের একটি গল্প লিখেছিলেন। ফ্র্যাঙ্ক ওয়েন লিখেছিলেন তিনটি গল্প- দ্য ইয়েলো পুল, দ্য ব্ল্যাক ওয়েল অব ওয়াদি এবং দ্য লুর অব দ্যা শ্রিভেলড্ হ্যান্ড। ডিফোর্ড লিখেছিলেন গোস্টলি হ্যান্ডস নামক একটি গল্প, তবে পরবর্তীতে শোনা যায় যে এই গল্পটি কোনো প্রকার অনুমতি বা সম্মানি প্রদান ছাড়াই ছাপা হয়েছিল। গিবসন পরবর্তীকালে বলেন যে, কোফোড "ব্রিফ স্টোরিস"-এর জন্য প্রেরিত লেখাগুলোকে নির্বাচন ও সম্পাদনা করতেন। বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর ঐতিহাসিকবিদ মাইক অ্যাশলি বলেন যে লেখাগুলো কোথা থেকে আসছে সে সম্পর্কে গিবসন সম্পূর্ণ ওয়াকেবহাল ছিলেন না, এবং সম্ভবত এই ম্যাগাজিনে প্রকাশিত কিছু লেখা, লেখকদের কোনোপ্রকার সম্মানি প্রদান ছাড়াই বিনা অনুমতিতে ছেপে দেয়া হয়েছিল।[১]

এই ম্যাগাজিনটির হাতেগোণা কিছু সংখ্যা বর্তমানে পাওয়া যেতে পারে, যা বর্তমানে সংগ্রাহকদের সামগ্রী হয়ে গেছে। এর প্রধান কারণ এই ম্যাগাজিনের সাথে এইচ. পি. লাভক্র্যাফ্টের সম্বন্ধ। লাভক্র্যাফ্টের অধিকাংশ ছোট আকারের কল্পকাহিনী গুলো ওয়ার্ড টেলস্-এ প্রকাশিত হয়েছিল এবং সম্ভবত টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি-এ লেখা পাঠাবার অন্যতম কারণ ছিল হ্যারি হোউদিনি সম্পর্কে তার আগ্রহ। তিনি এর কয়েক বছর আগে হোউদিনি এবং গিবসন ছিলি হোউদিনির একজন বন্ধু। কল্পকাহিনী ছাড়াও এই ম্যাগাজিনে জাদুবিষয়ক বেশকিছু নিবন্ধ ছাপা হয়েছিল। এর অধিকাংশই ছিল গিবসনের লেখা, যার অনেকগুলিই ছদ্মনামে ছাপা হত। এই নিবন্ধগুলোর বিষয়বস্তুর মধ্যে একটি ছিল বুলেট ধরে ফেলা (আর্লি কে. বার্গি এর প্রচ্ছদ করেন) বিষয়ক, অপর একটি ছিল রহস্যময় মানুষ সম্পর্কে। তিনি হোউদিনি সম্পর্কেও একটি ধারাবাহিক লেখেন। সব মিলিয়ে বলা যেতে পারে যে ম্যাগাজিনটি জাদুবিষয়ক লেখার উপরে কল্পকাহিনীের চেয়ে বেশি নির্ভর করত, তবে প্রকাশিত লেখাগুলোর অধিকাংশই পাঠযোগ্য ছিল।[১] দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগ পর্যন্ত অদ্ভুত এবং অতিপ্রাকৃত ধাঁচের লেখাগুলো ওয়ার্ড টেলস্-এ অধিক ছাপা হয়েছিল।[২] মাত্র ২টি ম্যাগাজিন ১৯৩১ সালের আগ পর্যন্ত ওয়ের্ড টেলস্-এর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পেরেছিল - একটি টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি, এবং অপরটি গোস্ট স্টোরিস[৩] এর পরেই স্ট্রেন্স টেলস্ অব মিস্ট্রি অ্যান্ড টেরর ম্যাগাজিনটি প্রকাশ শুরু হয়।[২]

পঞ্চম সংখ্যা প্রকাশের পরেই ম্যাগাজিন প্রকাশের বিশাল ব্যয়ের কারণ হিসেবে মনে হতে থাকে যে হ্যাডন প্রেস সম্ভবত মোট ব্যয় হিসাবকালীন কাগজের ব্যয়ের কথা ভুলে গিয়েছিল। এর ফলে ম্যাগাজিনটি ক্ষতির সম্মুখীন হয়, এবং এর পরপরেই ম্যাগাজিনটিকে বন্ধ করে দেয়া হয়। বন্ধ করে দেবার পর ম্যাগাজিনটির অপ্রকাশিত লেখাগুলোর পাণ্ডুলিপি পরবর্তীতে ট্রু স্ট্রেঞ্জ স্টোরিজ-এ প্রকাশিত হয়। ট্রু স্ট্রেঞ্জ স্টোরিজ ম্যাগাজিনটিরও সম্পাদক ছিলেন গিবসন এবং এটির সম্পাদনাকার্যে তিনি ঐ বছরেই নিযুক্ত হন।[১]

গ্রন্থাবলীর বিবরণ[সম্পাদনা]

জানুয়ারি ফেব্রুয়ারি মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টেম্বর অক্টোবর নভেম্বর ডিসেম্বর
১৯২৭ ১/১
১৯২৮ ১/২ ১/৩ ১/৪ ১/৫
১৯২৭ থেকে ১৯২৮ সাল পর্যন্ত টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রির সংখ্যাসমূহ, ভলিউম এবং মুদ্রণসংখ্যা প্রদর্শিত হচ্ছে। প্রথম থেকেই ওয়াল্টার গিবসন ম্যাগাজিনটির সম্পাদক ছিলেন।[১]

টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রির ৫টি সংখ্যার প্রতিটিতেই ওয়াল্টার বি. গিবসন সম্পাদক ছিলেন। শুরু থেকেই ম্যাগাজিনটি স্যাডল-স্ট্যাপল পাল্প ধাঁচে প্রকাশিত হয়েছিল। এর মূল্য ছিল ২৫ সেন্ট, এবং প্রতিটি সংখ্যার পৃষ্ঠাসংখ্যা ছিল ৬৪।[১]

২০০৪ সালে ওয়াইল্ডসাইড প্রেস ফেব্রুয়ারি, ১৯২৮ সংখ্যার একটি হ্স্তলিখিত সংস্করণ প্রকাশ করে,[৪] এবং ২০১৩ সালে অ্যাডভেঞ্চার হাউস মার্চ, ১৯২৮ সালের সংখ্যাটির হস্তলিখিত সংস্করণ বের করে।[৫]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. অ্যাশলি (১৯৮৫), পৃ. ৬৪৪-৬৪৭।
  2. ওয়েইনবার্গ (১৯৮৫), পৃ. ৬২৬-৬২৮।
  3. Dziemianowicz (1990), p. xv.
  4. Betancourt (2004).
  5. "টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি"Adventure House (ইংরেজি ভাষায়)। অ্যাডভেঞ্চার হাউস। ২০ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৪ 

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • অ্যাশলি, মাইক (১৯৮৫)। "টেলস্‌ অব ম্যাগাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি"। টিম, মার্শাল বি.; অ্যাশলি, মাইক। সায়েন্স কল্পকাহিনী, ফ্যান্টাসি, অ্যান্ড ওয়্যার্ড কল্পকাহিনী ম্যাগাজিনস (ইংরেজি ভাষায়)। ওয়েস্টপোর্ট সিটি: গ্রীনউড প্রেস। পৃষ্ঠা ৬৪৪–৬৪৭। আইএসবিএন 0-313-21221-X 
  • Dziemianowicz, স্টিফান আর. (১৯৯০)। "ভূমিকা"। ওয়েইনবার্গ, রবার্ট; Dziemianowicz, স্টিফান আর.; গ্রীনবার্ড, মার্টিন এইচ.। রাইভালস অব ওয়্যার্ড টেলস্‌ (ইংরেজি ভাষায়)। নিউ ইয়র্ক: বোনাঞ্জা বুকস্‌। পৃষ্ঠা xii−xx। আইএসবিএন 978-0-517-69331-5 
  • বেটারকোর্ট, জন, সম্পাদক (২০০৪)। টেলস্ অব ম্যাজিক অ্যান্ড মিস্ট্রি ফেব্রুয়ারি ১৯২৮ (ইংরেজি ভাষায়)। রকিভিল এমডি: ওয়াইল্ডসাইড প্রেস। আইএসবিএন 0809511460