বিষয়বস্তুতে চলুন

জ্যোতিঃপদার্থবৈজ্ঞানিক প্লাজমা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লেগুন নীহারিকা আংশিকভাবে আয়নিত গ্যাসের একটি বৃহৎ, স্বল্প-ঘনত্বের মেঘ।[১]

জ্যোতিঃপদার্থবৈজ্ঞানিক প্লাজমা (Astrophysical plasma) সৌরজগতের বাইরে অবস্থিত প্লাজমা (পদার্থের একটি দশা)। এটিকে প্রায়শই মহাকাশে দেখতে পাওয়া যায় এবং জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞান শাস্ত্রে অধ্যয়ন করা হয়।[২] বিজ্ঞানীরা এই দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করেছেন যে মহাবিশ্বের সিংহভাগ ব্যারিয়নজাত পদার্থ এই প্লাজমা দশায় বিরাজমান।[৩]

যখন পদার্থ যথেষ্ট পরিমাণে উত্তপ্ত হয় ও শক্তি অর্জন করে, তখন সেটি আয়নিত হয়ে প্লাজমা গঠন করে। এই প্রক্রিয়াতে পদার্থ ভেঙে এর গাঠনিক উপাদান কণাতে পরিণত হয়, যাদের মধ্যে ঋণাত্মক আধানবিশিষ্ট ইলেকট্রন ও ধনাত্মক আধানবিশিষ্ট আয়ন অন্তর্ভুক্ত।[৪] এই বৈদ্যুতিকভাবে আহিত কণাগুলি স্থানীয় তড়িৎচুম্বকীয় ক্ষেত্রগুলির প্রভাবগস্ত হবার সম্ভাবনা রাখে। এইসব ক্ষেত্রের মধ্যে নক্ষত্র তথা তারাদের দ্বারা উৎপাদিত শক্তিশালী চৌম্বক ক্ষেত্রগুলি ছাড়াও অনেক দুর্বল ক্ষেত্র আছে, যেগুলি নক্ষত্র গঠন প্রক্রিয়া অঞ্চল, আন্তঃনাক্ষত্রিক স্থানআন্তঃছায়াপথ স্থানগুলিতে বিদ্যমান।[৫] অনুরূপভাবে কিছু নাক্ষত্রিক জ্যোতিঃপদার্থবৈজ্ঞানিক ঘটনাবলীতে বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র পর্যবেক্ষণ করা গেছে, কিন্তু সেগুলি খুবই নিম্ন-ঘনত্বের বায়বীয় (গ্যাসীয়) মাধ্যমে অকিঞ্চিৎকর।

জ্যোতিঃপদার্থবৈজ্ঞানিক প্লাজমাকে প্রায়শই মহাকাশ প্লাজমা থেকে স্বতন্ত্র গণ্য করা হয়। মহাকাশ প্লাজমা বলতে সাধারণত সূর্যের প্লাজমা, সৌরবায়ু এবং পৃথিবী ও অন্যান্য গ্রহের আয়নমণ্ডলচৌম্বকমণ্ডলকে নির্দেশ করা হয়।[৬][৭][৮][৯][১০][১১][১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Sneak Preview of Survey Telescope Treasure Trove"ESO Press Release। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৪ 
  2. "Study sheds light on turbulence in astrophysical plasmas: Theoretical analysis uncovers new mechanisms in plasma turbulence"। MIT News। ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২০ 
  3. Chiuderi, C.; Velli, M. (২০১৫)। "Particle Orbit Theory"। Basics of Plasma Astrophysics। UNITEXT for Physics। পৃষ্ঠা 17। আইএসবিএন 978-88-470-5280-2ডিওআই:10.1007/978-88-470-5280-2_2বিবকোড:2015bps..book.....C 
  4. International Union of Pure and Applied Chemistry. "Ionization". Compendium of Chemical Terminology Internet edition.
  5. Lazarian, A.; Boldyrev, S.; Forest, C.; Sarff, P. (২০০৯)। "Understanding of the role of magnetic fields: Galactic perspective"। Astro2010: The Astronomy and Astrophysics Decadal Survey2010: 175। arXiv:0902.3618অবাধে প্রবেশযোগ্যবিবকোড:2009astro2010S.175L 
  6. "Space Physics Textbook"। ২০০৬-১১-২৬। ডিসেম্বর ১৮, ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  7. "The Solar Physics and Space Plasma Research Centre (SP2RC)"। MIT News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  8. Owens, Mathew J.; Forsyth, Robert J. (২০০৩)। "The Heliospheric Magnetic Field"। Living Reviews in Solar Physics (ইংরেজি ভাষায়)। 10 (1): 5। arXiv:1002.2934অবাধে প্রবেশযোগ্যআইএসএসএন 2367-3648এসটুসিআইডি 122870891ডিওআই:10.12942/lrsp-2013-5বিবকোড:2013LRSP...10....5O 
  9. Nagy, Andrew F.; Balogh, André; Thomas E. Cravens; Mendillo, Michael; Mueller-Woodarg, Ingo (২০০৮)। Comparative Aeronomy। Springer। পৃষ্ঠা 1–2। আইএসবিএন 978-0-387-87824-9 
  10. Ratcliffe, John Ashworth (১৯৭২)। An Introduction to the Ionosphere and Magnetosphereবিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজনCUP Archiveআইএসবিএন 978-0-521-08341-6 
  11. NASA Study Using Cluster Reveals New Insights Into Solar Wind, NASA, Greenbelt, 2012, p.1
  12. Cade III, William B.; Christina Chan-Park (২০১৫)। "The Origin of "Space Weather""। Space Weather13 (2): 99। ডিওআই:10.1002/2014SW001141অবাধে প্রবেশযোগ্যবিবকোড:2015SpWea..13...99C 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]