জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জেডব্লিউএসটি-এর ৩/৪ উপস্থাপন (সূর্যের বিপরীত পাশ থেকে)।

জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ (ইংরেজি: James Webb Space Telescope বা JWST) বা জেডব্লিউএসটি, যা পূর্বে নেক্সট জেনারেশন স্পেস টেলিস্কোপ (ইংরেজি: Next Generation Space Telescope বা NGST) বা এনজিএসটি অর্থাৎ ‘পরবর্তী প্রজন্মের মহাশূণ্য দূরবীক্ষণ যন্ত্র’, একটি পরিকল্পিত মহাশূন্য দূরবীক্ষণ যন্ত্র। এটি তৈরি করা হয়েছে অবলোহিত বিকিরণ বা ইনফ্রারেড পর্যবেক্ষণের জন্য যা একই সাথে হাবল স্পেস টেলিস্কোপস্পিটজার স্পেস টেলিস্কোপের ভবিষ্যত উত্তরসূরী। এটির মূল কারিগরী বৈশিষ্ট্যের মধ্যে রয়েছে ৬.৫-মিটার (২১ ফু) ব্যাস বিশিষ্ট একটি বৃহৎ এবং অত্যন্ত শীতল দর্পন। এটির পর্যবেক্ষণ অবস্থান হবে পৃথিবী থেকে বেশ দূরে (প্রায় ১৫ লক্ষ কিলোমিটার), পৃথিবী-সূর্য টেমপ্লেট:L2 পয়েন্টে। তাছাড়া দূরবীক্ষণ যন্ত্রটির সাথে চারটি বিশেষ যন্ত্র সংযুক্ত করা হবে। এসকল বৈশিষ্ট্যের সমন্বয়ে জেডব্লিউএসটি অতি উচ্চমাত্রার রেজোলিউশন এবং মধ্য-অবলোহিতের মতো সুদীর্ঘ তরঙ্গ পর্যন্ত প্রদর্শন করতে সমর্থ হবে, যা আগে কখনও সম্ভব হয়নি। এর ফলে দূরবীক্ষণ যন্ত্রটির মূল দুইটি বৈজ্ঞানিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে – ছায়াপথের জন্ম ও বিবর্তন এবং নক্ষত্র ও গ্রহসমূহের সৃষ্টি সংক্রান্ত গবেষণা।

১৯৯৬ সাল থেকে পরিকল্পিত[১] পর্যায়ে থাকা এ প্রকল্পটি প্রায় ১৭টি দেশের একটি আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টাকে উপস্থাপন করে চলেছে[২] যার নেতৃত্বে রয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসা। এছাড়ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি এবং কানাডিয়ান স্পেস এজেন্সিও এই প্রকল্পে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। যন্ত্রটির নামকরণ করা হয়েছে জেমস ই. ওয়েবের নামানুসারে। তিনি ছিলেন নাসার দ্বিতীয় প্রশাসক এবং অ্যাপোলো অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ESA JWST Timeline"। সংগৃহীত ১৩ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. "NASA – JWST – people"। সংগৃহীত ১৩ জানুয়ারি ২০১২ 
  3. During, John। "The James Webb Space Telescope"The James Webb Space Telescope। National Aeronautics and Space Administration। সংগৃহীত ৩১ ডিসেম্বর ২০১১