ওয়েবের প্রথম গভীর ক্ষেত্র

স্থানাঙ্ক: আকাশের মানচিত্র ০৭ ২৩মি ১৯.৫সে, −৭৩° ২৭′ ১৫.৬″
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ওয়েবের প্রথম গভীর ক্ষেত্র
Webb's First Deep Field.jpg
ওয়েবের প্রথম গভীর ক্ষেত্র
পর্যবেক্ষণমূলক উপাত্ত (ইপক )
তারামণ্ডলছায়াপথ স্তবক এসএমএসিএস ০৭২৩
দূরত্ব৪.৬ বিলিয়ন (৪৬০ কোটি) আলোকবর্ষ
আরও দেখুন: ছায়াপথ স্তবক, ছায়াপথ স্তবকের তালিকা

ওয়েবের প্রথম গভীর ক্ষেত্র হলো জেমস ওয়েব মহাকাশ দূরবীক্ষণ যন্ত্রের তোলা প্রথম অপারেশনাল চিত্র, যাতে স্ম্যাকস জে০৭২৩.৩–৭৩২৭ (দক্ষিণীয় বৃহৎ নক্ষত্রপুঁজ জরীপ জেমস০৭২৩.৩-৭৩২৭) ছায়াপথ স্তবক এর চিত্র ধারণ করা হয়েছে, স্ম্যাকস জে০৭২৩.৩–৭৩২৭ হচ্ছে পতত্রীমীন মণ্ডল নক্ষত্রমন্ডলে পৃথিবী থেকে ৫.১২ বিলিয়ন আলোকবর্ষের সঠিক দূরত্ব সহ একটি ছায়াপথ স্তবক। ১১ জুলাই ২০২২-এ জনসাধারণের সামনে উন্মুক্ত করা যৌগিক চিত্রটি দূরবীক্ষণ যন্ত্রের নিয়ার-ইনফ্রারেড ক্যামেরা (NIRCam) দ্বারা নেওয়া হয়েছে এবং দক্ষিণ গোলার্ধ থেকে দৃশ্যমান আকাশের একটি ক্ষুদ্র এলাকার ছবি এতে রয়েছে। ছবিটিতে হাজার হাজার ছায়াপথ দৃশ্যমান, যা এখন পর্যন্ত তোলা প্রথম মহাবিশ্বের সর্বোচ্চ-রেজোলিউশনের ছবি।

পটভূমি[সম্পাদনা]

জেমস ওয়েব মহাকাশ দূরবীক্ষণ যন্ত্র হলো একটি মহাকাশ দূরবীক্ষণ যন্ত্র যা নাসা দ্বারা পরিচালিত হয় এবং প্রাথমিকভাবে অবলোহিত জ্যোতির্বিজ্ঞানের জন্য এর নকশা করা হয়েছে। ২০২১ সালের ডিসেম্বরে উৎক্ষেপিত এই মহাকাশযানটি ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে দ্বিতীয় সূর্য-পৃথিবী ল্যাগ্রেঞ্জ বিন্দুর (L2) কাছাকাছি হ্যালো কক্ষপথে পৃথিবী থেকে প্রায় ১.৫ নিযুত কিলোমিটার (৯,০০,০০০ মা) এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। L2 -এ, সূর্য এবং পৃথিবী উভয়েরই মহাকর্ষীয় টান সূর্যের চারপাশে দূরবীক্ষণ যন্ত্রের আবর্তন পৃথিবীর গতির সাথে সামঞ্জস্য রাখে।[১]

ওয়েবের প্রথম গভীর ক্ষেত্রের চিত্রটি দূরবীক্ষণ যন্ত্রের নিয়ার-ইনফ্রারেড ক্যামেরা (এনআইআরক্যাম) দ্বারা নেওয়া হয়েছে এবং এটি মোট ১২.৫ ঘন্টাব্যাপী নেওয়া বিভিন্ন তরঙ্গদৈর্ঘ্যের চিত্র থেকে উৎপাদিত একটি যৌগিক চিত্র।[২][৩] ছবিটি হাবল মহাকাশ দূরবীক্ষণ যন্ত্রের গভীরতম ক্ষেত্র ছাড়িয়ে অবলোহিত তরঙ্গদৈর্ঘ্যের গভীরতা অর্জন করেছে, যা কয়েক সপ্তাহ সময় নিয়েছে।

স্ম্যাকস জে০৭২৩.৩–৭৩২৭ হলো আকাশের একটি ছায়াপথ স্তবক যা পৃথিবীর দক্ষিণ গোলার্ধ থেকে দৃশ্যমান[৪]। সুদূর অতীতের রহস্য অনুসন্ধানে প্রায়ই হাবল এবং অন্যান্য টেলিস্কোপ এটি পরীক্ষা করে থাকে।[১]

বৈজ্ঞানিক ফলাফল[সম্পাদনা]

চিত্রটিতে ছায়াপথ স্তবক স্ম্যাকস জে০৭২৩.৩–৭৩২৭ দেখা যায় যেটি ৪.৬ বিলিয়ন বছর আগে আবির্ভূত হয়েছিল,[৩] এটি আকাশের কৌণিক আকারের ছোট একটি এলাকে যাকে ভূমিতে অবস্থান করা একজন ব্যক্তির বাহুতে ধরে রাখা বলুকণার দৈর্ঘ্যের সাথে তুলনা করা যায়।[২] এদের থেকে বিকিরিত আলোর বিশাল দূরত্বের উপর স্থানের প্রসারণের কারণে চিত্রিত অনেক মহাজাগতিক সত্তা উল্লেখযোগ্য লোহিত সরণের মধ্য দিয়ে গেছে।[৫]

ছায়াপথ স্তবকের সম্মিলিত ভর একটি মহাকর্ষীয় পরকলা (মহাকর্ষীয় লেন্স) হিসাবে কাজ করে, যা এর পিছনে আরও অনেক দূরবর্তী ছায়াপথকে বিবর্ধিত করে। ওয়েবের নিয়ার ইনফ্রারেড ক্যামেরা দূরবর্তী ছায়াপথগুলোকে তীক্ষ্ণ ফোকাসে নিয়ে এসেছে এবং ক্ষুদ্র, ম্লান কাঠামোগুলোকেও প্রকাশ করে যা আগে কখনও দেখা যায়নি।[২]

তাৎপর্য[সম্পাদনা]

ওয়েবের প্রথম গভীর ক্ষেত্র হলো জেমস ওয়েব টেলিস্কোপের প্রথম সম্পূর্ণ ছদ্ম রঙের ছবি,[৬] এবং এখন পর্যন্ত ধারণ করা মহাবিশ্বের সর্বোচ্চ-রেজোলিউশনের অবলোহিত দৃশ্য। ছবিটি মহাবিশ্বের একটি ক্ষুদ্র স্লিভারে হাজার হাজার ছায়াপথকে প্রকাশ করে, ওয়েবের তীক্ষ্ণ নিয়ার-ইনফ্রারেড দৃশ্য অত্যন্ত দূরবর্তী ছায়াপথগুলোতে ম্লান কাঠামোকে দৃশ্যমান করে, যা এখন পর্যন্ত প্রথম মহাবিশ্বের সবচেয়ে বিশদ দৃশ্য সরবরাহ করে। হাজার হাজার ছায়াপথ, যার মধ্যে রয়েছে ইনফ্রারেডে দেখা সবচেয়ে ক্ষীণ বস্তু, প্রথমবারের মতো ওয়েবের দৃশ্যে উপস্থিত হয়েছে।[৭][২]

১১ জুলাই ২০২২-এ মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হোয়াইট হাউসের একটি ইভেন্টের সময় এটি সর্বপ্রথম জনসাধারণের কাছে উন্মুক্ত করেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Overbye, Dennis; Chang, Kenneth (২০২২-০৭-১১)। "Biden and NASA Share First Webb Space Telescope Image"The New York Times (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। ২০২২-০৭-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১২ 
  2. Garner, Rob (২০২২-০৭-১১)। "NASA's Webb Delivers Deepest Infrared Image of Universe Yet"। NASA। ২০২২-০৭-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১১ 
  3. "Webb's first deep field" (ইংরেজি ভাষায়)। European Space Agency। জুলাই ১২, ২০২২। ২০২২-০৭-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১১ 
  4. "SRELICS"IRAS। ২০২২-০৭-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১২ 
  5. Isabella Isaacs-Thomas (জুলাই ১১, ২০২২)। "Here's the deepest, clearest infrared image of the universe ever produced"PBS। ১২ জুলাই ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০২২ 
  6. Strickland, Ashley (জুলাই ১১, ২০২২)। "President Biden reveals the James Webb Space Telescope's stunning first image"CNN। ২০২২-০৭-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১২ 
  7. Chow, Denise (জুলাই ১১, ২০২২)। "The Webb telescope's first full-color photo is here – and it's stunning"NBC News (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-০৭-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১১