জাট রাজবংশ এবং রাজ্যের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভরতপুর কেল্লা

জাট রাজ্য ও বংশ[সম্পাদনা]

নীচে দেওয়া হল ভারতীয় উপমহাদেশ এবং তাদের উত্স অঞ্চলের কয়েকটি জাট বংশের নাম।

রাজবংশ রাজ্য অবস্থান
সিনসিনবার ভরতপুর রাজ্য[১] রাজস্থান
দেশবাল ধোলপুর রাজ্য[২] রাজস্থান
কসবান সিদ্ধমুখ রাজ্য[৩] রাজস্থান
কেকন কেকান রাজ্য[৪] সিন্ধু প্রদেশ
বমরৌলিয়া গোহদ[৫]
গোয়ালিয়র[৬][৭]
মধ্যপ্রদেশ
মধ্যপ্রদেশ
থেনুআ হাথর‌স[৮]
মুরসান[৯]
উত্তরপ্রদেশ
উত্তরপ্রদেশ
তোমর সৌন্খ[১০]
পিসাবা[১১]
উত্তরপ্রদেশ
উত্তরপ্রদেশ
দলাল কুছেসার[১২] উত্তরপ্রদেশ
কাকরান সাহনপুর[১৩][১৪] উত্তরপ্রদেশ
সিকরবার ফিরোজবাদ[১৫]
জারখী[১৬]
উত্তরপ্রদেশ
উত্তরপ্রদেশ
পিলানিয়া উঁচাগাও[১৭] উত্তরপ্রদেশ
তেবতিয়া বল্লভগঢ়[১৮] হরিয়ানা
অহলুবালিয়া কপুরথলা রাজ্য[১৯] পাঞ্জাব, ভারত
সিধু পাতিয়ালা রাজ্য[২০]
জিন্দ রাজ্য[২১]
নাভা রাজ্য[২২]
ফরিদকোট রাজ্য[২৩]
পাঞ্জাব, ভারত
হরিয়ানা
পাঞ্জাব, ভারত
পাঞ্জাব, ভারত
সন্ধু কালসিয়া রাজ্য[২৪]
শহীদ মিসল[২৫]
কানহাইয়া মিসল[২৬]
নকই মিসল[২৭]
পাঞ্জাব, ভারত
পাঞ্জাব, ভারত
পাঞ্জাব, পাকিস্তান
পাঞ্জাব, পাকিস্তান
বির্ক সিংঘপুরিয়া মিসল[২৮] পাঞ্জাব, ভারত
ঢিল্লো ভঁঙ্গী মিসল[২৯] পাঞ্জাব, ভারত
বির্ক
ধালিবাল
সিংহ করোদা মিসল[৩০] পাঞ্জাব, ভারত
গিল
শেরগিল
নিশানবালিয়া মিসল[৩১] হরিয়ানা
সন্ন্ধবালিয়া সুকেরচকিয়া মিসল[৩২]
শিখ সাম্রাজ্য[৩৩][৩৪]
পাঞ্জাব, পাকিস্তান
ভারত, পাকিস্তান

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

রেফারেন্স[সম্পাদনা]

  1. Gupta, Om (২০০৬)। Encyclopaedia of India, Pakistan and Bangladesh। Gyan Publishing House। পৃষ্ঠা 668। আইএসবিএন 978-8-182-0-53922। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০২১ 
  2. Rudolph, Susanne Hoeber; Rudolph, Lloyd I. (১৯৮৪)। Essays on Rajputana: Reflections on History, Culture, and Administration। Concept Publishing Company। পৃষ্ঠা 241। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০২১ 
  3. Rāṭhauṛa, Sūrajamālasiṃha (১৯৮৯)। Bīkānera, pañca śatābdi, Vi. Saṃ. 1545-204। Rāva Bīkājī Saṃsthāna। পৃষ্ঠা 182। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২১ 
  4. Dīn, Malik Muḥammad (২০০১)। Bahawalpur State with Map 1904 (reprint সংস্করণ)। Sang-e-Meel Publications। পৃষ্ঠা 392। আইএসবিএন 978-9-693-5-12366। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০২১ 
  5. Library of Congress. Library of Congress Office, New Delhi (১৯৮৭)। "Library of Congress. Library of Congress Office, Karachi"। Accessions List, South Asia, Volume 6। E.G. Smith for the U.S. Library of Congress Office, New Delhi। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০২১ 
  6. Misra, B. D. (১৯৯৩)। Forts and Fortresses of Gwalior and Its Hinterland (illustrated সংস্করণ)। Manohar Publishers and Distributors। পৃষ্ঠা 181। আইএসবিএন 978-8-173-0-40474। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০২১ 
  7. McClenaghan, Tony (১৯৯৬)। Indian Princely Medals: A Record of the Orders, Decorations, and Medals of the Indian Princely States (illustrated সংস্করণ)। Lancer Publishers। পৃষ্ঠা 282। আইএসবিএন 978-1-897-8-29196। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০২১ 
  8. Sunderlal, Pandit (২০১৮)। "British Rule in India"। SAGE Publishing India। পৃষ্ঠা 548। আইএসবিএন 978-9-352-8-08038। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০২১ 
  9. Brass, Paul R. (১৯৬৫)। "Bhārat. Congress party"। Factional Politics in an Indian State: The Congress Party in Uttar Pradesh। University of California Press। পৃষ্ঠা 262। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০২১ 
  10. Growse, F.S. (১৯৯৩)। Mathurá: A District Memoir (english ভাষায়)। Asian Educational Services। পৃষ্ঠা 440। আইএসবিএন 978-8-120-6-02281। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০২১ 
  11. United Provinces of Agra and Oudh (India) (১৯২৬)। H.R. Nevill, সম্পাদক। District Gazetteers of the United Provinces of Agra and Oudh: Aligarh। Supdt., Government Press, United Provinces। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০২১ 
  12. Stokes, Eric (১৯৮৬)। Christopher Alan Bayly, সম্পাদক। The Peasant Armed: The Indian Revolt of 1857 (illustrated সংস্করণ)। Clarendon Press। পৃষ্ঠা 261। আইএসবিএন 978-0-198-2-15707। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০২১ 
  13. United Provinces of Agra and Oudh (India) (১৯২৮)। Henry Rivers Nevill, সম্পাদক। District Gazetteers of the United Provinces of Agra and Oudh: Bijnor। Supdt., Government Press, United Provinces। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০২১ 
  14. "Raja Devendra Singh"The Times of India। ২০২০-০৩-২২। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০২১ 
  15. "About District | District Firozabad, Government of Uttar Pradesh | India"firozabad.inc.in। সংগ্রহের তারিখ ১৮ এপ্রিল ২০২১ 
  16. Samanvita, Dharmacandra Vidyālaṅkara (১৯৯২)। "Akhila Bhāratavarshīya Jāṭa Mahāsabhā"। Jāṭoṃ kā nayā itihāsa (Hindi ভাষায়)। Akhila Bhāratavarshīya Jāṭa Mahāsabhā। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০২১ 
  17. Chopra, Pran Nath (১৯৮২)। Religions and Communities of India। Vision Books। পৃষ্ঠা 316। আইএসবিএন 978-0-391-0-27480। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২১ 
  18. Hasan, Mushirul (২০০৮)। Islam in South Asia: Encountering the West : before and after 1857 (reprint সংস্করণ)। Manohar Publishers & Distributors। পৃষ্ঠা 306। আইএসবিএন 978-8-173-0-47435। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০২১ 
  19. Ghosha, Lokanātha (১৮৭৯)। The Modern History of the Indian Chiefs, Rajas, Zamindars, & C: The native states। J.N. Ghose। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুলাই ২০২১ 
  20. "India"। Memoranda on the Indian States। Manager of Publications। ১৯৩৯। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২১ 
  21. Massy, Charles Francis (১৮৯০)। Chiefs and Families of Note in the Delhi, Jalandhar, Peshawar and Derajat Divisions of the Panjab। Printed at the Pioneer Press। সংগ্রহের তারিখ ১ জুলাই ২০২১ 
  22. "India, Great Britain. India Office"। Memoranda on the Indian States। Manager of Publications। ১৯৩৫। সংগ্রহের তারিখ ১ জুলাই ২০২১ 
  23. Arora, A. C. (১৯৮২)। British Policy Towards the Punjab States, 1858-1905। Export India Publications। পৃষ্ঠা 390। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  24. Punjab (India) (১৯২০)। Report on the Administration of the Punjab and Its Dependencies। Superintendent, Government Printing, Punjab। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০২১ 
  25. Gupta, Hari Ram (২০০১)। History of the Sikhs: The Sikh commonwealth or Rise and fall of Sikh misls (illustrated সংস্করণ)। Munshiram Manoharlal। পৃষ্ঠা 580। আইএসবিএন 978-8-121-5-01651। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২১ 
  26. Gandhi, Surjit Singh (১৯৮০)। Struggle of the Sikhs for Sovereignty। Gur Das Kapur। পৃষ্ঠা 552। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২১ 
  27. Chhabra, G. S. (১৯৬০)। The Advanced Study in History of the Punjab, Volume 1। Sharanjit। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০২১ 
  28. Punjab (India) (১৯৮৭)। Punjab District Gazetteers: Rupnagar। Controller of Print. and Stationery। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২১ 
  29. Sidhu, Kuldip Singh (১৯৯৪)। Ranjit Singh's Khalsa Raj and Attariwala Sardars। National Book Shop। পৃষ্ঠা 204। আইএসবিএন 978-8-171-1-61652। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২১ 
  30. Gupta, Hari Ram (২০০১)। History of the Sikhs: The Sikh commonwealth or Rise and fall of Sikh misls (3, illustrated, revised সংস্করণ)। Munshiram Manoharlal। পৃষ্ঠা 580। আইএসবিএন 978-8-121-5-01651। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০২১ 
  31. McLeod, W. H. (২০০৯)। The A to Z of Sikhism। Scarecrow Press। পৃষ্ঠা 330। আইএসবিএন 978-0-810-8-63446। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০২১ 
  32. Experts, Arihant (২০১৯)। Know Your State Punjab। Arihant Publications India limited। পৃষ্ঠা 376। আইএসবিএন 978-9-313-1-67662। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুলাই ২০২১ 
  33. Das, Veena (২০০৪)। Handbook of Indian Sociology (2 সংস্করণ)। New York। পৃষ্ঠা 502। আইএসবিএন 978-0-195-6-68315। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০২১ 
  34. Gill, Surjit S. (২০০৩)। Sikhs in Sabah and Labuan: A Historical Perspective। Labuan Sikh Society। পৃষ্ঠা 138। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০২১