চিন রাজ্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

চিন রাজ্য (বর্মী: ချင်းပြည်နယ်; এমএলসিটিএস: {{{MLCTS}}}) পশ্চিম মায়ানমারের একটি রাজ্য। ৩৬,০১৯ বর্গ কিলোমিটার (১৩,৯০৭ বর্গ মাইল) চীন রাজ্য পূর্ব দিকে সাংগাই রাজ্য এবং ম্যাগওয়ে বিভাগ, দক্ষিণে রাখাইন রাজ্য, দক্ষিণ-পশ্চিমে বাংলাদেশ, এবং পশ্চিমে মিজোরাম এবং মণিপুরের সীমানা। ২০১৪ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী চিন প্রদেশের জনসংখ্যার প্রায় ৪৭৮,৮০১ জন। রাজধানীর নাম হাক্ক। রাষ্ট্র কয়েকটি পরিবহন লিঙ্ক সহ একটি পর্বত অঞ্চল। চিন মায়ানমারের সবচেয়ে অনুন্নত এলাকাগুলির মধ্যে একটি। সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চীনের শিক্ষার হার ৭৩%। চীনের সরকারী রেডিও সম্প্রচারের ভাষা ফালাম। চিন প্রদেশে ৫৩ টি ভিন্ন উপজাতি এবং ভাষা রয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রাথমিক যুগের ইতিহাস[সম্পাদনা]

চিনা গোএের লোকজন প্রথম সহস্রাব্দে চিন পাহাড়ে বসবাস করা শুরু করেছিল। ইতিহাসের বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, সামান্য জনবহুল চিন পাহাড়ের মধ্যবর্তী ভূমি (বর্তমান ফালাম এলাকা), গুয়াইট, থাদো, সুতান্তক, সুকত, তলিসুন (হাল্নচু), বাভিথং, সুমথং এবং জহাউ অন্চলগুলো স্থানীয় প্রধানদের দ্বারা শাসিত হয়েছিল। দক্ষিণে (বর্তমান টেদিম, টোনজং ও লামকা এলাকা), জঠং-চিনজা, তলংচান, খল্লিংং এবং জোকুয়া চীফ (বর্তমানে হাখা, থান্তল্যাং এবং লুশাই পাহাড়ের কিছু অংশ) এবং সাইলো (গুইয়েট বা নিংুইয়েতের বংশধর) এবং লুয়ালাই পাহাড়ে হুগলগো (নেঘাইটের বংশধর) দ্বারা শাসিত হয়েছিল। ফানাই পাহাড়ের পাখুপ এবং টোরেল। লেখার পাহাড়ে চোজাহ, জাভাথা, খুলে, হ্লচহো, টোপা, খাইমাইখো, ক্যাথি, ছাইহলো, ছাছাই, থলিথা, জাখো, লৈহলো, বোহিয়া, নোহ্রো, হ্ললি, নটলিয়া, তাউ-ই আজিজু এবং ত্লাপোদের দ্বারা শাসিত হয়েছিল ।

কিছু ইতিহাসবিদ (আর্থার ফায়ারে, তুন নাঈন) পাটিক্কায়াকে পূর্বাঞ্চলীয় বাংলার স্থান বলে মনে করেছিলেন, এভাবে ভুলভাবে সমগ্র চিন পাহাড়কে পাগান স্রাম্রাজের অধীনস্ত বলে মনে করেছিলেন । তবে ইতিহাসবিদ হার্ভে , পাথরের শিলালিপিগুলো সঠিকভাবে উদ্ধৃত করে, এটিকে পূর্ব চীন পাহাড়ের কাছাকাছি স্থাপন করছিলেন। (বার্মিজ ক্রনিকলসগুলির মতে. পাটিক্কার রাজারা ভারতীয় ছিল । যদিও, জাতিগত ব্যাপার স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয় নি।) সেই অনুযায়ী, এ অঞ্চলের প্রথম মানব বসতিটি ১০ম শতাব্দী থেকেই চিন পাহাড় নামে পরিচিত ছিল । অন্য কোন দেশের সামরিক অভিযান ঘটে নি । মৌখিক ঐতিহ্য বা অন্যান্য ঐতিহাসিক শিলালিপিগুলি অনুযায়ী, ১৯ শতকের শেষের দিকে ব্রিটিশরা আসার আগ পর্যন্ত স্থানীয় প্রভাবশালী নেতারা শাসন রাজ্যটি শাসন করছিল ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]