গঞ্জাম জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গঞ্জাম জেলা
ଗଞ୍ଜାମ ଜିଲ୍ଲା
ওড়িশার জেলা
ওড়িশায় গঞ্জামের অবস্থান
ওড়িশায় গঞ্জামের অবস্থান
দেশভারত
রাজ্যওড়িশা
প্রশাসনিক বিভাগদক্ষিণ ওড়িশা বিভাগ
সদরদপ্তরছত্রপুর
তহশিল২৩
আয়তন
 • মোট৮২০৬ কিমি (৩১৬৮ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট৩২,৫৯,০৩১
 • জনঘনত্ব৪০০/কিমি (১০০০/বর্গমাইল)
জনতাত্ত্বিক
 • সাক্ষরতা৭১.০৯ শতাংশ
 • লিঙ্গানুপাত৯৮৩
গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাত১৪০৩ মিমি
ওয়েবসাইটদাপ্তরিক ওয়েবসাইট

গঞ্জাম জেলা (ওড়িয়া: ଗଞ୍ଜାମ ଜିଲ୍ଲା, প্রতিবর্ণী. গঞ্জাম জিল্লা) পূর্ব ভারতে অবস্থিত ওড়িশা রাজ্যের ৩০ টি জেলার একটি জেলা৷ ১৯শে চৈত্র ১৩৪২ বঙ্গাব্দে (১লা এপ্রিল ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে) উৎকল সংগঠন গড়ে ওঠির সময় এই জেলাটির আত্মপ্রকাশ ঘটে৷ আবার ১৫ই আশ্বিন ১৩৯৯ বঙ্গাব্দে (২রা অক্টোবর ১৯৯২ খ্রিস্টাব্দে) পুর্বতন গঞ্জাম জেলাটি থেকে গজপতি ও গঞ্জাম দুটি জেলা গঠন করা হয়৷ গঞ্জাম জেলাটি ওড়িশার দক্ষিণ ওড়িশা বিভাগের অন্তর্গত৷ জেলাটির জেলাসদর ছত্রপুর শহরে অবস্থিত এবং ব্রহ্মপুর মহকুমা, ভঞ্জনগর মহকুমা, ছত্রপুর মহকুমা নিয়ে গঠিত৷

নামকরণ[সম্পাদনা]

গঞ্জাম জেলার এই 'গঞ্জাম' নামটি এসেছে 'গঞ্জ-ই-আম' থেকে৷ আরবি এই শব্দের অর্থ বিশ্বের শস্যাগার৷ আবার অন্যমতে ঐ অঞ্চলের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত রুশিকুল্য নদীর তীরে অবস্থিত ইউরোপীয়ানদের দ্বারা নির্মিত গঞ্জাম দূর্গের নামে ঐ অঞ্চলের নাম, তবে দূর্গের নাম আগে এসেছে নাকী জায়গার নাম সেই নিয়ে বিবাদ রয়েছে৷[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিক আন্দোলন[সম্পাদনা]

ভূপ্রকৃৃতি[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

অবস্থান[সম্পাদনা]

জেলাটির উত্তরে ওড়িশা রাজ্যের নয়াগড় জেলাজেলাটির উত্তর পূর্বে(ঈশান) ওড়িশা রাজ্যের নয়াগড় জেলাজেলাটির পূর্বে ওড়িশা রাজ্যের পুরী জেলা ও ওড়িশা রাজ্যের খোর্দা জেলাজেলাটির দক্ষিণে অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্যের শ্রীকাকুলাম জেলাজেলাটির দক্ষিণ পশ্চিমে(নৈঋত) ওড়িশা রাজ্যের গজপতি জেলাজেলাটির পশ্চিমে ওড়িশা রাজ্যের কন্ধমাল জেলাজেলাটির উত্তর পশ্চিমে(বায়ু) ওড়িশা রাজ্যের কন্ধমাল জেলা[২] জেলাটির দক্ষিণ পূর্বে(অগ্নি) বঙ্গোপসাগর অবস্থিত৷

জেলাটির আয়তন ৮২০৬ বর্গ কিমি৷ রাজ্যের জেলায়তনভিত্তিক ক্রমাঙ্ক ৩০ টি জেলার মধ্যে তম৷ জেলার আয়তনের অনুপাত ওড়িশা রাজ্যের ৫.২৭%৷

ভাষা[সম্পাদনা]

গঞ্জাম জেলায় প্রচলিত ভাষাসমূহের পাইচিত্র তালিকা নিম্নরূপ -

২০১১ অনুযায়ী গঞ্জাম জেলার ভাষাসমূহ[৩]

  ওড়িয়া (৯১.২৯%)
  তেলুগু (৭.১৭%)
  কুই (০.৪৫%)
  অন্যান্য (১.০৯%)

ধর্ম[সম্পাদনা]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

মোট জনসংখ্যা ৩১৬০৬৩৫(২০০১ জনগণনা) ও ৩৫২৯০৩১(২০১১ জনগণনা)৷ রাজ্যে জনসংখ্যাভিত্তিক ক্রমাঙ্ক ৩০ টি জেলার মধ্যে ১ম৷ ওড়িশা রাজ্যের ৮.৪১% লোক গঞ্জাম জেলাতে বাস করেন৷ জেলার জনঘনত্ব ২০০১ সালে ৩৮৫ ছিলো এবং ২০১১ সালে তা বৃদ্ধি পেয়ে ৪৩০ হয়েছে৷ জেলাটির ২০০১-২০১১ সালের মধ্যে জনসংখ্যা বৃৃদ্ধির হার ১১.৬৬% , যা ১৯৯১-২০১১ সালের ১৬.৮৮% বৃদ্ধির হারের থেকে কম৷ জেলাটিতে লিঙ্গানুপাত ২০১১ অনুযায়ী ৯৮৩(সমগ্র) এবং শিশু(০-৬ বৎ) লিঙ্গানুপাত ৯০৮৷[৪]

নদনদী[সম্পাদনা]

পরিবহন ও যোগাযোগ[সম্পাদনা]

পর্যটন ও দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

ঐতিহ্য ও সংস্কৃৃতি[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

জেলাটির স্বাক্ষরতা হার ৬০.৭৭%(২০০১) তথা ৭১.০৯%(২০১১)৷ পুরুষ স্বাক্ষরতার হার ৭৫.২২%(২০০১) তথা ৮০.৯৯%(২০১১)৷ নারী স্বাক্ষরতার হার ৪৬.৪৪%(২০০১) তথা ৬১.১৩% (২০১১)৷ জেলাটিতে শিশুর অনুপাত সমগ্র জনসংখ্যার ১১.৯১%৷[৪]

প্রশাসনিক বিভাগ[সম্পাদনা]

সীমান্ত[সম্পাদনা]

বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://ganjam.nic.in/about-district/history/
  2. https://www.mapsofindia.com/maps/orissa/tehsil/ganjam.html
  3. http://www.censusindia.gov.in/2011census/C-16.html
  4. https://www.census2011.co.in/census/district/412-ganjam.html