গঙ্গা তরুণাস্থি কাছিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

গঙ্গা তরুণাস্থি কাছিম
Nilssonia gangetica
Nilssonia gangetica.jpg
Immature (the dark eyespots on the carapace are indistinct or absent in adults)[১]
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: Sauropsida
বর্গ: Testudines
উপবর্গ: Cryptodira
পরিবার: Trionychidae
গণ: Nilssonia[২]
প্রজাতি: N. gangetica
দ্বিপদী নাম
Nilssonia gangetica
(Cuvier, 1825)[২][৩]
প্রতিশব্দ[৪]
  • Trionyx gangeticus Cuvier, 1825
  • Trionyx javanicus Gray, 1831
  • Testudo gotaghol Buchanan-Hamilton, 1831 (nomen nudum)
  • Aspidonectes gangeticus Wagler, 1833
  • Gymnopus duvaucelii Duméril & Bibron, 1835
  • Tyrse gangetica Gray, 1844
  • Trionyx gangetiga Gray, 1873 (ex errore)
  • Isola gangetica Baur, 1893
  • Aspideretes gangeticus Hay, 1904
  • Trionyx gangeticus mahanaddicus Annandale, 1912
  • Gymnopus duvaucelli Smith, 1931
  • Amyda gangetica Mertens, Müller & Rust, 1934
  • Trionix gangeticus Richard, 1999

গঙ্গা তরুণাস্থি কাছিম বা খালুয়া কাছিম বা গঙ্গা কাছিম (ইংরেজি: Indian softshell turtle বা Ganges softshell turtle), দ্বিপদ নাম:Nilssonia gangetica) হচ্ছে কচ্ছপের একটি প্রজাতি। এটি ভারত, আফগানিস্তান, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশে পাওয়া যায়।[৫] এদের কৃত্তিকাবর্মের দৈর্ঘ্য ৯৪ সেমি পর্যন্ত হতে পারে।[১]

বাংলাদেশের ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের তফসিল-১ অনুযায়ী এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ernst, C.H.; Altenburg, R.G.M.; and Barbour, R.W. (1997). Aspideretes gangeticus ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে, Turtles of the World. Retrieved 17 June 2014.
  2. টেমপ্লেট:Harnvb
  3. Nilssonia gangetica from the Redlist
  4. Fritz Uwe; Peter Havaš (২০০৭)। "Checklist of Chelonians of the World"Vertebrate Zoology57 (2): 310। ISSN 18640-5755। ২০১০-১২-১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১২ 
  5. জিয়া উদ্দিন আহমেদ (সম্পা.), বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ: উভচর প্রাণী ও সরীসৃপ, খণ্ড: ২৫ (ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি, ২০০৯), পৃ. ৬৮-৬৯।
  6. বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জুলাই ১০, ২০১২, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, পৃষ্ঠা-১১৮৪৪২।

পাঠ[সম্পাদনা]