ক্যাডমন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্যাডমনের স্মৃতিস্মারক, সেন্ট ম্যারিস চার্চ, হুইটবি।

ক্যাডমন (ইংরেজি: Cædmon; উচ্চারণ: (/ˈkædmən/ বা /ˈkædmɒn/; আনু. ৬৫৭-৬৮৪ খ্রিস্টাব্দ) হলেন ইংরেজি সাহিত্যের প্রাচীন যুগের এমনসব কবিদের একজন যাদের নাম জানা যায়। তাকে ইংরেজি সাহিত্যের অ্যাংলো-স্যাক্সন যুগের মিল্টন নামে অভিহিত করা হয়। প্রাচীন যুগের যে বারোজন কবিকে মধ্যযুগের বিভিন্ন দলিলপত্রে সনাক্ত করা হয়েছে, ক্যাডমন তাদের একজন। তিনি প্রাচীন যুগের মাত্র তিনজন সমসাময়িক কবির একজন, যাদের সংক্ষিপ্ত জীবনী ও কিছু সাহিত্যকর্মের নিদর্শন খুঁজে পাওয়া যায়। ক্যাডমন্‌স হাইম বা ক্যাডমনের ভক্তিগীতি ক্যাডমনের একমাত্র সাহিত্যকর্ম যা এখনও টিকে আছে। এটি তিনি ঈশ্বরের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের উদ্দেশে রচনা করেছিলেন। মাত্র নয় লাইনের ভক্তিগীতিসমৃদ্ধ কবিতাটি ইংরেজি সাহিত্যের প্রাচীন যুগের প্রমাণিত সাহিত্যকর্মগুলোর একটি। জার্মান ভাষার প্রাচীন যুগের যে সাহিত্যকর্মগুলো এখনো টিকে আছে, তাদের মধ্যে প্রাচীনতম সাহিত্যকর্ম হিসেবেও এটি খ্যাত। ১৮৯৮ সালে হুইটবির সেন্ট ম্যারিস চার্চে তার সম্মানে ক্যাডমন্‌স ক্রস স্থাপন করা হয়।

জীবনী[সম্পাদনা]

বিডের নথি[সম্পাদনা]

ক্যাডমনের জীবনী ও কর্ম সম্পর্কে একমাত্র মৌলিক তথ্যের উৎস হল বিডের হিস্তোরিয়া এক্লেসিয়াস্তিকা[১] বিডের মতে, ক্যাডমন ছিলেন লে ব্রাদারদের একজন, যিনি খ্রিস্টান সন্ন্যাসীদের মঠ স্ত্রেওন্যাশাল্‌চে (বর্তমান হুইটি অ্যাবি) বাস করতেন এবং তিনি পশুপ্রেমী ছিলেন। এক সন্ধ্যায় যখন অন্য সন্ন্যাসীগণ ভোজন, গানবাজনা ও বীণা বাজানোয় মত্ত ছিলেন, ক্যাডমন অন্য প্রাণিদের নিয়ে ঘুমাতে যান, কারণ তিনি কোন গান জানতেন না। সেন্ট বিড স্পষ্ট করে উল্লেখ করেন যে কীভাবে গীতকে গানে সুর দিতে হয় ক্যাডমনের সেই জ্ঞান ছিল না। ঘুমের মধ্যে তিনি স্বপ্ন দেখেন কেউ তার কাছে এসে তাকে "প্রিন্সিপিয়াম ক্রিয়েচারাম" (সৃষ্টির শুরু) গাইতে বলেন। প্রথম গাইতে মানা করলেও তিনি পরে স্বর্গ ও মর্ত্যের সৃষ্টিকারী প্রভুর প্রশংসামূলক একটি ছোট কবিতা রচনা করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Book IV, Chapter 24. The most recent edition is Colgrave and Mynors 1969