কিয়া কুল হ্যায় হাম ৩

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কিয়া কুল হ্যায় হাম ৩
কিয়া কুল হ্যায় হাম ৩.jpg
কিয়া কুল হ্যায় হাম ৩ চলচ্চিত্রের পোস্টার
Kyaa Kool Hain Hum 3
পরিচালকউমেশ ঘাডগে
প্রযোজক
রচয়িতা
  • মিলাপ জাভেরি
  • মোশতাক শেখ
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারসাজিদ-ওয়াজিদ
প্রযোজনা
কোম্পানি
এলটি বালাজি
পরিবেশকইরস ইন্টারন্যাশনাল
মুক্তি২২ জানুয়ারী ২০১৬
দৈর্ঘ্য১২৪ মিনিট
দেশভারত
ভাষাহিন্দি

কিয়া কুল হ্যায় হাম ৩ (হিন্দি: क्या कूल हैं हम 3) একটি হাস্যরস চলচ্চিত্র যেটা একতা কাপুরশোভা কাপুর প্রযোজনা করেছন। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন উমেশ ঘাডগে। চলচ্চিত্রটিতে মুল ভুমিকাতে আফতাব শিবদাসানী, তুষার কাপুর অভিনয় করেছেন।[১]

কাহিনী[সম্পাদনা]

কানহাইয়া (তুষার কাপুর) তাঁর পিতা তাকে লাথি মেরে বের করে দেয়। তার বেকার বন্ধু রকি (আফতাব শিবদাসানি) যায় থাইল্যান্ড, যেখানে মিকি (কৃষ্ণ অভিষেক) এ কাজ তাদের অফার পর্ণ ছায়াছবি। অর্থ উপার্জনে মরিয়া তারা দুজনেই চাকরিটি গ্রহণ করে এবং বলিউডের মুভিগুলির চেন্নাই সেক্সপ্রেস (চেন্নাই এক্সপ্রেস), খোলে (শোলে), লিক (কিক), লিঙ্গাম (সিংহাম) ইত্যাদির অ্যাডাল্ট সংস্করণে কাজ করে তাদের পর্নো তারকা ক্যারিয়ার শুরু করে। একসঙ্গে শকুন্তলা যেমন এই ধরনের অন্যান্য পর্ণ বড় সঙ্গে ক্লদিয়া এবং মেরি লি।

ভাগ্যের মোড় ঘেঁটে, কানহাইয়া শালুর (মান্দানা করিমি) প্রেমে পড়েন, এক সুন্দর ভারতীয় মহিলা যিনি কানহাইয়ের পেশা সম্পর্কে অজানা। কানহাইয়া শালুর কাছে প্রস্তাব দেওয়ার সাথে সাথে তিনি তার বাবার সূর্য করজতিয়াকে (দর্শন জারিওয়ালা) তার পরিবারের সাথে দেখা করতে ডেকেছিলেন। অন্য কোনও সমাধান পেতে অক্ষম, কানহাইয়া পর্ন তারকাদের একটি দল থেকে একটি নকল পরিবারকে সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এটি শীঘ্রই ত্রুটির একটি কৌতুক হয়ে ওঠে কারণ রকি এবং মিকি উভয়ই কানহাইয়ের বাবা হিসাবে ছদ্মবেশে এসে পৌঁছেছিল। বিষয়গুলি আরও মজাদার হয়ে ওঠে যখন কানহাইয়ার আসল বাবা পিকে লেলে (শক্তি কাপুর) তার সৎ মায়ের (মেঘনা নাইডু) সাথে উপস্থিত হন। কানহাইয়া এবং তার দল পারিবারিক নাটকটি বজায় রাখতে লড়াই করে, কারণ তারা গোপনে তাদের পরবর্তী প্রাপ্ত মুগল-ই-অর্গাজম শিরোনামের পরবর্তী প্রাপ্ত বয়স্ক সিনেমার শুটিংয়ের চেষ্টাও করে (মোগল-ই-আজম)। তবে শীঘ্রই তারা একটি স্থানীয় ডিভিডি স্টোরে কানহাইয়া এবং রকির অশ্লীল চলচ্চিত্রের সংগ্রহ দেখলে প্রত্যেকে বাস্তবতাটি নির্ধারণ করে। প্রথমদিকে মন খারাপ করে, করজতিয়া বিবাহ বন্ধ করে দেয়, ফলস্বরূপ কানহাইয়া আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছিল, যার ফলে সবাই বালির গর্তে পড়েছিল। মিকি তাদের বাঁচাতে একটি গরম বাতাসের বেলুন ব্যবহার করে। পরে, করজতিয়া কানহাইয়াকে ক্ষমা করে দিয়েছিল এবং তাকে তার কন্যার সাথে বিবাহ করতে দেয়, যখন মিকি কেবল পারিবারিক সিনেমা পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেন।

অভিনয়[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]